ঢাকা, ১৯ আগস্ট ২০২২, শুক্রবার, ৪ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০ মহরম ১৪৪৪ হিঃ

অনলাইন

ইরানের মন্ত্রীর জন্য নয়াদিল্লির সময় ছিল কিন্তু বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর জন্য নয়, কেন ?

মানবজমিন ডিজিটাল

(১ মাস আগে) ২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৮:০৬ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৪:৫৪ অপরাহ্ন

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ানের প্রতি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যে সৌজন্য দেখিয়েছেন তার খানিকটাও যদি বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল কালাম আবদুল মোমেনের প্রতি দেখাতেন তাতে কি আকাশ ভেঙে পড়ত? ৮ থেকে ১০ জুন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ভারত সফরের সময়ে মোদি তাঁর সঙ্গে সাক্ষাতের সময় বের করেছিলেন। কিন্তু মোমেনের ১৮-২০ জুন নয়াদিল্লি সফরের সময়ে তাঁর জন্য প্রধানমন্ত্রীর সময় ছিল না। কোন দেশকে ভারত গুরুত্ব দেয় তা বিচার করার মাপকাঠি হয়ে দাঁড়িয়েছে মোদির সাথে সেই দেশের প্রতিনিধির সাক্ষাত এবং একটি ফটো সেশন। সেই মাপকাঠিতে, ভারতের পররাষ্ট্রনীতির অগ্রাধিকারে বাংলাদেশের স্থান কোথায়? মোমেন ভারত-বাংলাদেশ জয়েন্ট কনসালটেটিভ কমিশনের (জেসিসি) সপ্তম রাউন্ডে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের সাথে বৈঠকে বসেছিলেন।  আলোচনার পরে জয়শঙ্কর ঘোষণা করেছিলেন যে দুই দেশ কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, সাইবার নিরাপত্তার মতো নতুন ডোমেনে তাদের সম্পর্ককে এগিয়ে নিয়ে যেতে আগ্রহী। সেসব ঠিক আছে, কিন্তু মোদি সরকার কেন ভারত ও মোদির জন্য বাংলাদেশ যা করে চলেছে তা স্বীকার করছেন না ?  নয়াদিল্লি গোপনে বাংলাদেশকে কি বলে তা যথেষ্ট নয়, তবে তারা প্রকাশ্যে ঢাকাকে মুক্তকণ্ঠে কখনোই ধন্যবাদ জানায় না। 

আমির-আব্দুল্লাহিয়ানের সঙ্গে মোদির সাক্ষাতের সময় ঠিক করার পিছনে তিনজনের মাথা ছিল - মোদি স্বয়ং, জয়শঙ্কর এবং জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল। মোমেনকে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল ভারতের উপরাষ্ট্রপতি এম. ভেঙ্কাইয়া নাইডুর সঙ্গে বৈঠক করে ! সত্যি বলতে, এটা বৈষম্যমূলক এবং ভয়ঙ্কর। অন্য কিছুর জন্য না হলে, নূপুর শর্মা-নবীন জিন্দালের জঘন্য নবী-বিরোধী মন্তব্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানো থেকে বিরত থাকার জন্য বাংলাদেশ সরকারকে ব্যক্তিগতভাবে ধন্যবাদ জানাতে মোদির মোমেনের সাথে দেখা করা উচিত ছিল। ঢাকা সমগ্র বিশ্বের একটি প্রধান ইসলামি দেশের একমাত্র রাজধানী যা রক্ষণশীল দেশটিকে বিদ্রোহের মধ্যেও নীরব থেকে নয়াদিল্লিকে লজ্জা থেকে রক্ষা করেছে। শেখ হাসিনা সরকার সহানুভূতিশীল এবং অত্যন্ত সংবেদনশীলতার সাথে কাজ করেছিল যখন ভারত কোণঠাসা ছিল। 

বাংলাদেশ বাদে, অন্যান্য সমস্ত মুসলিম দেশ ভারতের  দূতদের ডেকে পাঠাচ্ছিল, প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার দাবি করছিল।

