ঢাকা, ৭ ডিসেম্বর ২০২২, বুধবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

অনলাইন

তুতেনখামেনের সমাধিতে লুকিয়ে কোন রহস্য?

মানবজমিন ডিজিটাল

(২ মাস আগে) ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ২:০১ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:২৯ পূর্বাহ্ন

mzamin

যা অনুমান করা হয়েছিল তার থেকে অনেক বেশি রহস্য লুকিয়ে আছে প্রাচীন মিশরীয় রাজা তুতেনখামেনের সমাধি কক্ষে ।একজন ব্রিটিশ ইজিপ্টোলজিস্ট  দাবি করেছেন যে প্রায় ১০০ বছর আগে ১৯২২ সালে আবিষ্কৃত তুতেনখামেনের সমাধিতে এমন ক্লু রয়েছে যা প্রাচীন তত্ত্বকে সমর্থন করে যে মিশরীয় রাণী নেফারতিতি তার সৎ পুত্র তুতেনখামেনের পাশে একটি লুকানো চেম্বারে রয়েছেন।যদিও তত্ত্বটি এখনও প্রমাণিত হয়নি, তবে এটিকে সমর্থন করে নতুন সূত্র বেরোতে পারে । ব্রিটিশ সংবাদপত্র ‘দ্য গার্ডিয়ান’-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদন এই দাবি করা হয়েছে।দ্য গার্ডিয়ানে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে ইজিপ্টোলজিস্টরা দাবি করেছে যে, তুতেনখামেনের সমাধিতে একটি ছবি পাওয়া গিয়েছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে নেফারতিটিকে সমাধিস্থ করা হচ্ছে। সমাধিস্থ করছেন তুতেনখামেন। ব্রিটিশ মিউজিয়ামের কিউরেটর নিকোলাস রিভস জানান, সমাধির ভেতরকার এই চিত্র গুলি প্রমাণ করে, তুতেনখামেন নেফারতিতিকে সমাধিস্থ করার সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন। নেফারতিতি ছিলেন আখেনাতেনের স্ত্রী এবং তুতেনখামেনের সৎ মা। এঁদের পুত্রসন্তান ছিল না, ছিল সাতটি কন্যা। এঁদেরই এক জনকে বিয়ে করেছিলেন তুতেনখামেন। তিনি মিশরের ১৮তম রাজবংশের সবচেয়ে কম দিনের কিশোর সম্রাট। নেফারতিতির সমাধি খুঁজে পাওয়া যায়নি। সারা বিশ্বের প্রত্নতাত্ত্বিক, যারা প্রাচীন মিশরীয় সভ্যতা নিয়ে চর্চা করেন, তারা এখনও এই সমাধি খুঁজে চলেছেন।

বিজ্ঞাপন
তুতেনখামেনের মতোই তাঁর শাশুড়ির সমাধিতেও বিপুল পরিমাণ ধনসম্পদ থাকতে পারে বলে সে সময় জানিয়েছিলেন নিকোলাস। বস্তুত, সুন্দরী নেফারতিতিই ওই সমাধিস্থলের ‘আসল মালিক’ হতে পারেন বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।  মাত্র ১৯ বছর বয়সে অপ্রত্যাশিতভাবে মারা যান তুতেনখামেন। তাঁর সমাধিতে চেয়ার , রথ, ধন এবং অন্যান্য বিলাসিবহুল সামগ্রী রাখা ছিল। নিকোলাস দাবি করেছেন যে '' তুতেনখামেনের সমাধিটি নেফারতিতির অনেক বড় সমাধির বাইরের অংশ মাত্র। এটি নিছক কল্পনা নয়, আমি এটি আবিষ্কার করেছি  সমাধি কক্ষের দেয়ালের সজ্জা দেখে। তুতেনখামেনের সমাধির অদ্ভুত আকৃতির কারণে আমরা সর্বদা বিভ্রান্ত হয়ে পড়েছি। এটি খুব ছোট এবং একজন রাজার সমাধির মতো নয়। ''প্রত্নতাত্ত্বিকরা ২০০৭  সাল থেকে হারিয়ে যাওয়া রাণীকে খুঁজে বের করার জন্য জেনেটিক পরীক্ষা পরিচালনা করছেন এবং এ পর্যন্ত ১৬ টি রাজকীয় মমি পরীক্ষা করেছেন। তারা তুতেনখামেনের দাদা-দাদি, তার বাবা-মা এবং তার স্ত্রীর সমাধি পেয়েছেন, তবে পাননি তার সৎ মা রানী নেফারতিতির সমাধি।

সূত্র : ইন্ডিয়া টুডে

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status