ঢাকা, ২২ জুন ২০২৪, শনিবার, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

শিক্ষাঙ্গন

প্রশ্নের মান নিয়ে ক্ষোভ, গুচ্ছের ‘এ’ ইউনিটের পরীক্ষায় উপস্থিতির হার ৯০ শতাংশ

জবি প্রতিনিধি
২৮ এপ্রিল ২০২৪, রবিবারmzamin

গুচ্ছভুক্ত ২৪টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। চতুর্থ বারের মতো এবার গুচ্ছ প্রক্রিয়ায় ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলো। গতকাল দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত একযোগে ২২টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ‘এ’ ইউনিটে পরীক্ষার্থী ছিল ১ লাখ ৭০ হাজার ৫৯৯ জন। ২২টি কেন্দ্রে মোট উপস্থিতির হার ৯০ শতাংশ। তবে প্রশ্নের মান নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পরীক্ষার্থীরা। গতকাল পরীক্ষা শেষে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘এ’ ইউনিটের পরীক্ষায় গড়ে ৯০ শতাংশ পরীক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। এ ছাড়াও এদিন বিকাল সাড়ে ৩টায় অনুষ্ঠিত হয়েছে আর্কিটেকচার ব্যবহারিক (ড্রয়িং) পরীক্ষা। গুচ্ছ অন্তর্ভুক্ত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) কেন্দ্র এবং উপ-কেন্দ্র সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা সম্পন্ন হয়।

বিজ্ঞাপন
জবিতে উপস্থিতি হার ছিল ৮৩ শতাংশ। এদিন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়োজনে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের জন্য ছিল বিশুদ্ধ পানি, মেডিকেল টিম ও চেয়ারের ব্যবস্থা। সার্বক্ষণিক ভ্রাম্যমাণভাবে দু’টি মেডিকেল টিম সেবা প্রদান করে। জবিতে মাগুরা থেকে পরীক্ষা দিতে আসা শিক্ষার্থী অনিক আহমেদ এই উদ্যোগে খুশি হয়ে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পানির ব্যবস্থা করা হয়েছে এটা খুবই সুন্দর উদ্যোগ। এখানে এসে দেখলাম পানির ব্যবস্থা আছে। প্রচণ্ড গরমে এটা সবার জন্য ভালো। এদিন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রের বাইরে ভর্তিচ্ছু পরীক্ষার্থীদের সহায়তায় নিয়োজিত ছিল বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও এলাকাভিত্তিক ছাত্রসংগঠন। 

দূর থেকে আসা শিক্ষার্থীদের ব্যাগ, মোবাইল, বই, খাতাসহ গচ্ছিত রেখেছেন তারা। এ ছাড়াও ফ্রি লেবুর শরবত, বিস্কুট ও পানিও দিয়েছেন বিভিন্ন জেলাভিত্তিক এসব সংগঠন। পাশাপাশি ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে ছিল জয় বাংলা বাইক সার্ভিস। শাখা ছাত্রদলের পক্ষ থেকে পানি ও খাবার স্যালাইন বিতরণ করা হয়। 

দুপুর ১২টায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও নির্দিষ্ট সময়ের পরেও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে এসেছিলেন অনেক পরীক্ষার্থী। এসব পরীক্ষার্থীদেরও কেন্দ্রে বসার সুযোগ দিয়েছে প্রশাসন। ঢাকার যানজটে নির্দিষ্ট সময়ে কেন্দ্রে পৌঁছাতে পারেননি বলে জানান তারা।

এদিকে পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের ছাপার মান নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পরীক্ষার্থীরা। পরীক্ষার্থীদের অভিযোগ, প্রশ্নপত্রে ছাপা অক্ষর খুবই ছোট। একটি লাইনের সঙ্গে আরেকটি লাইনের, দূরত্ব খুবই কম। অক্ষরের আকৃতি খুবই ছোট। এ ছাড়াও প্রশ্নের লাইনের নৈর্ব্যত্তিক অপশন দেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন পরীক্ষার্থীরা। হৃদয় দেবনাথ নামের এক পরীক্ষার্থী বলেন, প্রশ্নের লাইনের মধ্যে স্পেস খুবই কম। আবার কিছু কিছু প্রশ্নে এলোমেলো সিরিয়াল ছিল। মো. ফাহাদ মোরশেদ নামের আরেক শিক্ষার্থী অভিযোগ করে বলেন, প্রশ্নের ছাপার পৃষ্ঠার ক্রম ঠিক ছিল না। এক পৃষ্ঠায় একরকম, পরের পৃষ্ঠায় আবার উল্টো করে ছাপা হয়েছে। কাগজের মানও ভালো না।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড সাদেকা হালিম বলেন, শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পরীক্ষার্থীদের সুবিধার্থে প্রশাসনসহ শিক্ষকরা কাজ করেছে। সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা শেষ হয়েছে।

উল্লেখ্য, ‘বি’ ইউনিটের (মানবিক) ৩রা মে (শুক্রবার) এবং ‘সি’ ইউনিটের (বাণিজ্য) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ১০ই মে (শুক্রবার)।
 

শিক্ষাঙ্গন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

শিক্ষাঙ্গন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status