বিজ্ঞাপন
একমাত্র ব্যতিক্রম ছিল ঢাকা। এমনকি আমির-আব্দুল্লাহিয়ানের ইরান সেদেশে ভারতীয় রাষ্ট্রদূত গদ্দাম ধর্মেন্দ্রকে তলব করেছিল, নবীর অবমাননাকে অগ্রহণযোগ্য বলে গলা চড়িয়েছিল। তারপরও ভারত  আমির-আব্দুল্লাহিয়ানের জন্য লাল গালিচা বিছিয়ে দিয়েছে কিন্তু মোমেনের জন্য নয়। বাংলাদেশের অপরাধ কি ? ভারত কি তার প্রতিবেশীকে খুব হালকাভাবে নিচ্ছে ? কারণ এটির কোনো তেলক্ষেত্র নেই, পারমাণবিক উচ্চাকাঙ্ক্ষা নেই, পশ্চিমের মতো বিশ্ব শক্তির সাথে পারমাণবিক আলোচনায় জড়িত নয়, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের সাথে সীমান্ত ভাগ করে না তাই কি এতো অবহেলা? সমস্যা হল ভারতের কথা ও কাজের মধ্যে বড় ব্যবধান।

ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্কের বর্তমান সোনালী অধ্যায় বা সুবর্ণ সময় নিয়ে কথা বলতে আমরা কখনই ক্লান্ত হই না। তবু মোমেনের জন্য প্রধানমন্ত্রী মোদির সময় নেই। সমস্যাটি আসলে আরও গভীর। ভারত এখনও প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে প্রধান অতিথি হিসেবে হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানাতে পারেনি, যিনি বছরের পর বছর ধরে ভারতের জন্য অনেক কিছু করেছেন। হাসিনা শীঘ্রই নয়াদিল্লিতে তার পূর্ণ সফর শুরু করবেন, যদিও তারিখ ঘোষণা করা হয়নি। তিনি হয়তো আগামী মাসের প্রথম দিকে আসবেন। দেখা যাক, নেপালের প্রধানমন্ত্রী শের বাহাদুর দেউবা যেভাবে অসামান্য উষ্ণ অভ্যর্থনা পেয়েছিলেন, শেখ হাসিনা তা পান কিনা।  

সূত্র : nationalheraldindia.com
কলমে : এস.এন.এম. আবদি , আউটলুকের প্রাক্তন উপ-সম্পাদক এবং সাংবাদিকদের উপর পেগাসাস স্পাইওয়্যার আক্রমণের অন্যতম লক্ষ্যবস্তু ছিলেন 
অনুবাদে : সেবন্তী ভট্টাচার্য্য

পাঠকের মতামত

আমাদের মানে বাংলাদেশের অবৈধ, ভোট চোর সরকার যতই ভারতের চামচামি করুক না কেন, তারা বাংলাদেশ কে গণনার মধ্যেই ধরে না। তা না হলে, বাংলাদেশের সাথে তারা যে বৈষম্যমূলক আচরণ করে আর বাংলাদেশ তাদেরকে দিয়েই চলেছে, এবং কোন ইস্যুতেই ভারতের প্রতিবাদ করে না, তা সত্ত্বেও তারা আমাদেরকে পাত্তা দেয় না কেন? দাদা-বাবুরা তাদের হিসাব নিয়েই চলে এবং চলবে। আমাদের তরফ থেকে যতই দালালি করা হউক না কেন, তারা এগুলা গোনে না, গোনার সময় নাই। কোন রাষ্ট্র যদি তার আত্মমর্যাদা রক্ষা করতে না পারে সেটা সে রাষ্ট্র পরাধীন বলেই মনে করতে হবে। দুই রাষ্ট্রের মধ্যে পারস্পরিক মূল্যায়ন থাকতে হয়। এমন নয় যে এক রাষ্ট্র আরেক রাষ্ট্রকে নমস্কার করে চলবে। তাহলে সেটা স্বাধীন কিভাবে।

salim khan
২ জুলাই ২০২২, শনিবার, ১০:৫৮ অপরাহ্ন

I was reading all the comments and everything is said there, all the public reaction are correctly addressed the trueth. So, nothing more to say just fellows are deserved appreciation for their comments.

Sharif
১ জুলাই ২০২২, শুক্রবার, ৬:০৪ অপরাহ্ন

একজন প্রধানমন্ত্রীকে উপমন্ত্রী দ্বারা অভ্যর্থনা জানানো একটা দেশের জন্য কত অপমানজনক তা বাংলাদেশের জনগণ বুঝতে পারলেও আওয়ামীলীগের বোধদয় হয়নি। কারণ তাদের চাই ক্ষমতা। দেশ ও জাতির সম্মান রক্ষার জন্য জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার চাই। যে ভাবেই নির্বাচিত হোক না কেন আপনি একটা দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আপনার অপমান বাংলাদেশের ষোল কোটি মানুষের অপমান। আশা করব আপনাদের হুঁশ ফিরে আসবে।

