ঢাকা, ২৫ মে ২০২৪, শনিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলক্বদ ১৪৪৫ হিঃ

বিশ্বজমিন

একুশ শতকের ভয়াবহ যত ভূমিকম্প, প্রাণ হারিয়েছে সাত লাখ মানুষ

মানবজমিন ডেস্ক

(১ বছর আগে) ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ১০:৩৩ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৫:২৩ অপরাহ্ন

mzamin

ভয়াবহ ভূমিকম্পের পর বিশ্বের চোখ এখন তুরস্ক ও সিরিয়ার দিকে। এরইমধ্যে সেখানে ৪৩০০ জনের বেশি মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতের সংখ্যা এর কয়েকগুণ পর্যন্ত বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ভূমিকম্পে শুধু এ শতকেই ৭ লাখের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। ২০০০ সালের পর সবথেকে প্রাণঘাতী কয়েকটি ভূমিকম্পের তালিকা প্রকাশ করেছে আল-জাজিরা। 

২২শে জুন, ২০২২: আফগানিস্তানে ৬.১ মাত্রার ভূমিকম্পে ১১০০ জনের বেশি মানুষ মারা যায়।
১৪ই আগস্ট, ২০২১: হাইতিতে একটি ৭.২ মাত্রার ভূমিকম্পে ২২০০ জনের বেশি মানুষ মারা যায়।
২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮: ইন্দোনেশিয়ায় ৭.৫ মাত্রার ভূমিকম্পে ৪৩০০ মানুষের প্রাণহানী হয়। 
২৪শে আগস্ট, ২০১৬: মধ্য ইতালিতে একটি ৬.২ মাত্রার ভূমিকম্পে তিনশ মানুষ প্রাণ হারান। 
২৫শে এপ্রিল, ২০১৫: প্রতিবেশী দেশ নেপালে ৭.৮ মাত্রার ভূমিকম্পে ৮,৮০০ মানুষ নিহত হন।
৩রা আগস্ট, ২০১৪: দক্ষিণ চীনের ইউনান প্রদেশের ওয়েনপিংয়ের কাছে একটি ৬.২ মাত্রার ভূমিকম্পে ৭০০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হন। 
২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০১৩: এদিন ৭.৭ মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে পাকিস্তান। মারা যান আট শতাধিক মানুষ।
১১ই মার্চ, ২০১১: জাপানের উত্তর-পূর্ব উপকূলে ৯ মাত্রার একটি ভূমিকম্প হয় যা পরবর্তীতে ভয়াবহ সুনামি সৃষ্টি করে। এতে মৃতের সংখ্যা শেষ পর্যন্ত ২০ হাজার ছাড়িয়েছিল। 
২৭শে ফেব্রুয়ারী, ২০১০: ৮.৮ মাত্রার ভূমিকম্প চিলিকে কাঁপিয়ে দেয়। ভূমিকম্পের ফলে সৃষ্ট সুনামিতে ৫২৪ জনের মৃত্যু হয়। 
১২ই জানুয়ারী, ২০১০: হাইতিতে ৭ মাত্রার একটি ভূমিকম্পে ৩ লাখ ১৬ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়। 
৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০০৯: ইন্দোনেশিয়ার দক্ষিণ সুমাত্রায় ৭.৫ মাত্রার ভূমিকম্পে ১১০০ জনেরও বেশি মানুষ মারা যান।
৬ই এপ্রিল, ২০০৯: একটি ৬.৩ মাত্রার ভূমিকম্পে ইতালিতে ৩০০ জন নিহত হন। 
১২ই মে, ২০০৮: চীনের পূর্ব সিচুয়ানে ৭.৯ মাত্রার একটি ভূমিকম্প আঘাত হানে, যার ফলে ৮৮০০ মানুষের মৃত্যু হয়।  
১৫ই আগস্ট, ২০০৭: মধ্য পেরুর উপকূলের কাছে একটি ৮ মাত্রার ভূমিকম্পে ৫০০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়।
২৬শে মে, ২০০৬: ইন্দোনেশিয়ার জাভা দ্বীপে ৬.৩ মাত্রার ভূমিকম্পে প্রায় ৬ হাজার মানুষ প্রাণ হারান। 
৮ই অক্টোবর, ২০০৫: পাকিস্তান দখলকৃত কাশ্মীরে ৭.৬ মাত্রার ভূমিকম্পে ৮০ হাজারের বেশি প্রাণহানী হয়। 
২৮শে মার্চ, ২০০৫: ইন্দোনেশিয়ার উত্তর সুমাত্রায় ৮.৬ মাত্রার একটি ভূমিকম্পে প্রায় ১৩০০ মানুষ মারা যান।
২৬শে ডিসেম্বর, ২০০৪: ইন্দোনেশিয়ায় একটি ৯.১ মাত্রার ভূমিকম্প ভারত মহাসাগর জুড়ে সুনামি সৃষ্টি করে। এতে ১২টি দেশে ২ লাখ ৩০ হাজার মানুষের প্রাণহানী হয়। 
২৬শে ডিসেম্বর, ২০০৩: একটি ৬.৬ মাত্রার ভূমিকম্প দক্ষিণ-পূর্ব ইরানে আঘাত হানে, যার ফলে ২০ হাজার জন মারা যায়।
২১শে মে, ২০০৩: আলজেরিয়ায় ৬.৮ মাত্রার ভূমিকম্পে ২২০০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়।
২৫শে মার্চ, ২০০২: উত্তর আফগানিস্তানে ৬.১ মাত্রার ভূমিকম্পে প্রায় এক হাজার মানুষ নিহত হয়।
২৬শে জানুয়ারী, ২০০১: ভারতের গুজরাটে ৭.৭ মাত্রার ভূমিকম্পে ২০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়।
 

বিজ্ঞাপন

বিশ্বজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status