ঢাকা, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শুক্রবার, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১২ শাবান ১৪৪৫ হিঃ

শেষের পাতা

সিলেটে নতুন শুরু নাদেলের

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে
৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার
mzamin

সিলেটে নতুন আঙ্গিকে রাজনীতি শুরু করেছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। এতদিন সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগে ঠাঁই হচ্ছিল না তার। ৪ নেতা ঐক্যবদ্ধ থাকায় নাদেল নিজ এলাকায় হয়ে পড়েন অসহায়। নড়বড়ে অবস্থান নিয়ে চলতে হচ্ছিল তাকে। এই অবস্থায় সিটি মেয়র নির্বাচন করতে আসা যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী এখন তার ‘তুরুপের তাস’। আনোয়ারকে নিয়ে সিলেটে নতুন করে রাজনীতি শুরু করেছেন নাদেল। এ রাজনীতিতে ফ্রন্টলাইনে তিনি। গতকাল তো তিনি নিজেই জানিয়ে দিয়েছেন- ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তিনি আনোয়ারুজ্জামানকে নিয়ে সিলেটে কাজ শুরু করেছেন। সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নৌকার কাণ্ডারি হয়ে এই সিটিকে স্মার্ট সিটিতে রূপান্তরে আনোয়ারের সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করে যাবেন।’ নাদেলের অবস্থান স্পষ্ট হয়েছে গত ২২শে জানুয়ারি। ওইদিন যুক্তরাজ্য থেকে সিলেটে আসেন আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী।

বিজ্ঞাপন
মেয়র নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী হতে তার এই সিলেটে আসা। এদিন এয়ারপোর্টে সরব ছিলেন শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। বিশাল শোডাউনের আয়োজনেও ছিল নাদেলের অবস্থান। এরপর থেকে সিলেটের মাঠে উপস্থিত রয়েছেন  যুক্তরাজ্যের এই আওয়ামী লীগ নেতা। গতকাল থেকে প্রকাশ্যে কার্যক্রম শুরু করলেন আনোয়ার। নগরের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে তার পক্ষ থেকে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। আর এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। সঙ্গে ছিলেন জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের মাঝারি সারির কয়েকজন। তবে- যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগের মূল নেতৃত্ব সেখানে উপস্থিত ছিলেন। আনোয়ারকে নিয়ে সিলেটে নাদেলের কার্যক্রমে চোখ রাখছেন সবাই। গতিবিধিও পর্যবেক্ষণ করছেন সিলেটের মানুষ। কারন, শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল সিলেটের সামাজিকতার মূল স্রোতের সঙ্গে মিলেমিশেই রাজনীতি করছেন। এজন্য বিগত সিটি করপোরেশন নির্বাচনগুলোতে নাদেলের ভূমিকা ছিল উল্লেখযোগ্য। সামাজিক নেতারাও নাদেলের পরামর্শকে গুরুত্ব দেন। নাদেল শুধু দলীয় নয়, সিলেটের পেশাজীবী, নির্দলীয় সামাজিক, পেশাজীবী সংগঠনসহ নানা বিষয়ে মতামত দিয়ে থাকেন। এবার আনোয়ারুজ্জামানকে নিয়ে মাঠে নামার কারণে এখনো সিলেটের সামাজিক নেতৃবৃন্দের পর্যবেক্ষণে রয়েছেন নাদেল। এ ছাড়া- সিলেট আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে এখন দুই ধারা প্রবাহিত। একটি হচ্ছে- ঐক্যবদ্ধ সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ। যেখানে এক ফ্রেমে অবস্থান করছেন মহানগর সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, জেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন খান, মহানগর সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন। সঙ্গে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতারাও। অন্যদিকে হচ্ছেন- কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, সিলেট-৩ আসনের এমপি হাবিবুর রহমান ও যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। 

সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে সিলেটের রাজনীতিতে এই ফরম্যাট স্পষ্ট হয়ে উঠেছিল। এরপর থেকে ওই ফরম্যাটেই চলছে আওয়ামী লীগের রাজনীতি। পরবর্তীতে ছাত্রলীগ নিয়েও জেলা মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাদের মুখোমুখি দাঁড়িয়েছিলেন তারা ৩ জন। আর এই বিভক্তির কারণে এক বছর হয়ে গেল এখনো জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি পূর্ণাঙ্গ হয়নি। জেলা ও মহানগর যুবলীগের বেলায় এমনটি ঘটেই চলেছে। টানাপড়েন থাকার কারণে পদবির ভাগবাটোয়ারা নিয়ে দ্বন্দ্ব রয়েই গেছে। এদিকে, জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের শীর্ষ ৪ নেতাসহ সিনিয়র নেতাদের ঐক্যবদ্ধতায় এখনো ফাটল ধরানো সম্ভব হয়নি। সিলেট আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ নয়, এমন ‘ট্যাগমার্ক’ কেন্দ্রে ছিল সিলেটের নেতাদের। কিন্তু ৩ বছর আগে গঠিত জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতারা এই ধারণার পরিবর্তন ঘটিয়েছেন। তারা যতই ঐক্যবদ্ধ হয়ে উঠেছেন ততই কেন্দ্রে যাওয়া সিলেটের নেতারা এবং যুক্তরাজ্যের নেতাদের সিলেটের রাজনীতিতে অবস্থান নড়বড়ে হয়েছে। আর এই অবস্থান ফিরে পেতে নাদেল ৩ বছর ধরে রয়েছেন অপেক্ষায়। এবার এসেছে সেই সুযোগ। সিটি নির্বাচনে প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীকে কেন্দ্র করে তিনি সিলেটে নতুন করে রাজনৈতিক মিশন শুরু করেছেন। 

গতকাল সিলেটে এই প্রথম আনোয়ারুজামান কোনো অনুষ্ঠানের আয়োজন করলেন। আর সেখানে উপস্থিত হলেন নাদেল। তিনি আনোয়ারুজ্জামানের পক্ষে থাকার জন্য সবার সহযোগিতা চাইলেন। কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সম্ভাব্য মেয়র পদপ্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীও জানিয়ে দিলেন- আওয়ামী লীগ সরকার সিলেটের প্রতি আন্তরিক। সিলেটবাসীর জন্য সিলেট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের উন্নয়ন, সিলেট-ঢাকা মহাসড়ককে ৬ লেনে উন্নীতকরণসহ নানা উন্নয়ন করা হয়েছে। তিনি বলেন, আগামীতে আমি সিটি নির্বাচনে বিজয়ী হলে সিলেট সিটিকে স্মার্ট সিটিততে রূপান্তর করবো। সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের মতো তিনি সবসময় নগরবাসীর পাশে থাকবেন বলেও আশ্বস্ত করেন।

 

শেষের পাতা থেকে আরও পড়ুন

   

শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2023
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status