ZAKER HOSSAIN
১ জুলাই ২০২২, শুক্রবার, ১০:২৬ পূর্বাহ্ন

Yes. it is the effect of Blood relationship.

xyz
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১১:০০ পূর্বাহ্ন

টিস্যু পেপার! এ জাতির আত্ম সম্মান নাই! থাকলে এগুলোরে বুড়িগঙ্গায় চুবাইয়া রাখতো

মহিন
৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১২:৫৮ পূর্বাহ্ন

মূল্যায়ন পাওয়ার যোগ্যতা থাকা দরকার। মোদীর কাছে স্বীকৃতিহীন আফগান সরকারের যে মূল্য আছে বাংলাদেশ সরকারের সে মূল্য নেই। কারণ বর্তমান আফগানরা মূল্য আদায় করতে জানে।

Saiful Haque
২৯ জুন ২০২২, বুধবার, ১০:১৮ অপরাহ্ন

আমরা বিশ্বের পরাশক্তিকে যা তা বলে গালমন্দ করি সংসদে স্যাংশন দেয়ার দাবি তুলি কিন্তু ভারতের সম্পর্কে কেন টু শব্দটি করি না বলতে পারেন ?

shahidul islam
২৯ জুন ২০২২, বুধবার, ৯:৪৯ অপরাহ্ন

ঘারকা মুরগি ডাল বরাবর।

মুহাম্মদ আবদুল্লাহ্
২৯ জুন ২০২২, বুধবার, ১২:৪৭ অপরাহ্ন

জনগণের সমর্থন ছাড়া ক্ষমতা থাকলে যা হয় !! আপনি যদি কারো থেকে জীবন ভিক্ষা নেন তাহলে আপনার বাকি জীবন তার জন্য উৎসর্গ করা উচিৎ। আওয়ামীলীগ তাই করছে ভারতের আশ্রয় পস্রয় ক্ষমতায় টিকে থাকলে এর ছাইতে আর বেশী ইজ্জত আসা করে কেম্নে লেন্দুপ দর্জি রা ??????????

Imran
২৯ জুন ২০২২, বুধবার, ১২:৫৩ পূর্বাহ্ন

একজন মুনিব আর একজন ভৃত্য। পার্থক্য ইহাই।

Mahmud
২৯ জুন ২০২২, বুধবার, ১২:০৫ পূর্বাহ্ন

ভারত এই দেশের সরকারকে সবসময় গোলামের নজরে দেখে, এটা নতুন নয় আর এ দেশেরে রাজনীতিবীদের কারনে ক্ষমতায় কে বসবে এটা ভারত নির্ধারন করে সুতারাং ভারতের থেকে এর ভাল আচরন আশা করা মূ্র্খতা । সর্বশ্রেষ্ঠ রাসুল ও নবীকে নীয়ে কটুক্তি কারীদের বিরুদ্বে কথা বলতে যাদের পা কাপে তাদের আর কি যোগ্যতা সম্মান পাওয়ার

abu abdullah
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ১১:৪২ অপরাহ্ন

Both Bangladesh and Momen deserve this treatment.

nasir uddin
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ১১:২৪ অপরাহ্ন

জুতা সবসময় পায়ে থাকে, টুপি সবসময় মাথায় থাকে। আপনি দেশ ও জাতি কে নেতৃত দিতে গিয়ে মর্যদাহীন করে রাখলে যা হয়, নিজের অবস্থা ও জুতার মত আর কি

মো: সাইফুল ইসলাম
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:২৯ অপরাহ্ন

আমরা বিশ্বের পরাশক্তিকে যা তা বলে গালমন্দ করি সংসদে স্যাংশন দেয়ার দাবি তুলি কিন্তু ভারতের সম্পর্কে কেন টু শব্দটি করি না বলতে পারেন ?

সোনা মিয়া
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:০২ অপরাহ্ন

বাংলাদেশের রাজনীতি এখন ভারতের মুঠোয় বন্দী তাই তো এত অবহেলা এত অসম্মান

সোনা মিয়া
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৭:৫৮ অপরাহ্ন

Our foreign minister always talk like a tail of India,when he talk like no patriotism no personality dignity , that's the reason india taking from us more advantage ,they don't respect our official that's what happening to our foreign minister,what a shame !

Nannu chowhan
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৬:২৫ অপরাহ্ন

‘স্ত্রী’ বলে কথা। তাই নয় কি?

