ঢাকা, ২৩ জুলাই ২০২৪, মঙ্গলবার, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৬ মহরম ১৪৪৬ হিঃ

ভারত

বন্দে ভারতের খাবারে ভেসে উঠলো আরশোলা

মানবজমিন ডিজিটাল

(১ মাস আগে) ২১ জুন ২০২৪, শুক্রবার, ৪:১২ অপরাহ্ন

mzamin

বন্দে ভারত এক্সপ্রেসে চেপে  বীভৎস অভিজ্ঞতা হলো এক দম্পতির।  সূত্রের খবর, অভিযোগকারী দম্পতি বন্দে ভারত এক্সপ্রেসে ভোপাল থেকে আগ্রা যাচ্ছিলেন। ৫৫০ কিলোমিটারের এই যাত্রাপথ পেরোতে সেমি হাই স্পিড ট্রেনটি সময় নেয় প্রায় ৭ঘণ্টা। লম্বা এই ট্রেন সফরে রেল যাত্রীদের খাবার পরিবেশন করে আইআরসিটিসি। যা হাতে নিয়ে রীতিমতো চোখ কপালে ওঠে অভিযোগকারী দম্পতির। বিদিত নামে এক এক্স হ্যান্ডল ব্যবহারকারী পোস্ট করেছেন ঘটনাটি। তিনি ভারতের রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব ও আইআরসিটিসি-কে ট্যাগ করে অভিযোগ জানান। ট্রেনের পরিচ্ছন্নতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। খাবারের ভেন্ডরের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপের দাবি করেন। একইসঙ্গে রেলওয়ের কাছে দাবি জানান যে ভবিষ্যতে যাতে এ ধরনের ঘটনা না ঘটে, তা নিশ্চিত করতে।

বিজ্ঞাপন
পোস্টের জবাব দেয় আইআরসিটিসি। এক্স হ্যান্ডেলে লেখা হয়, “স্যার , আপনার ভ্রমণে বিরূপ অভিজ্ঞতার জন্য আমরা ক্ষমাপ্রার্থী। আমরা গুরুত্ব দিয়ে বিষয়টি দেখছি এবং সার্ভিস প্রোভাইডরকে জরিমানাও করা হয়েছে। এই ধরনের ঘটনা যাতে আর না ঘটে, তার জন্য নজরদারি বাড়ানোর চেষ্টা চালানো হচ্ছে।' 

এদিকে এই ঘটনায় খবর প্রকাশ্যে আসতেই ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন রেল যাত্রীদের একাংশ। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছেন তারা। এর আগেও বন্দে ভারতে খাবারের মান নিয়ে অভিযোগ করেছেন যাত্রীরা। গত ফেব্রুয়ারি মাসেই বন্দে ভারতের খাবারে মরা আরশোলা পাওয়া গিয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছিল।  জানুয়ারি মাসে নয়াদিল্লি-বারাণসী বন্দে ভারতের খাবার নিম্নমানের ছিল বলে অভিযোগ উঠেছিল।  বার বার দেশের গতিশীল ট্রেনের খাবারের মান নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় স্বাভাবিক ভাবেই অস্বস্তিতে ভারতীয় রেল।   বন্দে ভারত অন্যতম গতিশীল ট্রেন। তবে এই ট্রেন পরিষেবার পিছনে খরচ করতে গিয়ে যাত্রী সুরক্ষা উপেক্ষিত হচ্ছে বলে মত বিশেষজ্ঞদের ।  

সূত্র : বিজনেস টুডে

ভারত থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

ভারত সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status