ঢাকা, ১৯ আগস্ট ২০২২, শুক্রবার, ৪ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০ মহরম ১৪৪৪ হিঃ

অনলাইন

যুক্তরাষ্ট্রে প্রত্যর্পণের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করেছেন জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ

(১ মাস আগে) ২ জুলাই ২০২২, শনিবার, ১২:২৮ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১০:৩৫ পূর্বাহ্ন

ফৌজদারি অভিযোগের মুখোমুখি হওয়া থেকে নিজেকে বাঁচাতে উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তার প্রত্যর্পণ রোধ করার জন্য লন্ডনের হাইকোর্টে আবেদন করেছেন। তার ভাই বলেছেন, অ্যাসাঞ্জ এক দশকেরও বেশি সময়  ধরে এই আইনি লড়াই লড়ে যাচ্ছেন। ৫০ বছরের অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে মার্কিন কর্তৃপক্ষের দ্বারা ১৮ টি গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ আনা হয়েছে। যার মধ্যে  উইকিলিকসে ফাঁস করা হয়েছে গোপনীয় মার্কিন সামরিক রেকর্ড এবং কূটনৈতিক সম্পর্কের বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য যা মার্কিন কর্মকর্তাদের জীবনকে বিপদে ফেলেছে। গত মাসে, মার্কিন স্বরাষ্ট্র সচিব প্রীতি প্যাটেল উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা অ্যাসাঞ্জকে প্রত্যর্পণের অনুমোদন দিয়েছেন। প্রীতি প্যাটেলের অফিস বলেছে যে ইউকে আদালত এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে যে তার প্রত্যর্পণ তার মানবাধিকারের পথে বাধা হয়ে দাঁড়াবে না এবং তার সাথে যথাযথ আচরণ করা হবে।অস্ট্রেলিয়ায় জন্মগ্রহণকারী অ্যাসাঞ্জের আইনি দল হাইকোর্টে সেই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করেছে, তার ভাই গ্যাব্রিয়েল শিপটন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।আপিলের শুনানির জন্য আদালতকে অবশ্যই তার অনুমোদন দিতে হবে তবে সম্ভবত আইনি মামলাটি শেষ হতে কয়েক মাস সময় লাগবে।শিপটন রয়টার্সকে বলেছেন, এই দুঃস্বপ্নের অবসান ঘটাতে আমরা অস্ট্রেলিয়ান সরকারকে অবিলম্বে এই মামলায় হস্তক্ষেপ করার আহ্বান জানাই। কাহিনীটি ২০১০ এর শেষের দিকে শুরু হয়েছিল। যখন সুইডেন যৌন অপরাধের অভিযোগে যুক্তরাজ্যের কাছে অ্যাসাঞ্জের প্রত্যর্পণ চেয়েছিল। ২০১২ সালে সেই মামলায় হেরে গেলে, অ্যাসাঞ্জ লন্ডনে ইকুয়েডর দূতাবাসে পালিয়ে যান যেখানে তিনি সাত বছর কাটিয়েছিলেন। ২০১৯ সালের এপ্রিলে যখন তাকে  ইকুয়েডর দূতাবাস থেকে টেনে বের করা হয়েছিল, তখন তাকে যুক্তরাজ্যের জামিনের শর্ত ভঙ্গ করার জন্য জেলে পাঠানো হয়েছিল যদিও তার বিরুদ্ধে সুইডিশ মামলাটি বাদ দেওয়া হয়েছিল।তিনি ২০১৯ সালের জুন থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রত্যর্পণের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন এবং কারাগারে রয়েছেন।প্যাটেল অ্যাসাঞ্জের প্রত্যর্পণ অনুমোদন করার পরে তার স্ত্রী স্টেলা অ্যাসাঞ্জ সাংবাদিকদের বলেছিলেন: '' আমরা নতুন করে এই লড়াই লড়তে যাচ্ছি।

বিজ্ঞাপন
দরকার হলে আইনের সবকটি দরজায় আমরা কড়া নাড়বো। ''

সূত্র :  thenewdaily.com.au

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status