ঢাকা, ২৮ নভেম্বর ২০২২, সোমবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

বাংলারজমিন

চা শ্রমিকদের ফ্রি বিদ্যুৎ সংযোগে অনিয়মের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার, মৌলভীবাজার থেকে
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, বৃহস্পতিবার

মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলায় মুজিববর্ষ উপলক্ষে চা শ্রমিকদের দেয়া ফ্রি বিদ্যুৎ সংযোগসহ মিটার প্রদানে পিডিবি’র বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। মিটার ফি বাবদ সরকারিভাবে ৮শ’ থেকে ৯শ’ টাকা নেয়ার কথা থাকলেও জনপ্রতি ১৫শ’ থেকে ৩ হাজার টাকা নেয়ার অভিযোগ উঠেছে পিডিবি’র জুড়ী উপ-সহকারী প্রকৌশলী আনসারুল কবির শামীমের বিরুদ্ধে।  পিডিবি সূত্রে জানা যায়, মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) সিলেট বিভাগের দরিদ্র চা শ্রমিক জনগোষ্ঠী পরিবারের জন্য ৭০টি সংযোগসহ মিটার বরাদ্দ দেয়। এ বরাদ্দ থেকে মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলার বিভিন্ন চা বাগানের ১৮টি পরিবারকে সংযোগসহ মিটার প্রদান করা হয়। উপজেলার বিভিন্ন চা বাগানে বরাদ্দ দেয়া ১৮টি মিটারের একটিও এখন পর্যন্ত সচল করা হয়নি। সংযোগের প্রায় এক বছর অতিবাহিত হলেও মিটার সচল না করায় অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহার করে আসছেন তারা। অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহার করার কারণে প্রায়ই পিডিবি তাদের সংযোগ বিচ্ছিন্ন টাকার বিনিময়ে পুনঃসংযোগ দেয়ারও অভিযোগ উঠেছে পিডিবি’র উপ-সহকারী প্রকৌশলী আনসারুল কবির শামীমের বিরুদ্ধে।  ধামাই চা বাগানের চা শ্রমিক জ্যোতি রুদ্র পাল বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দেয়া বিদ্যুৎ পেয়ে খুশি হয়েছিলাম। এ মিটার ফ্রি পাওয়ার কথা থাকলেও পিডিবি’র কর্মকর্তা চা পানের কথা বলে দুই দফায় আমার কাছ থেকে ৩ হাজার টাকা নিয়েছেন। সংযোগের প্রায় এক বছর অতিবাহিত হলেও মিটার সচল না করায় আমি চিন্তিত।

বিজ্ঞাপন
সোনারুপা চা বাগানের চা শ্রমিক রানা রবিদাস বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে ৩ হাজার টাকা দিয়ে মিটারসহ সংযোগ পেলেও এখনো আমার লাইনটি সংযোগ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় রয়েছে। অফিস থেকে আরও টাকা চাওয়া হচ্ছে। তাই পুনঃসংযোগ নিতে পারছি না। ৭০ বছর বয়সী  সোনারুপা চা বাগানের মনি সাঁওতাল বলেন, মরার আগে এ বয়সে ১৫শ’ টাকায় মিটার পেয়েও বিদ্যুতের  আলো চোখে দেখতে পাইনি। তাই প্রতিবন্ধী সন্তানদের নিয়ে অন্ধকারে আছি। এ ছাড়াও চা শ্রমিক রমাকান্ত রুদ্র পাল, সন্তো রিকমনসহ কয়েকজন অভিযোগ করে বলেন আমাদের নাম তালিকাভুক্ত হলেও এখন পর্যন্ত মিটার পাইনি।  চা শ্রমিকদের ফ্রি মিটার দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে পিডিবি’র জুড়ী উপ-সহকারী প্রকৌশলী আনসারুল কবির শামীম বলেন, মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে উপজেলায় ১৮টি  চা শ্রমিক পরিবারকে ফ্রি মিটার প্রদান করা হয়েছে। তবে এ সময় তিনি প্রাক্কলন বিল ও অনলাইন আবেদন বাবদ ১৫শ’ টাকা নিয়েছেন বলে স্বীকার করেন। প্রাক্কলন বিল ও অনলাইন আবেদন বাবদ টাকা নিয়েও মিটার স্থাপনের পরে কেন সংযোগ দেয়া হলো না এমন প্রশ্নে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।  এ বিষয়ে পিডিবি’র সিলেট বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. আব্দুল কাদির বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে সিলেট বিভাগে ৭০ জন অসহায় চা শ্রমিকের মাঝে ফ্রি সংযোগসহ মিটার প্রদান করা হয়েছে। সংযোগ ফি বাবদ ৮-৯শ’ টাকা নেয়ার কথা। এরচেয়ে বেশি নেয়ার সুযোগ নেই।  অতিরিক্ত টাকা গ্রহণ ও সংযোগ  না দেয়ার বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বাংলারজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

বাংলারজমিন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status