ঢাকা, ১৯ জুন ২০২৪, বুধবার, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১২ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

বাংলারজমিন

উপজেলা নির্বাচনে সমর্থন

কবুল করলেন এমপি সোহরাব

স্টাফ রিপোর্টার, কিশোরগঞ্জ থেকে
২৬ মে ২০২৪, রবিবারmzamin

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নিজের পছন্দের প্রার্থীকে সমর্থনের বিষয়টি কবুল করে অবশেষে প্রকাশ্যে কথা বলেছেন কিশোরগঞ্জ-২ (কটিয়াদী-পাকুন্দিয়া) আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট মো. সোহরাব উদ্দিন। শনিবার এক মতবিনিময় সভায় বক্তৃতা দেয়ার সময় গত ৮ই মে অনুষ্ঠিত পাকুন্দিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী চেয়ারম্যান প্রার্থী এমদাদুল হক জুটন (আনারস) তার নিজের প্রার্থী ছিল বলে এডভোকেট মো. সোহরাব উদ্দিন এমপি স্বীকার করেছেন। এমনকি গত ২১শে মে অনুষ্ঠিত কটিয়াদী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী চেয়ারম্যান প্রার্থী আলহাজ মঈনুজ্জামান অপু (ঘোড়া)কেও তিনি সমর্থন দিয়েছিলেন বলে বক্তৃতায় উল্লেখ করেছেন। দুপুরে পাকুন্দিয়া উপজেলার পাটুয়াভাঙ্গা ইউনিয়নের দরগাঁ বাজারে নিজ বাসভবনে কটিয়াদী উপজেলার নেতৃবৃন্দের সঙ্গে এডভোকেট মো. সোহরাব উদ্দিন এমপি এ মতবিনিময় সভা করেন। এতে কটিয়াদী উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ মঈনুজ্জামান অপু, কটিয়াদী পৌরসভার মেয়র শওকত উসমান শুক্কুর আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন মিলন এবং বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

এডভোকেট মো. সোহরাব উদ্দিন এমপি তার বক্তৃতায় বলেন, মঈনুজ্জামান অপু যখন চেয়ারম্যান হয়েছে, এটা ইনডাইরেক্টলি, ডাইরেক্টলি আমার অবদান রয়েছে। কেউ স্বীকার করুক আর না করুক, আমার পজেটিভ ইনফরমেশনে ইলেকশনটা হয়েছে, যার জন্য অপু ভাই অনেক ভালো মানুষ, অনেক যোগাযোগ আছে, এরপরও যখন এই সংবাদটা পাইছে যে, তার সঙ্গে সোহরাব আছে, তখন আমাদের লোকজন যারা যেখানে আছে সবাই নেমে পড়েছে। বক্তৃতায় এডভোকেট মো. সোহরাব উদ্দিন এমপি যোগ করেন, পাকুন্দিয়াতে একই অবস্থা। যখন মানুষ শুনছে যে, জুটনের আমার সঙ্গে সম্পর্ক আছে এবং জুটন আমার ক্যান্ডিডেট, তখন আর ভোটের কোনো অসুবিধা হয়নি। আজকে এই দুইজন আমার পাশে, পক্ষে থাকলে উন্নয়নের কোনো সমস্যা হবে না। পাকুন্দিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক এডভোকেট মো. সোহরাব উদ্দিন বিগত ৭ই জানুয়ারির জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে নৌকার প্রার্থী পুলিশের সাবেক অতিরিক্ত ডিআইজি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল কাহার আকন্দকে পরাজিত করে কিশোরগঞ্জ-২ (কটিয়াদী-পাকুন্দিয়া) আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

প্রসঙ্গত, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে গত ৮ই পাকুন্দিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

বিজ্ঞাপন
নির্বাচনের আগে স্থানীয় সংসদ সদস্য এডভোকেট মো. সোহরাব উদ্দিনের বিরুদ্ধে এলাকায় অবস্থান করে চেয়ারম্যান প্রার্থী এমদাদুল হক জুটন (আনারস) এর পক্ষে কাজ করা এবং ভোটারদের প্রভাবিত ও চাপ প্রয়োগ করার অভিযোগ ওঠে। নির্বাচনে এমপির এই অবৈধ হস্তক্ষেপের প্রতিকার চেয়ে কৈ মাছ প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আলহাজ মো. মকবুল হোসেন রিটার্নিং অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগও করেছিলেন। কিন্তু তখন অভিযোগের বিষয়টি অস্বীকার করে সংসদ সদস্য এডভোকেট মো. সোহরাব উদ্দিন দাবি করেছিলেন, তিনি এলাকাতেই নেই, তাই এ অভিযোগ অমূলক। নির্বাচনের পরদিন গত ৯ই মে চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. রফিকুল ইসলাম রেনু অভিযোগ করেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য এডভোকেট মো. সোহরাব উদ্দিন সাহেব আইন লঙ্ঘন করে তার সমর্থিত প্রার্থী এমদাদুল হক জুটনকে জয়ী করার জন্য যত ধরনের অনিয়ম যথা পেশিশক্তির ব্যবহার, অবৈধ টাকার ছড়াছড়ির মাধ্যমে প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার, পোলিং অফিসারসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রভাবিত করেন। যার আভাস পূর্বেই আমি যথাযথ কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানিয়েছিলাম। কিন্তু কর্তৃপক্ষ নীরব থেকে দুষ্কার্যে সহায়তা প্রদান করেন।

 

বাংলারজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

বাংলারজমিন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status