ঢাকা, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, শুক্রবার, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

অনলাইন

বিয়ের প্রলোভনে অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ সহকারী পুলিশ সুপারের বিরুদ্ধে

স্টাফ রিপোর্টার, মানিকগঞ্জ থেকে

(১ মাস আগে) ৩ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ১১:০৭ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:১৪ অপরাহ্ন

মানিকগঞ্জ সিংগাইর সার্কেল সহকারী পুলিশ সুপার রেজাউল হকের বিরুদ্ধে এক নারীকে বিয়ে প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগ ওঠেছে।  ভুক্তভোগী ওই নারী পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগ করেছেন। ঘটনার পর থেকে পালিয়ে রয়েছেন অভিযুক্ত সহকারী পুলিশ সুপার রেজাউল হক।

একটি পোশাক কারখান উচ্চ পদে কর্মরত ওই নারী  সাংবাদিকদের জানান, ৯ মাস আগে একটি ঘটনার জেরে সহকারী পুলিশ সুপার রেজাউল হকের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। এরপর দুইজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিয়ে কথা বলে তাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক হয় একাধিক বার। মার্চ মাসে তাদের সম্পর্কের বিষয়টি রেজাউলের স্ত্রী জেনে যায়। রেজাউল তাকে বলেছিলো তার সন্তান একটু বড় হলে স্ত্রীসহ সন্তানকে কানাডা পাঠিয়ে দিবেন। তাদের মাঝে-মধ্যে ঝগড়া হলেও আবার মধুর সম্পর্কের সৃষ্টি হয়। গত রোববার রাতে রেজাউলকে কয়েকবার ফোন করার পর সে বারবার কেটে দেয়। এরপর রাত ১টার দিকে আবার ফোন দেয়া হলে ওই ফোন রেজাউল হকের স্ত্রী ধরে।

বিজ্ঞাপন
 এসময় তাকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে রেজাউলের স্ত্রী। পরের দিন সোমবার সকাল ১০টার দিকে রেজাউলের বাসায় গেলে তার স্ত্রী মহিলা পুলিশ দিয়ে তাকে মারধর করে ও মোবাইল ফোন কেড়ে রাখে। পরে পুলিশ এসে তাকে থানায় নিয়ে যায়। বিকেলের দিকে রেজাউল হক থানায় এসে ওসির রুমে ওসি ও তার মায়ের সামনে তাকে আগামী ৮ই আগস্ট বিয়ে করবেন ও রাত সাড়ে ৮টার দিকে তাদের বাড়িতে আসবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন। তার ওই প্রতিশ্রুতি পাওয়ার পর তিনি থানায় থেকে বাড়ি চলে যান। রাতে রেজাউল হক তাদের বাড়িতে না এসে স্থানীয় চেয়ারম্যান রিপন দেওয়ান ও সিংগাইর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সায়েদুল ইসলামকে পাঠান। তারা এসে তাকে টাকার বিনিময়ে বিষয়টি মীমাংসার প্রস্তাব দেন। তাদের প্রস্তাবে রাজি না হওয়াতে রেজাউল হকের চাকরি রক্ষার স্বার্থে তার কাছ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ নেন রেজাউল হকের সঙ্গে তার  কোন সম্পর্ক নেই। চেয়ারম্যান রিপন দেওয়ান  ও আওয়ামী লীগ নেতা সায়েদুল ইসলাম সহকারী পুলিশ সুপার রেজাউল হকের পক্ষে তাকে একটি লিখিত দেন যে আগামী ৮ই আগস্ট রেজাউল বিয়ে করবেন, যদি বিয়ে না করেন তবে সে আইনগত ব্যবস্থা নিতে পারবেন।

তিনি আরো জানান, মঙ্গলবার সকাল থেকে সহকারী পুলিশ সুপার রেজাউল হকের ব্যক্তিগত ও সরকারি মোবাইল বন্ধ থাকার কারণে তিনি মানিকগঞ্জ পুলিশ সুপারের সাথে কথা বলতে আসেন। কিন্তু পুলিশ সুপার মিটিংয়ে থাকার কারণে সেই সাক্ষাৎ হয়নি। এরপর তিনি সিংগাইর থানায় গিয়ে পুলিশের কাছে তার মোবাইল ফোন ফেরত চান। ওই সময় সিংগাইর থানার অফিসার ইনচার্জ থানায় না থাকায় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, পুলিশ তাকে কোন সাহায্য করবে না। তিনি একদিনের জন্য হলেও সহকারী পুলিশ সুপার রেজাউল হককে বিয়ে করবেন। বিয়ে যদি না করেন তবে থানায় এসে গায়ে আগুন ধরিয়ে আত্মহত্যা করবেন। সেই সঙ্গে তিনি ও তার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন বলে জানান।

সিংগাইর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সায়েদুল ইসলাম জানান, সহকারী পুলিশ সুপার রেজাউল হকের সঙ্গে কথা বলেই তিনি ওই নারীর সঙ্গে সোমবার রাতে দেখা করতে যান। তবে ওই নারীর সঙ্গে মীমাংসা করার জন্য সময়ে চেয়ে একটি বিয়ে তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছিলো। কিন্তু ওই নারী সময় না দিয়েই সাংবাদিকসহ পুলিশ সুপাররের কাছে অভিযোগ করেছেন। এখন আইনগতভাবে যা হয় তাই হবে।

