ঢাকা, ২৪ জুন ২০২৪, সোমবার, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

খেলা

রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে ৬ রানের জয় বাংলাদেশের

স্পোর্টস ডেস্ক

(৯ মাস আগে) ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩, শুক্রবার, ৩:০৯ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৯:১৫ পূর্বাহ্ন

mzamin

গিলের বিদায়ের পর শারদুল ঠাকুরকে সঙ্গে নিয়ে ২৮ বলে ৪০ রানের জুটি গড়েন অক্ষর প্যাটেল। শেষ দুই ওভারে ভারতের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিলো ১৭ রানের। ম্যাচের ৪৯তম ওভারে শারদুলকে মিরাজের ক্যাচে পরিণত করেন মোস্তাফিজ। ওভারের তৃতীয় বলে মোস্তাফিজকে চার মারেন অক্ষর।  চতুর্থ বলে ৪২ করা অক্ষরকে জুনিয়র তামিমের ক্যাচে পরিণত করেন বাংলাদেশের এই পেসার। রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে শেষ ওভারে ভারতের প্রয়োজন পরে ১২ রানের। তানজিম সাকিবের করা শেষ ওভারের চতুর্থ বলে শামি রান আউট হলে ৬ রানের জয় পায় বাংলাদেশ।

গিলের ব্যাটে স্বপ্ন দেখছিল ভারত। দেখাটা স্বাভাবিক। সেঞ্চুরির পর ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছিলেন এই ব্যাটসম্যান। অবশেষে তাকে থামানো গেল।

বিজ্ঞাপন
শেখ মাহেদির বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে লং অফে তাওহীদ হৃদয়ের হাতে ধরা পড়েন তিনি। ৮টি চার ও ৫ ছক্কায় ১৩৩ বলে ১২১ রান করে যান তিনি।

 গিলের সেঞ্চুরি:

ঠাণ্ডা মাথায় খেলে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন শুভমান গিল। ১১৭ বলে ৬টি চার ও ৪ ছক্কায় সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন তিনি। এটা তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের পঞ্চম সেঞ্চুরি।

 মোস্তাফিজের শিকার জাদেজা:

অবশেষে উইকেটের দেখা পেলেন মোস্তাফিজুর রহমান। তার করা বলে রবীন্দ্র জাদেজার মিডেল স্ট্যাম্প উড়ে যায়। জাদেজা ১২ বলে ৭ রান করেন।

 সাকিব ফেরালেন সূর্যকুমারকে:

সূর্যকুমারকে ফিরিয়ে শক্তিশালী হয়ে ওঠার জুটি ভাঙলেন সাকিব। দলীয় ১৩৯ রানের মাথায় তার বলে বোল্ড হয়ে যান সূর্যকুমার যাদব। ৩৪ বলে ৩ চারে ২৬ রান করে যান তিনি।

এর আগে ২৬৬ রান ডিফেন্ড করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু পেয়েছে বাংলাদেশ। অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা তানজিম হাসান সাকিব শুরতেই রোহিত শর্মা ও তিলক ভর্মাকে ফিরিয়ে দিয়েছেন। 

শুরুর ধাক্কা সামলে তৃতীয় উইকেটে কেএল রাহুল ও সুভমান গিল ৫৭ রানের জুটি গড়েন। ৭৪ রানে রাহুলকে ক্যাচে পরিনত করে বাংলাদেশকে তৃতীয় সফলতা এনেদেন শেখ মেহেদি। এরপর ঈশান কৃষাণকে ফেরত পাঠিয়ে বাংলাদেশকে ম্যাচে রাখেন মেহেদি হাসান মিরাজ। এদের জোড়া আঘাতে ৯৪ রানে চার উইকেট হারায় ভারত।

নাসুম-মাহাদী-সাকিবদের শেষের ক্যামিওতে বাংলাদেশের পুঁজি ২৬৫ রান 

৫৯ রানে ৪ উইকেট হারানোর পর ১০১ রানের জুটি গড়েন সাকিব আল হাসান ও তাউহিদ হৃদয়। তবে দুজনেই কাছাকাছি সময়ে ফিরলে আবার চাপে পড়ে বাংলাদেশ। এরপর শেষদিকে নাসুম আহমেদের ৪৪, মাহাদীর ২৯ আর অভিষিক্ত পেসার সাকিবের ১৪ রানের উপর ভর করে ২৬৫ রানের পুঁজি পেয়েছে বাংলাদেশ। 

টানা দ্বিতীয় ম্যাচে ফিফটি হৃদয়ের 

জাদেজাকে ২০০তম উইকেট উপহার দিয়ে ফিরলেন শামিম 

বিরতি থেকে ফিরেই আউট সাকিব 

দুর্দান্ত ছন্দে থাকা সাকিব সেঞ্চুরির দিকেই এগোচ্ছিলেন। কিন্ত পানি পানের বিরতি শেষেই ৮০ রানে থামতে হলো তাকে। ভারতীয় পেসার শারদুল ঠাকুরের করা অফ স্টাম্পের বাইরে বল উইকেটে টেনে এনে বোল্ড হন সাকিব। এর আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৮৫ বলে ৬ চার ও ৩ ছক্কায় ৮০ রানের ইনিংস।  

সাকিব-হৃদয়ের ১০০ রানের জুটি 

সাকিবের ৫৫তম ওয়ানডে ফিফটি, বাংলাদেশের দলীয় সংগ্রহ ১০০ পার হলো 

৫৯ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়েছিল বাংলাদেশ। এরপর তাউহিদ হৃদয়কে নিয়ে হাল ধরেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। দুজনে মিলে ইতিমধ্যে গড়েছেন ৬৫ রানের জুটি। সাকিব তুলে নিয়েছেন ৫৫তম ওয়ানডে ফিফটি। অন্যপ্রান্তে হৃদয়ও বেশ সতর্ক ব্যাটিং করছেন। 

