ঢাকা, ২৮ মে ২০২২, শনিবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

শেষের পাতা

পটুয়াখালীতে চুরির অপবাদে কিশোরকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

পটুয়াখালী প্রতিনিধি
১৫ মে ২০২২, রবিবার

পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার সদর ইউনিয়নের বোয়ালিয়া গ্রামে টাকা চুরির অপবাদে গাছের সঙ্গে শিকলে বেঁধে মুন্না (১৬) নামের এক কিশোরকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করা হয়েছে। এ নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। টানা ৩ দিন ধরে দফায় দফায় মারধরের পর থেকে নিখোঁজ রয়েছে ওই কিশোর। মুন্না ওই এলাকার শাহজাহান কমান্ডারের ছেলে। এ ঘটনায় ভিডিও ফুটেজ দেখে গতকাল সন্ধ্যায় তানিয়া, মমতাজ ও শামীমকে আটক করেছে গলাচিপা থানা পুলিশ।   
ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, কিশোর মুন্নাকে একটি গাছের সঙ্গে লোহার শিকলে বেঁধে রাখা হয়েছে। বোয়ালিয়া এলাকার হজরত আলী নামে এক ব্যক্তি তাকে মারধর করছে। এ সময় আশপাশের লোকজন দাঁড়িয়ে বিষয়টি দেখছেন। ছবিতে মুন্নার শরীরে রক্তাক্ত জখম চিহ্ন দেখা যায়। 
মুন্নার মা হাসিনা বেগম বলেন, ৮৫ হাজার টাকা চুরির অপবাদে মুন্নাকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এমন সংবাদ পেয়ে ঢাকা থেকে বাড়িতে এসেছেন। ৯ থেকে ১১ই মে মধ্যরাত পর্যন্ত হজরত আলী, ফেরদৌস, মমতাজ এবং তানিয়া দফায় দফায় মুন্নাকে অমানবিক নির্যাতনের পর তার ছেলেকে খুঁজে পাচ্ছেন না, বলে জানান তিনি। 
গলাচিপা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এম আর শওকত আনোয়ার ইসলাম জানান, নির্যাতিত কিশোরের মা হাসিনা বেগমের অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা মামলা নিয়েছি।

বিজ্ঞাপন
ইতিমধ্যে ৫ জন আসামির মধ্যে ৩ জনকে আটক করা হয়েছে। দ্রুত অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করা হবে। নির্যাতনের শিকার কিশোর মুন্নার নিখোঁজের বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, মুন্না নির্যাতনের পর সে পলাতক রয়েছে। কিশোর মুন্না অপরাধ করলেও তাকে গাছে বেঁধে নির্যাতন করা অমানবিক ঘটনা বলে জানান এই কর্মকর্তা। 
 

শেষের পাতা থেকে আরও পড়ুন

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com