এদিকে মঙ্গলবার বিকেলে ওই ভুক্তভোগী নারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খানের অফিসে দেখা করেন। সেখানে তিনি পুলিশ সুপারের কাছে সমস্ত ঘটনা খুলে বলেন।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান সাংবাদিকদের জানান, ওই নারীর সঙ্গে তার কথা হয়েছে। ওই নারী মৌখিকভাবে অভিযোগ করেছেন। তাকে লিখিতভাবে অভিযোগ দেয়ার জন্য বলা হয়েছে। অভিযোগ পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এছাড়া অভিযুক্ত সহকারী পুলিশ সুপার  রেজাউল হকের  অফিসে গেলেও তাকে পাওয়া যায়নি। তার সরকারী মোবাইল ফোনটি বন্ধ রয়েছে। তবে সোমবার তিনি বলেছিলেন ওই নারীর সাথে তার কোন সম্পর্ক নেই। একটি ভুলবোঝা বুঝির কারণে ওই নারী তার বাসায় এসেছিলো। এসময় তার স্ত্রী সাথে একটু ঝামেলা হয়।
 

পাঠকের মতামত

এক্ষেত্রে দুইজনেরই দোষ। তবে ক্ষমতায় থাকা পুলিশের দোষ বেশি। তাকে কঠোর শাস্তি দেয়া হোক । অন্ততঃ চাকুরী থেকে বিদায় করা উচিত ।

Amir Hossain
১১ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১০:১৬ অপরাহ্ন

পুলিশের গায়ে হাত তোলা নিষেধ। পুলিশ যখন তার ক্ষমতার অপব্যবহার করে যেমন: মিথ্যা মামলার ভয় দেখিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা চায়, আসামি ধরার পর ঘুষ নিয়ে ছেড়ে দেয়, রাস্তার মোড় মোড় দাঁড়িয়ে চাঁদা নেয় তখন ভুক্তভোগীরা ক্ষিপ্ত হয়ে ঐ পুলিশের উপর ঝাপিয়ে পড়া দোষের হবে কি?

শাজিদ
১১ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৯:১৫ পূর্বাহ্ন

দায়িত্বশীল সরকারি পদে থেকে এরকম অনৈতিক কাজে যুক্ত ও অভিযুক্ত হওয়া সরকার ও প্রশাসনের ভাবমূর্তিকে নিঃসন্দেহে ক্ষুন্ন করে। উপযুক্ত আইনানুগ ব্যাবস্হা গ্রহণ করা অত্যাবশ্যক।

মো. মাজেদ হোসেন
৯ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ৭:২৪ অপরাহ্ন

এইগুলি তো সেই প্রাক্তন ছাত্রলীগ ! শুধু পুলিশের পোশাক পরিয়ে দিয়েছে, এবার ইচ্ছামত করো।

Khan
৮ আগস্ট ২০২২, সোমবার, ১২:২১ পূর্বাহ্ন

প্রশ্নবিদ্ধ চরিত্রের একজন মহিলা কী সুবিচার প্রত্যাশা করেন ? এএসপি যে বিবাহিত সেটি এ মহিলার না জানার কথা নয়।‌‌জেনেশুনেই তিনি এই এএসপির সাথে বিছানায় গেছেন। এখন অভিযোগ করে কোন লাভ নেই। স্বেচ্ছায় কোন‌ মহিলা যখন একজন পুরুষের কাছে শারীরিক সম্পর্ক করতে আসে , তখন কোন পুরুষের পক্ষেই নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয় না ।

Andalib
৭ আগস্ট ২০২২, রবিবার, ৮:৫৩ অপরাহ্ন

Ki bolbo basha khuje paina.

SSA YOUTUBER
৩ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ১০:৩৫ পূর্বাহ্ন

সরকারী আমলাদের অতিরিক্ত বেতন এর পাশাপাশি ঘুষের পরিমানও বাড়াও টাকা পয়সা বেশি হইছে, এত টাকা হলে কি করবে তাই দুইটা তিনটা বিবাহ বহির্ভুত সম্পর্ক রাখতে হয়।

[email protected]
৩ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ১০:১৯ পূর্বাহ্ন

জবাবদিহিতা না থাকার ফল ।

Quamrul
৩ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ৭:২০ পূর্বাহ্ন

জেনেশুনে একজন মেয়া কোন বিবেচনাই একজন বিবাহিত পুরুষ এর সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে????

মসিউর রহমান
৩ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ৩:২৬ পূর্বাহ্ন

akta maya ki kora a kaj korta para.

zaman
৩ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ১:৩৮ পূর্বাহ্ন

মেয়েটি যেন সুবিচার পায় এটুকু আশা করছি।

Abdul Hye
৩ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ন

এরাই আজকের বাংলাদেশ

সৈয়দ মুরাদ
২ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ১১:১২ অপরাহ্ন

বিবাহিত লোকের সঙ্গে বিয়ের প্রলোভনে যে নারী আরেক নারীর সংসার ভাঙ্গতে চায় সে নারী সচ্চিত্র হতে পারে না। সহকারী পুলিশ সুপার ও চরিত্রহীন । তাতে তিনি পুলিশ বিভাগের ভাবমূর্তি নষ্ট করেছেন। বিভাগীয় সিদ্ধান্ত জানাবেন।

Kazi
২ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ১১:০২ অপরাহ্ন

কাজি আনারকলির মত‌ই এই ব্যাটা।মেয়েটি যেন সুবিচার পায় এটুকু আশা করছি।

রুহুল আমিন
২ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ১০:৪৮ অপরাহ্ন

আরেক ডিআইজি মিজান। চালিয়ে যান। তাহলে পুলিশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে।

T. U. Khan
২ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ১০:১৬ অপরাহ্ন

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রায়শই মিলত ধর্ষণের হুমকি/ ‘গেট খুলে দেখি মেয়ে অর্ধ-উলঙ্গ এবং গলা কাটা’

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status