ঢাকা, ২৮ নভেম্বর ২০২২, সোমবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

বাংলারজমিন

পদ্মায় চাঁদা না দেয়ায় ট্রলারে আগুন

হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ) সংবাদদাতা
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, বৃহস্পতিবার

মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে দাবিকৃত চাঁদা না দেয়ায় পাটখড়ি বোঝাই একটি ট্রলারে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার বাহাদুরপুর বাজার এলাকায় পদ্মা নদীতে এ ঘটনা ঘটে। ট্রলারে থাকা এক শ্রমিক জাতীয় জরুরি পরিষেবা ৯৯৯ এ ফোন দিলে হরিরামপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ৩ ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।
ট্রলারে থাকা কয়েকজন শ্রমিক ও মাঝি জানান, গতকাল সকালে তারা রাজবাড়ী থেকে ৫টি ট্রলার বোঝাই করে পাটখড়ি নিয়ে নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুরের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে হরিরামপুর উপজেলার বাহাদুরপুর ঘাট এলাকায় পৌঁছালে বাহাদুরপুর বাজার থেকে ৩টা ট্রলারে করে ৯-১০ জন লোক একটি পাটবোঝাই ট্রলারের কাছে যায় এবং ৩ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। তারা ২২শ’ টাকা দেয়ায় রাগান্বিত হয়ে দুর্বৃত্তরা মাঝি আক্কাছকে মারধোর করে এবং পাটখড়িতে আগুন ধরিয়ে দিয়ে চলে যায়। পরে তারা দ্রুত ট্রলার পাড়ে ভিড়ায়। ট্রলারে থাকা এক শ্রমিক ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিলে হরিরামপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ৩ ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।
আগুন লাগা ট্রলারে থাকা শ্রমিক সাদ্দাম হোসেন বলেন, বাহাদুরপুর এলাকা থেকে ছোট ট্রলারে করে ৯-১০ জন লোক প্রতিনিয়ত চাঁদাবাজি করে। পদ্মায় চলাচলকৃত ট্রলার ও বলগেট থেকে তারা চাঁদা আদায় করে। দাবিকৃত চাঁদা না দিলে তারা মারধোর করে। আজ তারা মাঝি আক্কাছকে মারধোর করে এবং গ্যাসলাইট দিয়ে পাটখড়িতে আগুন ধরিয়ে দিয়ে চলে যায়।

বিজ্ঞাপন
অগ্নিকাণ্ডে তাদের ট্রলার পুড়ে ১০-১২ লাখ টাকা এবং ট্রলারে থাকা ১৫ লাখ টাকার পাটখড়ি পুড়ে গেছে।
অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটা ট্রলারের মাঝি আক্কাছ বলেন, ‘আমরা বাধ্য হয়ে তাদের চাঁদা দিয়ে থাকি। আজকে তাদের দাবিকৃত টাকা থেকে কম টাকা দেয়ায় তাকে মারধোর করে এবং গ্যাসলাইট দিয়ে পাটখড়িতে আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে।’
হরিরামপুর ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘সকালে পৌনে ১০টার দিকে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি পাটবোঝাই একটি ট্রলারে আগুন জ্বলছে। আমরা প্রায় ৩ ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছি।’
হরিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ মিজানুর ইসলাম বলেন, আমাদের কাছে অভিযোগ দেয়া হলে তদন্ত সাপেক্ষে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিবো। চাঁদাবাজির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বিষয়টি দেখার দায়িত্ব নৌ-পুলিশের।’
ফরিদপুর কোতোয়ালি নৌ-পুলিশের ইনচার্জ এস আই শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘চাঁদাবাজির বিষয়টা জানা নেই। কেউ আমাদের কাছে এ বিষয়ে কোনো অভিযোগও দেয়নি।’
 

বাংলারজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

বাংলারজমিন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status