গোলাম রব্বানী
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৫:৪৬ অপরাহ্ন

Modi & India knows that Current BD govt . is in their Pocket , So there is no reason to show any respect to a sub-servant foreign Minister .

Nam Nai
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৪:০১ অপরাহ্ন

Big and small can't deserve reciprocal honor.

Mohhammad
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৩:৪৬ অপরাহ্ন

Apart from some pretty good observations in the comment section I would say this FM of Bangladesh is a spineless person. He is a big mouth. Any country that want respect from others shouldn’t select this kind of guy as it's FM.

mTor
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৩:৩৮ অপরাহ্ন

ইরানের পররাষ্ট্র নীতি নতজানু নয়। তাই গুরুত্ব দিতে বাধ্য।

Siddiqui apu
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ২:২৮ অপরাহ্ন

Bangladesh is not wife anymore, rather India treat us like a hooker. They want to use us whenever they like in their own terms.

Mustafizur Rahman
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ১১:৫৮ পূর্বাহ্ন

সিকিম যখন স্বাধীন ছিলো তখন লেন্দুপ দর্জীরও ভারতের কাছে অনেক কদর ছিলো। কিন্তু সিকিম যখন ভারতের প্রদেশ হয়ে যায়- তারপর লেন্দুপ দর্জিও আর পাত্তা পেত না।

Taufiqul Pius
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ১১:২৭ পূর্বাহ্ন

সবার কমেন্টস গুলোই নির্মম ও বাস্তব সত্য!! ভারত বাংলাদেশকে ভ্যালু দিলেই কি আর না দিলেই কি। বাংলাদেশ তো ভারতকে ভ্যালু না দিলে তাদের চলবেনা এবং এই নীতিতেই ভারতের চিন্তাধারা বাংলাদেশের জন্য।

Rubel Chowdhury
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ১১:০২ পূর্বাহ্ন

শেখ হাসিনার সর্বশেষ ভারত সফরের সময় মোদী ওনাকে নিরামিষ পদ দিয়ে ডিনার করিয়ে ছিলেন। ৩/৪ দিন পর চিনের রাষ্ট্রপতি ভারত সফরে গেলে, তাকে খাশির রেজালা সহ নানান সুস্বাদু পদ দিয়ে আপ্যায়ন করা হয়েছিল। সে সময়ের দৈনিক আননদ বাজার পত্রিকা দেখলেই সত্যতা পাওয়া যাবে।

আজিজ
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ১০:৪০ পূর্বাহ্ন

This government staying power with support of India .When Bangladesh will fully democratic country than can raise the voice.

Zakaria siddique
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ১০:৩২ পূর্বাহ্ন

মোদির আর্শিবাদে ক্ষমতাই আছি, এতেই খুশি। সম্মানের দরকার কি?

ওহীদুল আলম
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ১০:০৭ পূর্বাহ্ন

স্বামীর-স্ত্রীর সম্পর্ক না?

Raju
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:৫৭ পূর্বাহ্ন

night election & eorkom uncreditable govt er montri , paik peadader ei obosta i hoi. india knows the status of this govt. so they will do definitely these things . it;s not surprise it is inevitable. trust these are things they will understand.

xyz
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:৪০ পূর্বাহ্ন

মেরুদণ্ড হীন রাস্ট্রের ব্যক্তিত্ব হীন মন্ত্রী বলে এই দশা!

AR Khan
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:৩০ পূর্বাহ্ন

well said? but there is a gap. The Bangladesh government is backed by Modi in this tough time. if Modi withdraws his support, nobody knows what will happen. So definitely they will not give respect to the Bangladesh government. We are salve or wife, not husband.

Khaled
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:১৬ পূর্বাহ্ন

ManabZamin is not publishing my comments.

Nam Nai
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:১৪ পূর্বাহ্ন

পদ্মাসেতুর জ্বালা। চীনকে সাথে নিয়ে পদ্মাসেতু নির্মাণ হয়তো মেনে নিতে পারছে না।

তৌহিদ
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:০৯ পূর্বাহ্ন

ভারত মনে করেছ বাংলাদেশের সরকার মেরুদণ্ডহীন। সে তার নিজ স্বার্থেই ভারতকে ত্যাগ করার ক্ষমতা রাখেনা। ভারতের সব কাজকেই সমর্থন করে। বসতে বললে বসে, দাঁড়াতে বললে দাঁড়িয়ে থাকে। একগালে থাপ্পড় মারলে আরেক গাল এগিয়ে দেয়। তার সাথে বৈঠকে বসে সময় নষ্ট করার দরকার কী? যা বলার ফোনে বলে দিলেও খুশিতে তোলপাড় করে বলবে মোদীজী ফোন করেছিল।

