ঢাকা, ১৭ মে ২০২২, মঙ্গলবার, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

বাংলারজমিন

দেড় মাসেও সংস্কার হয়নি

ভাঙা কালভার্টে চারঘাটবাসীর ভোগান্তি

চারঘাট (রাজশাহী) প্রতিনিধি
১৪ মে ২০২২, শনিবার

রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার ইউসুফপুর-মতিহার সড়কের নওদাপাড়া এলাকায় একটি কালভার্ট প্রায় দেড় মাস আগে ভেঙে গেছে। এতে ওই সড়ক দিয়ে ভারী যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে ঝুঁকি নিয়ে ছোট ও মাঝারি যান চলাচল করায় যেকোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী। এ অবস্থায় তারা দ্রুত এটি সংস্কার করার দাবি জানিয়েছেন। জানা যায়, ইউসুফ-মতিহার সড়কটি রাজশাহী শহরের সঙ্গে চারঘাট উপজেলাকে সংযুক্ত করেছে। সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন ছোট-বড় অসংখ্য যানবাহন চলাচল করে। এর ওপর দিয়ে মাঝে মধ্যে মালবাহী ট্রাকও চলাচল করে। প্রায় দেড় মাস আগে বালুবাহী ড্রাম ট্রাক যাবার সময় ওই সড়কের নওদাপাড়া স্কুল মোড় এলাকার কালভার্টির একপাশ ভেঙে যায়। এরপর থেকে ওই সড়কে শুধু ইজিবাইক ও ভ্যানের মতো হালকা যানবাহন চলাচল করছে। এতে বেশ দুর্ভোগে পড়েছেন হাজার হাজার মানুষ

বিজ্ঞাপন
স্থানীয় বাসিন্দা প্রিন্স মাহমুদ জানান, প্রায় দেড় মাস ধরে কালভার্টটি ভেঙে আছে। এলাকাবাসী জনপ্রতিনিধিদের জানালেও কোনো মেরামতের ব্যবস্থা নেয়নি। ব্যস্ততম এ সড়কের কালভার্টের অন্যপাশটাও যেকোনো সময় ভেঙে পড়বে। দুর্ঘটনা এড়াতে যানবাহন চালক ও পথচারীদের সতর্ক করে কালভার্টের দেবে যাওয়া অংশে বাঁশের খুঁটি পুঁতে কাপড় বেঁধে দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া গ্রামবাসী যানবাহনের চালকদের সতর্ক করছে। তারপরও ছোট খাটো দুর্ঘটনা ঘটছে। স্থানীয় লেগুনা চালক আব্দুল খালেক বলেন, গত দেড় মাস ধরে কালভার্টের এই অবস্থা। একদিন কয়েকজন শ্রমিক কাজ করতে এসেও ফিরে গেল। কালভার্ট কবে ঠিক হবে কেউ কিছুই বলতে পারছে না। রাস্তা দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে। চারঘাট উপজেলা প্রকৌশলী নুরুল ইসলাম বলেন, কালভার্ট দেবে যাওয়ার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছিলাম। উপজেলা পরিষদের বিশেষ তহবিল থেকে কালভার্ট সংস্কারের উদ্যোগও নেয়া হয়েছিল। কিন্তু শ্রমিকরা কালভার্টের কাজ করতে গেলে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও চেয়ারম্যান তাদের ফেরত পাঠিয়েছে। এজন্য সংস্কার কাজ শেষ করা সম্ভব হয়নি। তবে কালভার্টের বিষয়টির সুরাহা করার চেষ্টা চলছে। 
কালভার্ট মেরামতের শ্রমিকদের ফেরত পাঠানোর বিষয়ে জানতে চাইলে স্থানীয় ইউসুফপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম মাখন বলেন, শ্রমিকদের ফেরত পাঠিয়েছি এটা ভুল কথা। বরং কালভার্টটি মেরামতের বিষয়ে শুরু থেকে দৌড়ঝাঁপ করছি। তবে কোনো ভুল বোঝাবুঝি থাকলে উপজেলা পরিষদের সঙ্গে সেটা সমন্বয় করে খুব দ্রুত কালভার্টটি মেরামত করা হবে।

 

বাংলারজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com