ঢাকা, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, বুধবার, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৪ শাওয়াল ১৪৪৫ হিঃ

ভারত

সংকটের সাতকাহন(৫)

আদানির পতনে ভারতও বিশ্বের পঞ্চম অর্থনীতির শিরোপা হারালো, কেন্দ্রীয় সরকারের অনুসন্ধান শুরু

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা

(১ বছর আগে) ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, শনিবার, ১০:৩৭ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:১৭ পূর্বাহ্ন

mzamin

(আদানি সাম্রাজ্য’র পতন না-কি ভারতের ওপর সুপরিকল্পিত আক্রমণ? কেন্দ্রীয় সরকার অবশেষে অনুসন্ধান শুরু করলো। আজ ধারাবাহিকের পঞ্চম ও শেষ কিস্তি)

গৌতম আদানি বিশ্বের ধনী তালিকায় নামতে নামতে শুক্রবার রাতে পৌঁছে গেছেন কুড়িরও নিচে। আদানিদের গর্বের মিনারে এই ঘটনায় যে আঘাতই লাগুক না কেন এটা বাস্তব ঘটনা যে, আদানিদের এই পতন ভারতকে বিশ্বের পঞ্চম অর্থনীতির দেশ হওয়ার গৌরব থেকে বিচ্যুত করেছে। ফ্রান্স এখন ভারতের জায়গায় এবং বৃটেন থেকে ভারত মাত্র ১০ কোটি ডলার ওপরে। 

বাজার থেকে আদানিদের প্রায় ১২৪ বিলিয়ন টাকা উধাও হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তা ভারতীয় অর্থনীতিকে আঘাত করেছে। সংসদের উভয় কক্ষ রাজ্যসভা এবং লোকসভা শুক্রবার আদানি-কাণ্ড নিয়ে উত্তপ্ত হয়। ভারত সরকার কোম্পানি ল’-এর ২০৬ ধারা অনুযায়ী ডিরেক্টর জেনারেল, কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্সকে এই বিষয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। এই আইনের বলে সরকার যেকোনো সময়ে কোনো কোম্পানির আয়-ব্যয়ের হিসাব ও কাগজপত্র চাইতে পারে। কেন্দ্রীয় সরকারের এই তৎপরতার পরই রিজার্ভ ব্যাংক একটি বিবৃতি জারি করে জানিয়েছে যে, ভারতীয় কোনো রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের স্বার্থহানি হয়নি আদানিদের এই পতনের ফলে। ভারতের তিন দশমিক দুই ট্রিলিয়ন ডলারের  অর্থনীতি যেভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে আদানিদের এই পতনে যা নানা প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।

এদিকে শুক্রবারই আদানি প্রসঙ্গটি ভারতের সুপ্রিম কোর্টে গেছে। একটি জনস্বার্থের মামলায় হিন্ডেনবার্গ রিপোর্টের সত্যতা নিয়ে যেমন প্রশ্ন তোলা হয়েছে, তেমনই শেয়ার ক্রেতাদের রক্ষাকবচের দাবি জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
সুপ্রিম কোর্ট কী বলে সেদিকে নজর সবার।

আদানিরা মুখরক্ষার জন্য শুক্রবারই তাদের কেনা নারী আইপিএল-এ  গুজরাটের কোচ হিসেবে নাম ঘোষণা করেছে অস্ট্রেলিয়ার নারী ক্রিকেট দলের প্রাক্তন রাচেল হেইন্সের। ভারতের প্রাক্তন ক্যাপ্টেন মিতালি রাজ এই দলের মেন্টর-উপদেষ্টা। গৌতম আদানি দলটি কিনেছেন এক হাজার ২৭৯ কোটি টাকা দিয়ে। কিন্তু নারী দল সম্পর্কে উজ্জীবিত ঘোষণা কি পারবে আর্থিক দুনিয়ার বাউন্সার সামলাতে? আদানি গ্রুপই পারে একমাত্র এই প্রশ্নের জবাব দিতে।

ভারত থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

ভারত সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status