ঢাকা, ২৩ জুলাই ২০২৪, মঙ্গলবার, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৬ মহরম ১৪৪৬ হিঃ

ভারত

নয়া ফৌজদারি আইন

মোদিকে মমতার চিঠি

অনলাইন ডেস্ক

(১ মাস আগে) ২১ জুন ২০২৪, শুক্রবার, ৬:০০ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১:০২ অপরাহ্ন

mzamin

ভোট মিটতেই নয়া ফৌজদারি আইন নিয়ে মোদিকে তিন পাতার চিঠি দিলেন মমতা ১ জুলাই থেকেই দেশে কার্যকরী হবে নয়া ফৌজদারি আইন। বিগত লোকসভায় পাস হওয়া সেই তিন ফৌজদারি আইন অবিলম্বে প্রত্যাহার করা হোক, সেই আবেদন জানিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি পাঠালেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত বছর সংসদে পাশ হয়েছিল ভারতীয় ন্যায় সংহিতা ২০২৩, ভারতীয় সাক্ষ্য অধিনিয়ম ২০২৩ এবং ভারতীয় নাগরিক সুরক্ষা সংহিতা ২০২৩।

প্রধানমন্ত্রীকে পাঠানো চিঠিতে মমতা লিখেছেন, গত বছরের ডিসেম্বরে পাশ হওয়া ওই তিনটি বিল অধিবেশনে একপ্রকার কোনও বিতর্ক-আলোচনা ছাড়াই পাস করানো হয়েছিল। লোকসভা থেকে প্রায় ১০০ সাংসদকে সাসপেন্ড করা হয়েছিল। উভয় কক্ষ মিলিয়ে সংখ্যাটা প্রায় ১৪৬ জন সাংসদ। এই তিনটি বিল যখন সংসদে পেশ হয়, তখন কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস, ডিএমকে-সহ একাধিক বিরোধী দল এর তীব্র বিরোধিতা করেছিল। তাদের বক্তব্য ছিল, এই তিন ফৌজদারি বিলে বেশ কিছু জায়গায় পুরনো আইনকেই ‘কপি-পেস্ট’ করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার যে ঔপনিবেশিকতা থেকে মুক্তির কথা বলছে, কিন্তু এই বিলগুলিতে সেই ঔপনিবেশিক ধ্যান-ধারনাকেই আঁকড়ে ধরে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ বিরোধীদের। মুখ্যমন্ত্রী তাঁর চিঠিতে প্রধানমন্ত্রীকে সেই কথাই মনে করিয়ে দিয়ে বলেছেন -'বিদায়ী লোকসভায় যে ভাবে কোনও আলোচনা ছাড়াই দ্রুত বিল তিনটি পাশ করানো হয়েছিল, তা গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া এবং মূল্যবোধের পরিপন্থী। নৈতিকতার দিক থেকে আমি মনে করি, সংসদীয় ব্যবস্থার স্বচ্ছতা এবং বিশ্বাসযোগ্যতার কথা ভেবে নবনির্বাচিত লোকসভার সদস্যদের তাঁদের আমলে কার্যকর হওয়া আইন নিয়ে বিতর্কে অংশ নেওয়ার সুযোগ দেওয়া উচিত।’ শুরু থেকেই তৃণমূল নেত্রী এই আইন কার্যকরে আপত্তি জানিয়ে এসেছেন।

মমতার সাফ কথা, “ওই তিন আইন স্বৈরাচারী মানসিকতা থেকে পাশ করানো হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন
গণতন্ত্রের কালো দিনে আইনটি তৈরি হয়েছিল। আমার মনে হয় এবার এই আইনটি পুনরায় খতিয়ে দেখার সময় এসেছে।' গত ফেব্রুয়ারি মাসে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে বিবৃতি দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল, আগামী ১ জুলাই থেকেই ভারতে কার্যকর হবে দণ্ডবিধি সংক্রান্ত তিনটি নতুন আইন। ফলে ভারতীয় আইন ব্যবস্থা থেকে পুরোপুরি মুছে যাবে বৃটিশ ঔপনিবেশিক আমলে তৈরি হওয়া দণ্ডবিধিগুলি। আর তাই সংসদে এই নতুন সংশোধিত ফৌজদারি আইন পর্যালোচনা করার জন্য এটিকে গোটা দেশে কার্যকরী করার নির্ধারিত সময় পিছিয়ে দেওয়ার আবেদন জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

ভারত থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

ভারত সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status