ঢাকা, ১৯ আগস্ট ২০২২, শুক্রবার, ৪ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০ মহরম ১৪৪৪ হিঃ

অনলাইন

বিয়েতে প্রয়াত বাবাকে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়লেন কনে

(১ মাস আগে) ২৯ জুন ২০২২, বুধবার, ১২:২০ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৫:৩৬ অপরাহ্ন

বিয়ের দিনটি কনের কাছে বেশ আনন্দের দিন হয়। মনে মনে সে নতুন সংসার গড়ার স্বপ্ন দেখে। কিন্তু এমন এক নববধূর ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যার কাছে বিয়ের দিনটি ছিল একদিকে যেমন আনন্দের তেমনি বিষাদের। মেয়ের বিয়েটা দেখে যেতে পারেননি বাবা। করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছিলেন। এমনই স্পেশ্যাল দিনে বোনের মুখে হাসি ফোটাতে তাই বাবার মোমের মূর্তি তাঁকে উপহার দিলেন দাদা অভুলা ফানি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে এই অভিনব উপহার ও এবং তা দেখে কনের প্রতিক্রিয়ার দৃশ্য। যা দেখে আবেগে ভাসছেন নেটদুনিয়ার বাসিন্দারাও। অনেকেই লিখেছেন, সত্যিই, এমন উপহার পাওয়া অত্যন্ত সৌভাগ্যের। নববধূ তার মা, তার স্বামী এবং পরিবারের বাকি সদস্যদের সাথে হলটিতে প্রবেশ করার সময় তার সামনে প্রয়াত বাবার মোমের মূর্তি দেখতে পেয়ে চোখের জল  ধরে রাখতে পারেননি।

বিজ্ঞাপন
তখনই তিনি কাঁদতে শুরু করেন, এমনকি তার মা মেয়ের কান্নাকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি। নববধূ তার বিয়ের সমস্ত আচার সম্পাদন করার আগে তার পিতার মূর্তিটিকে কোমল চুম্বন দিয়ে ভরিয়ে দিয়েছিলেন। ভিডিওটি ইতিমধ্যে ১৮,০০০ এরও বেশি ভিউ পেয়েছে। ভিডিওটি দেখার পর অনেক দর্শক কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন, আবার কিছু দর্শক বিয়ের পরে মূর্তিটির কী হবে তা নিয়ে চিন্তিত ছিলেন। একজন ব্যবহারকারী মন্তব্য করেছেন, "খুব খারাপ ধারণা। এখন মূর্তিটির কী হবে? এটা কি একটা রুমে তালাবন্ধ অবস্থায় থাকবে ? ২০ মিনিটের সুখ পেতে একটা মৃত মানুষকে নিয়ে টানামানির কি দরকার ছিল সেই প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে। তবে মেয়ে সেসবে কান দিতে নারাজ।  ‘বাবা’র সামনেই সারলেন বিয়ের সমস্ত আচার-রীতি। বোনের মুখে কৃতজ্ঞতার হাসি দেখে তৃপ্ত দাদাও।মেয়ের বিয়েটা দেখে যেতে পারেননি বাবা। কিন্তু এই মোমের মূর্তির মধ্যে দিয়েই যেন তিনি হাজির ছিলেন বিবাহ অনুষ্ঠানে।  

সূত্র : ডিএনএ ইন্ডিয়া

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status