ঢাকা, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ১৭ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৮ রজব ১৪৪৪ হিঃ

অনলাইন

চীনে কোভিডের খবর করতে গিয়ে পুলিশের হাতে লাঞ্ছিত বিবিসির সাংবাদিক

মানবজমিন ডিজিটাল

(২ মাস আগে) ২৮ নভেম্বর ২০২২, সোমবার, ৬:২৬ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১:২৩ অপরাহ্ন

mzamin

সাংহাইতে একটি প্রতিবাদ কভার করার সময় তাদের একজন সাংবাদিককে লাঞ্ছিত করেছে  চীনা পুলিশ, শুধু তাই নয় তাকে কয়েকঘন্টা আটকেও রাখা হয় । বিবিসি এখবর জানিয়েছে। যদিও চীনা কর্তৃপক্ষ একথা মানতে রাজি নয় , তাদের পাল্টা দাবি তিনি নিজেকে একজন সাংবাদিক হিসাবে পরিচয় দেননি।রবিবার চীনের প্রধান শহরগুলিতে রাজ্যের বিরুদ্ধে জনগণের ক্ষোভের বিরল বহিঃপ্রকাশ হিসেবে  শত শত মানুষ রাস্তায় নেমেছে।সোশ্যাল মিডিয়ার ফুটেজে একজন ব্যক্তিকে দেখা গেছে যাকে পুলিশ ইউনিফর্ম পরা পুরুষদের দ্বারা গ্রেফতার করা হচ্ছে, বিবিসির অন্য সাংবাদিকরা ওই ব্যক্তিকে এড লরেন্স হিসেবে চিহ্নিত করেছেন। ব্রিটিশ সম্প্রচারকারীর একজন মুখপাত্র সোমবার এক বিবৃতিতে বলেছেন  যে ''আমরা  সাংবাদিক এড লরেন্সের সাথে এহেন আচরণের বিষয়ে অত্যন্ত উদ্বিগ্ন,যিনি সাংহাইতে বিক্ষোভ কভার করার সময় গ্রেপ্তার এবং আটক হন। গ্রেফতারের সময় পুলিশ তাকে মারধর ও লাথি মেরেছে। তিনি একজন স্বীকৃত সাংবাদিক হিসাবে কাজ করার সময় এটি ঘটেছিল।''

এদিকে বেইজিংয়ে বক্তৃতাকালে, চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান বলেছেন যে বিবিসির বিবৃতি আসলে কী ঘটেছে তা প্রতিফলিত করে না।  লরেন্স নিজেকে একজন রিপোর্টার হিসাবে পরিচয় দেয়নি বা তার প্রেস প্রমাণপত্র দেখায়নি।ঝাও আন্তর্জাতিক মিডিয়াকে  চীনে থাকাকালীন চীনা আইন ও বিধি অনুসরণ করতে বলেছেন। চীনে বিদেশী সাংবাদিকদের সংবাদ ইভেন্টগুলি কভার করার সময় তাদের স্বীকৃত সাংবাদিক হিসাবে পরিচয় দেওয়ার জন্য সরকার-প্রদত্ত কার্ড বহন করতে হবে বলে জানিয়েছেন ঝাও ।লরেন্স সোমবার তার অনুগামীদের ধন্যবাদ জানাতে টুইট করেছেন, তিনি লিখেছেন যে "পুলিশ আমাকে মারতে গেলে অন্তত একজন স্থানীয় নাগরিক তাদের বাধা দিতে এগিয়ে এসেছিলেন এবং তাঁকেও গ্রেফতার হতে হয় "।

চীনা মন্ত্রণালয়ের মন্তব্যের আগে বিবিসি তার বিবৃতিতে বলেছে, লরেন্সের আটকের বিষয়ে তাদের কোনো বিশ্বাসযোগ্য ব্যাখ্যা দেওয়া হয়নি। সোমবার ব্রিটিশ সরকারের একজন মন্ত্রী চীনা পুলিশের পদক্ষেপকে "অগ্রহণযোগ্য" এবং "উদ্বেগজনক" বলে নিন্দা করেছেন।বিজনেস সেক্রেটারি গ্রান্ট শ্যাপস এলবিসি রেডিওকে বলেছেন- ''আর যাই ঘটুক না কেন, সংবাদপত্রের স্বাধীনতা স্বতন্ত্র  হওয়া উচিত। ''বিক্ষোভের বিষয়ে চীন থেকে লাইভ রিপোর্ট করার সময় সুইজারল্যান্ডের জাতীয় সম্প্রচারকারী আরটিএস-এর একজন সংবাদদাতা পুলিশের কাছে গিয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন
মাইকেল পিউকার ভেবেছিলেন যে তিনি রিপোর্ট করার সময় তাকে ঘিরে থাকা তিনজন পুলিশ কর্মকর্তা তাকে আটক করতে চলেছেন। পরে নিজের পরিচয় দেবার পর পিউকার এবং তার ক্যামেরা পার্সনকে ছেড়ে দেন চীনা পুলিশ কর্মকর্তারা। চীনে অনেক বিক্ষোভকারী রাস্তায়  নেমে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন  দীর্ঘায়িত COVID-19 লকডাউনের জন্য ।শূন্য কোভিড নীতির প্রতি বেইজিংয়ের দৃঢ় প্রতিশ্রুতি এবং কঠোর লকডাউনের জেরে হতাশার কারণে মৃত্যুর ঘটনা সামনে আসছে। শনাক্ত হওয়ার তিন বছর পরেও কোভিড সেদেশের মানুষের জীবনকে বাধাগ্রস্ত করে চলেছে।

সূত্র : আলজাজিরা

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status