ঢাকা, ২৫ জুলাই ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৮ মহরম ১৪৪৬ হিঃ

শেষের পাতা

নেতাদের সাজা দিয়ে আন্দোলন থামানো যাবে না

স্টাফ রিপোর্টার
৩১ মে ২০২৩, বুধবারmzamin

দুদকের করা দুর্নীতি মামলায় বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ  টুকু ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমানের সাজা বহাল রেখে রায় দিয়েছে হাইকোর্ট। টুকু ও আমানের বিরুদ্ধে সাজা বহালের রায়কে ‘ফরমায়েশি’ বলে অ্যাখ্যা দিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বলেন, জনগণকে চলমান আন্দোলন থেকে দূরে রাখা, সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন যাতে না হতে পারে, সে লক্ষ্যে সরকার এ কাজগুলো করছে। কিন্তু এবার জনগণ সেটা করতে দেবে না। নেতাদের সাজা নিয়ে চলমান আন্দোলন থামানো যাবে না। গতকাল রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা জানানো শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন ফখরুল ইসলাম। তিনি বলেন, টুকু-আমানের মামলাগুলোর রায় থেকে বোঝা যায়- এই সরকার সম্পূর্ণ রাষ্ট্রযন্ত্রকে দখল করে নিয়েছে, বিচার ব্যবস্থাকে দখল করে নিয়েছে। ফরমায়েশি রায় দিয়ে যারা গণতান্ত্রিক আন্দোলন করে, তাদেরকে কারাগারে পাঠিয়ে আন্দোলনকে স্তব্ধ করতে চাইছে। দীর্ঘ ১২ বছর ধরে তারা একই কাজ করছে।

 দুই বিএনপি নেতার সাজা বহালের ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ও আমান উল্লাহ আমানের বিরুদ্ধে যে রায় দিয়েছে আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। আমরা ক্ষোভ প্রকাশ করছি।

বিজ্ঞাপন
আমরা মনে করি যে, এটা একটা ফরমায়েশি রায়। এই ধরনের রায় দিয়ে কোনোদিন গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে স্তব্ধ করা যাবে না। জনগণ তাদের অধিকার অবশ্যই আদায় করবে। জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুদকের করা মামলায় গতকাল রায় দেন আদালত। এতে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি’র আহ্বায়ক ও সাবেক এমপি আমান উল্লাহ আমানের ১৩ বছর এবং তার স্ত্রী সাবেরা আমানের ৩ বছরের সাজার রায় বহাল রেখেছে হাইকোর্ট। অন্য আরেকটি মামলায় বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুর ৯ বছরের কারাদ-ও হাইকোর্ট বহাল রেখেছে। সেই সঙ্গে রায়ের অনুলিপি হাতে পাওয়ার দুই সপ্তাহের মধ্যে তাদের বিচারিক (নিম্ন) আদালতে আত্মসমর্পণ করার নির্দেশ দেয় আদালত। পরে রায়ের বিষয়ে বিএনপি’র প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে ফখরুল ইসলাম বলেন, সরকার দেশের জনগণকে গণতান্ত্রিক অধিকার থেকে দূরে রাখা, রাজনীতি থেকে দূরে রাখা এবং সত্যিকার অর্থে এখানে যাতে সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন না হতে পারে, তারা যেন একদলীয় নির্বাচন আবার করতে পারে সেই লক্ষ্যে সরকার এসব কাজ করছে। 

এই সব ঘটনা থেকে স্পষ্ট হয়ে গেল, এই সরকারের কোনো রকমের শুভবুদ্ধির উদয় হওয়ার সম্ভাবনা নাই। একমাত্র জনগণের উত্তাল আন্দোলনের মধ্যদিয়ে এই সরকারকে পরাজিত করেই আইনের শাসন, গণতন্ত্রের শাসন, গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা এবং সুষ্ঠু নির্বাচনকে ফেরত আনতে হবে। জিয়াউর রহমানের ৪২তম মৃত্যুবার্ষিকীতে মঙ্গলবার শেরেবাংলা নগরে তার সমাধিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান শাহজাহান ওমর, এজেডএম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম প্রমুখ। প্রয়াত নেতার আত্মার মাগফেরাত কামনায় বিশেষ মোনাজাতেও অংশ নেন তারা।

শেষের পাতা থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status