ঢাকা, ২৭ জুন ২০২২, সোমবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৬ জিলক্বদ ১৪৪৩ হিঃ

কলকাতা কথকতা

বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের বন্দি প্রত্যর্পণ চুক্তি কি প্রয়োগ হবে পি কে হালদারের ক্ষেত্রে?

বিশেষ সংবাদদাতা, অশোকনগর

(১ মাস আগে) ১৫ মে ২০২২, রবিবার, ১:৪০ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১:৪১ অপরাহ্ন

বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে বন্দি প্রত্যর্পণ চুক্তি কি কার্যকর হবে বাংলাদেশের কুখ্যাত আর্থিক অপরাধী পি কে হালদার এর ক্ষেত্রে? কলকাতা থেকে টেলিফোনে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট এর এক পদস্থ কর্তা জানালেন, টু আর্লি টু সে। সবে ইডি জেরা শুরু করেছে, এখনই কিছু বলা যাবে না। তবে, তিনি স্বীকার করেন যে বাংলাদেশের দুর্নীতি দমন কমিশন ইতিমধ্যেই পি কে হালদার এর হেফাজত চেয়েছে। কিন্তু, ভারতের মাটিতে এই ব্যাক্তি যদি কোনও অপরাধ করে থাকেন তাহলে প্রথমে ভারতীয় আদালতেই তার বিচার হবে। তারপর প্রত্যর্পণের কথা আসবে। 

ইতিমধ্যেই জানা গেছে যে ভারতে বেশ কিছু ভুয়া কোম্পানি তৈরি করে ব্যবসা চালানোর চেষ্টা করেছিলেন এই পি কে হালদার। এছাড়া সুকুমার মৃধার মারফত বাংলাদেশে প্রচুর টাকা হওয়ালা করেছেন তিনি। এটিও দণ্ডযোগ্য অপরাধ। কলকাতায় ইডি এর সিজিও কমপ্লেক্স এর অফিসে জেরা চলছে পি কে হালদার ও  অন্যদের। সাতজন ইডি এর উচ্চপদস্থ অফিসার এই জেরার কাজ পরিচালনা করছেন রোববার হওয়া সত্ত্বেও।  

পাঠকের মতামত

All culprits should be bring from india under the agreement of indo bangla.Punished them brutally.

Iqbal
১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার, ২:৪৮ পূর্বাহ্ন

প্রশ্নই আসেনা

Abdur Rahim
১৫ মে ২০২২, রবিবার, ৬:২৮ পূর্বাহ্ন

বন্দি প্রত্যর্পণ করে কি লাভ ? ব্যাংক লুটের টাকায় ভারতে যে সম্পত্তি কিনেছে সেই সম্পত্তি বিক্রি করে ব্যাংকের টাকা (:ঋণ ) আদায় করলে লাভ হবে । দেশে এনে জেলে ঘর জামাই বানিয়ে করের টাকায় বসিয়ে বসিয়ে খাওয়াতে হবে ।

কাজি
১৫ মে ২০২২, রবিবার, ২:১২ পূর্বাহ্ন

পি, কে হালদার ভারত থেকে আর আসতে পারবে না - আমাদের আমও গেল আর ছালাও গেল!!! আমার বাংলায় তার কিচ্ছু হবে না - কারণ সে চেতনা বেইচ্চা খাইছে!!!

তোফায়েল
১৫ মে ২০২২, রবিবার, ১:৫২ পূর্বাহ্ন

কলকাতা কথকতা থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

কলকাতা কথকতা থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com