এ,টি,এম,তোহা
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:০৮ পূর্বাহ্ন

ব্যবসা বাড়াবার জন্য নতুন নতুন জায়গা খুঁজার জন্য প্রধানমন্ত্রী অনেক বার বলেছেন। বাংলাদেশের নাগরিক হিসাবে প্রধানমন্ত্রী কে না বলে পারছি না, পররাষ্ট্র মন্ত্রলায়ের উচিত নতুন নতুন বন্ধু দেশ খুঁজে বের করা, চীন এবং মুসলিম দেশের উপর নির্ভরশীলতা বাড়ানো এবং ইন্ডিয়ার উপর সন্পূন্ন নির্ভরশীলতা কমানো।

wow
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:০৬ পূর্বাহ্ন

India think Bangladesh is one of state for India.... So you can understand the value of our ministers..

Mahmudur Rahman
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:০৫ পূর্বাহ্ন

পররাষ্ট্র মন্ত্রীকে অনেক বার অপমান করেছে ভারত। উনি বুঝেও না বুঝার ভান করেন। সম্ভবত উপর থেকে আদেশ আছে গায়ে না মাখার। ভারত যা পাবার আশা করেছিল তার থেকে অনেক বেশি পেয়েছে।এখন চোখের ইশারায় বাংলাদেশ উঠবস করবে।

Mahboob
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:০৫ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশ সিকিম ভুটান কে যে গুরুত্ব দেয় ভারত বাংলাদেশ কে সেরুপই বা তার কিছু কম গুরুত্ব দেয়। উত্তর এর ভিতরেই আছে।

A. R. Sarker
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:০৪ পূর্বাহ্ন

আপনারা অনেকে ভারতের এমন আচরণে অবাক হলেও আমার কাছে এটা খুব অস্বাভাবিক লাগেনি। মোমেন সাহেবকে কখনো কখনো শুধু বাংলাদেশের মন্ত্রী মনে হয়নি বরং -------! না হলে ভারত মুখ ফুটে যা বলেনি সেটা উনি ভারতের হয়ে আগ বাড়িয়ে বাংলাদেশের সরকার ও জনগণকে খুশি করার জন্য বলেন কেনো!

মুনির আহমেদ
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৮:৫৪ পূর্বাহ্ন

চাকরকে নিয়ে এক টেবিলে মনিব খেতে বসে না।

Ali
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৮:৫০ পূর্বাহ্ন

Need to have boldness in foreign policy. Should appreciate good deeds and protest if there is any violation of humanity. But we fail in our policy!!

Dr Md Shahidul Islam
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৮:৩৫ পূর্বাহ্ন

Very good article about how a master treat his slave.

Yusuf Akond
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৮:২৯ পূর্বাহ্ন

যাদের জ্বলার কথা তাদের না জ্বলে সাংবাদিকের এত জ্বলছে কেন বুঝলাম না

টুটুল
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৮:০৭ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশকে গুরুত্ব না দিলে ভারতের কিছুই আসে যায়না। ভারত ভালো করেই জানে যে, বাংলাদেশ ভারতের হাজারো অসহযোগিতা স্বত্তেও কোনদিন ভারতের বিরুদ্ধে অবস্থান নিবেনা। এমনকি প্রতিবাদও করবেনা।

আবদুল জব্বার
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৮:০০ পূর্বাহ্ন

আওয়ামী লীগ সরকার ভারতকে সবকিছু উজাড় করে দিয়েছে।‌‌নিজের দেশের স্বার্থকে জলাঞ্জলি দিয়ে শুধু ভারত তোষনে ব্যস্ত থেকেছে । আমরা আমাদের আত্নসম্মানবোধকে বিসর্জন দিয়ে নতজানু হবার কারনেই মোমেন সাহেবরা মোদীর কাছ থেকে কোন সৌজন্য‌ পান না ।

Mahmud
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৭:৫১ পূর্বাহ্ন

Bangladesh FM according to his own account was made stateless by GOB at one point of time and since then he was given shelter, job, security and passport by the US. So New Delhi decided to abandon the once abandoned Momen. Who cares about the pan handlers of San Francisco?

Shobuj Chowdhury
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৭:৪৩ পূর্বাহ্ন

Chatukar er Jonno Morass THAKE na, THAKE shudu Koruna

Sayeem
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৭:৪২ পূর্বাহ্ন

এটা ব্যাপার না

Jashim
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ৭:৩৮ পূর্বাহ্ন

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status