ঢাকা, ১৭ মে ২০২২, মঙ্গলবার, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

খেলা

সমকামীদের রুম বুকিং দিতে চাইছে না কাতারের হোটেলগুলো

স্পোর্টস ডেস্ক
১৫ মে ২০২২, রবিবার

বিশ্বকাপের সময় বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লোক সমাগম ঘটবে কাতারে। থাকবে সমকামী (এলজিবিটি) কমিউনিটির সদস্যরাও। তবে ফিফা স্বীকৃত কয়েকটি হোটেল সমকামীদের জায়গা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। এ খবর প্রকাশিত হওয়ার পর ক্ষোভ দেখা দিয়েছে এলজিবিটিদের মধ্যে। অন্যদিকে ফিফা পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে, সমকামীদের অধিকার রক্ষা না করলে বাতিল করে দেয়া হবে হোটেলগুলোর সঙ্গে থাকা চুক্তি। মধ্যপ্রাচ্যের বাকি সব দেশের মতো কাতারেও সমকামিতাকে অপরাধ হিসেবেই দেখা হয়। তবে বিশ্বকাপ আয়োজক কমিটি তাদের স্বাগত জানিয়েছে। এলজিবিটি ফ্যানরা এরই মধ্যে টিকিট কিনে পছন্দমতো হোটেলে বুকিং দিচ্ছে। স্ক্যান্ডিনেভিয়ান মিডিয়ার অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে, সমকামী শোনার পর তাদের প্রতি খুব একটা আগ্রহ দেখায়নি ৬৯টি হোটেল। তিনটি হোটেল সরাসরিই ‘না’ বলে দেয়

বিজ্ঞাপন
আরেকটি হোটেল জানায়, সমকামীদের রুম বুকিং দেয়া তাদের পলিসির পরিপন্থী। তবে বাকি হোটেলগুলোতে কোনো সমস্যা হয়নি। ৩৩টি হোটেলে জরিপ চালিয়ে এমন তথ্য পেয়েছে সাংবাদিকরা। এ ব্যাপারে ডেনিশ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সিইও জ্যাকব ইয়ানসেন বলেন, ‘বিশ্বকাপ দেখতে যাওয়া ভক্তদের জন্য এটা হতাশার। তারা যেই মতাদর্শেরই হোক না কেন নিরাপদ হোটেল পাওয়াটা তাদের অধিকার।’ এর আগে কাতারের মেজর জেনারেল আব্দুল আজিজ আব্দুল্লাহ আল আনসারি জানান, হোমো-সেক্সুয়ালদের মাঠে প্রবেশে কোনো বাধা নেই। কিন্তু তিনি সমকামিতা প্রচারণার ঘোরতর বিরোধী। রংধনু পতাকা মূলত সমকামী স্বাধীনতা ও তাদের অধিকারের প্রতীক বহন করে। আল আনসারি বলেন, ‘কোনো সমর্থক যদি রংধনু পতাকা উঁচিয়ে ধরে আমি সেটি তার কাছ থেকে ছিনিয়ে নেবো। তাকে অপমান করার জন্য এমনটি করবো না, বরং তাকে রক্ষা করতেই পতাকাটি ছিনিয়ে নেবো।’ আনসারির ভয়, কাতারে হামলার শিকার হতে পারেন সমকারীরা। তিনি বলেন, ‘আমি যদি এটা না করি, পাশে থাকা অন্য কারোর আক্রমণের শিকার হতে পারে সে (সমকামী)। এ বিষয়ে আমি কোনো নিশ্চয়তা দেবো না। তাকে বলবো, এই মুহূর্তে দয়া করে এটা বের করো না। বের করার প্রয়োজন নেই।’

 

খেলা থেকে আরও পড়ুন

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com