ঢাকা, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শুক্রবার, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১২ শাবান ১৪৪৫ হিঃ

বাংলারজমিন

নামজারি জটলার কলঙ্ক থেকে মুক্ত হচ্ছে ডুমুরিয়ার ভূমি অফিস

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি

(১১ মাস আগে) ২১ মার্চ ২০২৩, মঙ্গলবার, ১১:০৬ পূর্বাহ্ন

mzamin

দীর্ঘদিনের নামজারি জটলার কলঙ্ক থেকে মুক্ত হতে যাচ্ছে ডুমুরিয়ার ভূমি অফিস। আগামী মাসের মধ্যে সকল গ্রাহক কাগজপত্র ঠিক থাকলে আবেদনের পর ২০ থেকে ২৫ দিনের মধ্যে নামজারির কেস নিষ্পত্তি হবে। 
জানা যায়, গত ৮ই ডিসেম্বর সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসাবে আফরোজ শাহীন খসড়ু যোগদান করেন। তখন নামজারির আবেদন ছিল ১২৭০৬টি, পরবর্তীতে নতুন আবেদন পড়ে ৩৮০৫টি।  এছাড়াও মিস কেসের আবেদন ছিল ৪৫০টি। বর্তমানে নামজারির কেস নিষ্পত্তির সংখ্যা প্রায় ১২ হাজার। এরমধ্য থেকে মঞ্জর হয়েছে ৫৫০০টি। মিস কেসের নিষ্পত্তি হয়েছে ৫০টি আবেদন। নামজারির আবেদন খারিজ হওয়ার বিষয়টি নিয়ে তথ্য নিলে হিন্দু সম্পত্তি স্ত্রী এক পুত্রের সমান অংশ পাবেন। অধিকাংশ দলিলেই মাতার অংশ না রেখেই পুত্ররা সম্পত্তি হস্তান্তর করেছেন। জমি ক্রয় করা একাধিক দাগে কিন্তু ভোগদখলে থাকা একদাগে নামজারির আবেদন করা।

বিজ্ঞাপন
মূল কাগজ পত্র দেখানো সহ শুনানিতে উপস্থিত না হওয়ার বিষয়টি উঠে আসে। অনেকে অভিযোগ করেন মোবাইলে ম্যাসেজ না পাওয়া নামজারি না করার। খোঁজ নিয়ে দেখা যায় অধিকাংশ ক্ষেত্রে যাদেরকে দিয়ে আবেদন করানো হয়েছিল বেশির ভাগ ক্ষেত্রে সেই সকল লোকদের  মোবাইল নাম্বার দেয়া ছাড়াও অনেকে সেই সিম ব্যবহার করছেন না। এছাড়া নামজারি না করার কারণ উল্লেখ করে বার্তা পাঠানোর তথ্য মিলেছে। গত ১৯ শে মার্চ সরেজমিনে গেলে দেখা যায়, নোটিশ করে শুনানির জন্য ডাকা হয়েছে ৭৫২ জনকে। কিন্তু উপস্থিত হয়েছেন ৩৪৩ জন। কথা বললে মোহাম্মদ নগর এলাকার মোসাঃ রহিমা বেগম (৫৩) বলেন, আমি অনেক দিন ঘুরেছি । এই স্যার আসার পর বাড়ি থেকে ডেকে এনে নাম সংশোধন করা সহ নামজারি করে দিয়েছেন। ইতিপূর্বে রেওয়াজ ছিল টাকা ও দালাল ছাড়া নামজারি হয় না। 
সরজমিনে ভূমি অফিসে গ্রাহক ছাড়া অন্য কাউকে দেখা যায়নি। এমনকি শুনানি করতে আসা উপস্থিত সকলেই ভূমি অফিসের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করা সহ ভবিষ্যতে যেন এমন পরিস্থিতি থাকে তার জন্য আশবাদ ব্যাক্ত করেন। 

বিষয়টি নিয়ে কথা বললে সহকারী কমিশনার (ভূমি) আফরোজ শাহীন খসড়ু বলেন, আমি চাই প্রকৃত গ্রাহক এসে হাজির হয়ে তার কাগজ পত্র দেখিয়ে নামজারি করে নিয়ে যাক। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আগামী মাসের ১০ তারিখের মধ্যে নামজারির জটলা কেটে স্বাভাবিক হয়ে যাবে তখন আর সমস্যা হবে না।
এবিষয়ে কথা বললে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) মোঃ শহিদুল ইসলাম বলেন, আমরা নির্দেশনা দিয়েছি আইনের ভিতরে থেকে নামজারি কেসের নিষ্পত্তি করার জন্য। যাতে গ্রাহক তার সঠিক সেবা পায় কোন অবস্থাতেই কেউ যেন হয়রানি না হয়। আশা করছি আগামী মাসে বিধি মোতাবেক ২৮ দিনের মধ্যে নামজারি কেসের নিষ্পত্তি হবে।

বাংলারজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

বাংলারজমিন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2023
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status