ঢাকা, ৭ ডিসেম্বর ২০২২, বুধবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

ভারত

রানটাক ও জিনটাক ট্যাবলেট নিষিদ্ধ হলো ভারতে

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা

(২ মাস আগে) ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ১১:১০ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৪:২৮ অপরাহ্ন

mzamin

সামান্য বদ হজম অথবা চোয়া ঢেঁকুর উঠলেই যাঁরা রানটাক কিংবা জিনটাক ট্যাবলেট খেতেন মুঠো মুঠো তাঁদের সেই দিন শেষ। ভারতীয় ড্রাগ কন্ট্রোলার আরও বেশ কিছু ওষুধের সঙ্গে রানটাক ও জিনটাক কেও নিষেধাজ্ঞার তালিকায় ফেলেছেন। সাফ জানিয়ে দেয়া হয়েছে রানটাক ও জিনটাক ক্যান্সারের বিষ বহন করতে পারে। তাই এই ওষুধ নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। আরও বেশ কিছু নিষিদ্ধ ওষুধের তালিকা প্রস্তুত করেছে ভারতীয় ড্রাগ কন্ট্রোল অফিস। উল্লেখযোগ্য, ভারতে রানটাক ও জিনটাক ও টি সি ড্রাগ অর্থাৎ ওভার দা কাউন্টার ড্রাগ হিসেবে বিক্রি হয়। এই ওষুধ কিনতে গেলে চিকিৎসকের কোনও প্রেসক্রিপশন দরকার পড়ে না। এখন থেকে রানটাক ও জিনটাক যত্রতত্র মিলবে না। রানটাক ও জিনটাকের মত এর আগেই এন্টারকুইনল ট্যাবলেট নিষিদ্ধ হয়ে গেছে ভারতে। পেটের পীড়ার জন্যে মানুষের এই ট্যাবলেট খাওয়ার প্রবণতা ছিল খুব বেশি।

বিজ্ঞাপন
ইদানিং, মেট্রোজিল, মেক্সাফর্ম, কিংবা নর ফ্লক্স ট্যাবলেট খাওয়ার প্রবণতা বেড়েছে। এই বিষয়টিও ড্রাগ কন্ট্রোলার এর বিবেচনাধীন।      

 

পাঠকের মতামত

Well said Kazi bahi. Many thanks...

Dr. Mamun
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ১:১৯ পূর্বাহ্ন

তাতে কী বাংলাদেশে পাঠাবে। যেমন ফেন্সিডিল।

Md. Hafeez
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ১:১১ পূর্বাহ্ন

যত সম্ভব ক্যামিকেল ঔষধ ব্যবহার পরিহার করাই শ্রেয় । উন্নত দেশে মানুষ পরিহার করেছে ওভার কাউন্টার ক্যামিকেল ড্রাগ। তার পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া ভয়ানক । বাংলাদেশ, ভারতে এর ব্যবহার বেশি ।মানুষের হাতে এখন মোটামুটি ঔষধ কিনার টাকা আছে তাই । আমার ছোট বেলায় দেখেছি বাবা মা দাদা দাদী বনাজি ঔষধ খেয়ে ভাল হতে । তখন একদিকে টাকা অন্য দিকে গ্রামাঞ্চলে ফার্মেসির ছড়াছড়ি ছিল না । তাই তারা দুরারোগ্য ক্যান্সার বা অন্য রোগে আক্রান্ত হন নি । নতুন প্রজন্মকে আমার পরামর্শ বনাজি ঔষধ খান । আমার বয়স ৭৩। থাকি কানাডায় । কিন্তু বনাজি ঔষধ খাই একমাত্র ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন বাদে । করলা পাতার রস, মেথি, নিম পাতা বাজি, করলা বাজি ( ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে), কেইল এর রস বল বর্ধক হিসাবে, দারুচিনি পাউডার এসব ঔষধের অতিরিক্ত ও খাই । বাংলাদেশে থানকুনি পাতা প্রচুর পাওয়া যায় । রস বদহজমের অব্যর্থ মহৌষধ । পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নাই । এরকম হাজার হাজার ওষধি গাছ বাংলাদেশে আছে। হেলেঞ্ছার রস ফেটি লিভারের মহৌষধ । নব প্রজন্ম ইউটিউবে family limited channel অথবা Google সার্চ দিয়ে অনেক তথ্য পেতে পারে । আমিও তাই করি । আল্লাহ্ সকলকে দুরারোগ্য রোগ থেকে সুস্থ রাখুন ।

Kazi
১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ১০:৫৩ অপরাহ্ন

ঐ ট্যাবলেটের বাজার এখন বাংলাদেশে আসবে।এখানে দেখার কেউ নেই।

Amirswapan
১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ১০:৪৫ অপরাহ্ন

ভারত থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

ভারত সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status