ঢাকা, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, শুক্রবার, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৯ শাওয়াল ১৪৪৫ হিঃ

ভারত

আদানির পর আরেকটি বোমা ফাটাতে প্রস্তুত হিন্ডেনবার্গ, এবার কার পালা?

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা

(১ বছর আগে) ২৩ মার্চ ২০২৩, বৃহস্পতিবার, ৯:৫৪ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৫:৫৬ অপরাহ্ন

mzamin

মার্কিন রিসার্চ সংস্থা হিন্ডেনবার্গ আবার বোমা ফাটাতে প্রস্তুতি নিচ্ছে। তারা অচিরেই আরও একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করতে চলেছে। বৃহস্পতিবার সংস্থাটি টুইট বার্তায় এই কথা জানিয়েছে। টুইটারে হিন্ডেনবার্গ লিখেছে , “শীঘ্রই আরেকটি বড় রিপোর্ট আসছে ''। ২০১৭ সালে হিন্ডেনবার্গ রিসার্চ এলএলসি প্রতিষ্ঠা করেন নাথান অ্যান্ডারসন।ওয়েবসাইট অনুসারে আর্থিক গবেষণা নিয়ে কাটাছেড়া করে নিউইয়র্ক ভিত্তিক গবেষণা সংস্থাটি। গত ২৪ জানুয়ারি হিন্ডেনবার্গ রিসার্চের প্রথম প্রতিবেদন প্রকাশ্যে আসে। ভারতীয়  শিল্পপতি গৌতম আদানির সাম্রাজ্যকে নাড়িয়ে দিয়েছিলো সেই রিপোর্ট। প্রতিবেদনটি আদানি গ্রুপের বিনিয়োগকারী এবং শেয়ারহোল্ডারদের মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। আদানি গ্রুপ হিন্ডেনবার্গের অভিযোগ অস্বীকার করলেও, এটি আদানির তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলির মূল্যায়নের ব্যাপক ক্ষতি করেছে। সেই সাথে ভারতে জনপ্রিয়তা অর্জন করতে শুরু করে হিন্ডেনবার্গ।

বিজ্ঞাপন
ফার্মটি জানুয়ারিতে আদানি গ্রুপের পূর্ববর্তী প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল। প্রতিবেদনটির শিরোনাম ছিল: "আদানি গ্রুপ: হাউ দ্য ওয়ার্ল্ডস থার্ড রিচেস্ট ম্যান ইজ পুলিং দ্য লার্জেস্ট কন ইন কর্পোরেট হিস্ট্রি "। হিন্ডেনবার্গ আদানি গ্রুপের বিরুদ্ধে স্টক ম্যানিপুলেশন, ট্যাক্সের অনুপযুক্ত ব্যবহার এবং ৭টি বড় গ্রুপ কোম্পানিতে উচ্চ ঋণ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে। প্রতিবেদনটি প্রকাশের পর আদানিদের প্রায় ১৫০ বিলিয়ন ডলারের ক্ষতি হয়।, যার ফলে গৌতম আদানি বিশ্বের ধনী তালিকায় নিচের দিকে নেমে যান। এই রিপোর্টের প্রভাব এমন ছিল যে গ্রুপটিকে ফ্ল্যাগশিপ কোম্পানি আদানি এন্টারপ্রাইজের ২০,০০০ কোটি টাকার ফলো-অন পাবলিক অফার (এফপিও) বন্ধ করতে হয়েছিল। প্রতিবেদনটি একটি বড় রাজনৈতিক বিতর্কেরও সূত্রপাত করেছে, ভারতের বিরোধী দলগুলি সংসদে জেপিসি তদন্তের দাবি করেছে। আদানি-হিন্ডেনবার্গ দ্বন্দ্বের বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টে পিটিশনও দাখিল করা হয়েছিল, যার পরে বাজার নিয়ন্ত্রক সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ বোর্ডকে তদন্ত করে একটি প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছিল। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে একটি স্বাধীন কমিটিও গঠন করা হয়েছে। হিন্ডেনবার্গ অতীতেও বড় রিপোর্ট নিয়ে এসেছে, ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে বৈদ্যুতিক ট্রাক নির্মাতা নিকোলা কর্পের বিরুদ্ধে রিপোর্ট করার জন্য সবচেয়ে বেশি পরিচিত ছিল ফার্মটি। তার ওয়েবসাইটে, হিন্ডেনবার্গ রিসার্চ উল্লেখ করেছিলো যে আমেরিকায় সবচেয়ে বড় অটো (OEM) সংস্থার  সাথে অংশীদারিত্বের মধ্যে কীভাবে মিথ্যাচার করেছিলো নিকোলা। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে নিকোলা তার প্রযুক্তিগত উন্নয়ন সম্পর্কে বিনিয়োগকারীদের প্রতারিত করেছে। নিকোলার  তৈরী একটি ভিডিওকে চ্যালেঞ্জ করেছিলেন অ্যান্ডারসন, যেটিতে দেখা গেছে  নিকোলার বৈদ্যুতিক ট্রাকটি উচ্চ গতিতে ভ্রমণ করছে - আসলে, গাড়িটি একটি পাহাড়ের ওপর থেকে গড়িয়ে দেয়া হয়েছিলো। প্রতারণার জন্য নিকোলার প্রতিষ্ঠাতা ট্রেভর মিল্টন পদত্যাগ করেন। হিন্ডেনবার্গ রিসার্চের ওয়েবসাইট অনুসারে কমপক্ষে ১৭ টি কোম্পানিতে ঘটে যাওয়া সম্ভাব্য অন্যায়ের পর্দা ফাঁস করেছে তারা।

সূত্র : ইন্ডিয়া টুডে

ভারত থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

ভারত সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status