এবার ফিরতেই হলো মিরাজকে, বিপদে বাংলাদেশ 

২ বার জীবন পেলেও ইনিংস বড় করতে পারলেন না মেহেদী হাসান মিরাজ। ভারতীয় স্পিনার অক্ষর প্যাটেলের বলে স্লিপে রোহিত শর্মার ক্যাচ হয়ে ফেরেন তিনি। 

এক ওভারে দুইবার জীবন পেলেন মিরাজ 

শার্দুল ঠাকুরের এক ওভারেই দুইবার জীবন পেলেন মিরাজ। প্রথমে শর্ট মিড উইকেটে ক্যাচ ছাড়েন অভিষিক্ত তিলক ভর্মা। এরপর স্লিপে আবার ক্যাচ ফেলেন সূর্য কুমার যাদব। 

বিজয়ও উইকেট ছুড়ে দিলেন, শুরুতেই বিপাকে বাংলাদেশ 

পুরো আসর ডাগআউটে বসে থাকার পর শেষ ম্যাচে সুযোগ পেয়েছিলেন এনামুল হক বিজয়। কিন্তু সেই সুযোগও কাজে লাগাতে ব্যর্থ তিনি। ১১  বলে মাত্র ৪ রান করে ফেরেন তিনি। যেখানে ১০ বলে কোনো রান নিতে পারেননি এই ডানিহাতি ব্যাটার। 

এবার ফিরলেন জুনিয়র তামিম 

অভিষেকে শূন্য রানে আউট হওয়ার পর শেষ ম্যাচে একাদশে ফিরেছিলেন তানজিদ হাসান তামিম। ফেরার ম্যাচে বেশ ভালো শুরু করেছিলেন। কিন্তু ইনিংস বড় করতে পারলেন না। ভারতীয় পেসার শার্দুল ঠাকুরের বল ইনসাইড এজ হয়ে বোল্ড হন তামিম। ফেরার আগে ১২ বলে ৩ চারে ১৩ রান তিনি। ২ উইকেট হারিয়ে ৩.২ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ১৫ রান। 

খালি হাতে ফিরলেন লিটন 

চলমান এশিয়া কাপের শুরু থেকে ছিলেন না জ্বরের কারণে। তবে সুস্থ হয়ে সুপার ফোরে দলের সঙ্গে যোগ দিলেও ৩ ম্যাচে কিছুই করতে পারলেন না লিটন কুমার দাস। সর্বশেষ আজ ভারতের বিপক্ষে শূন্য রানে ফিরলেন তিনি। ভারতীয় পেসার মোহাম্মদ শামীর বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন তিনি। 

টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ, অভিষেক জুনিয়র সাকিবের 

এশিয়া কাপে সুপার ফোরের শেষ ম্যাচে ভারতের মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ। এ ম্যাচে হেরে আগে ব্যাটিং করবে সাকিব আল হাসানের দল। চলতি এশিয়া কাপে আজই প্রথম টস হারলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব। ফাইনালের স্বপ্ন আগেই শেষ হয়েছে বাংলাদেশের। তবে ভারতকে হারিয়ে শেষ ম্যাচে জয় নিয়ে দেশে ফেরার সুযোগ রয়েছে টাইগারদের। এ ম্যাচে অভিষেক হচ্ছে তরুণ পেসার তানজিদ হাসান সাকিবের। 

সবমিলিয়ে একাদশে মোট চার পরিবর্তন এনেছে বাংলাদেশ। চলতি এশিয়া কাপে প্রথম ম্যাচে অভিষেক হওয়া তানজিম হাসান তামিম আজ ফিরেছেন একাদশে। এছাড়া প্রথম ম্যাচের পর একাদশ থেকে বাদ পড়া বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজুর রহমানও আজ খেলছেন। পুরো আসরে ডাগআউটে বসে থাকা এনামুল হক বিজয়ের আজ সুযোগ মিলেছে একাদশে। 

বাংলাদেশের মতো ভারতের জন্যও এটা নিয়ম রক্ষার ম্যাচ। আগেই ফাইনাল নিশ্চিত করা ভারত এদিন একাদশে পাঁচ পরিবর্তন এনেছে। বিরাট কোহলি, হার্দিক পান্ডিয়া, মোহাম্মদ সিরাজ, জাসপ্রিত বুমরাহ ও কুলদ্বীপ যাদবকে আজ বিশ্রাম দিয়েছে রোহিত শর্মার দল।  

এখন পর্যন্ত ৩৯ মুখোমুখি হয়েছে দুই দল। যেখানে বাংলাদেশ জিতেছে ৭ ম‌্যাচে আর ভারত ৩১টিতে। ফল হয়নি ১ ম‌্যাচে। দুই দলের সর্বশেষ দ্বিপাক্ষিক সিরিজে ২-১ ব্যবধানে জয়ের সুখস্মৃতি রয়েছে বাংলাদেশের। 

বাংলাদেশ একাদশ- সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), লিটন দাস, তানজিদ হাসান, তাওহিদ হৃদয়, এনামুল হক, শামীম হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, মেহেদী হাসান, মোস্তাফিজুর রহমান, নাসুম আহমেদ ও তানজিম হাসান।

ভারত একাদশ- রোহিত শর্মা (অধিনায়ক), শুবমান গিল, সূর্যকুমার যাদব, তিলক ভার্মা, লোকেশ রাহুল, ইশান কিষান, রবীন্দ্র জাদেজা, অক্ষর প্যাটেল, শার্দুল ঠাকুর, মোহাম্মদ শামি ও প্রসিদ্ধ কৃঞ্চা।

খেলা থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

খেলা সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status