ঢাকা, ২৮ নভেম্বর ২০২২, সোমবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

ভারত

সুপ্রিম কোর্টে জবানবন্দি দেয়ার সময় কর্ণাটক সরকার গরু জবাই আর হিজাবকে একই আসনে বসালো কেন?

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা

(২ মাস আগে) ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১০:০৭ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৫:২৭ অপরাহ্ন

হিজাব বিতর্ক নিয়ে কর্ণাটক সরকার তাদের জবানবন্দি সুপ্রিম কোর্টে নথিভুক্ত করলো। তাদের বক্তব্য অনুযায়ী সরকার তাদের ধর্মনিরপেক্ষ চরিত্র অটুট রেখেছে। যেহেতু মুসলমান ছাত্রীদের হিজাব পরায় যেমন নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে, তেমনই  হিন্দু ছাত্র-ছাত্রীদের ক্ষেত্রে গেরুয়া উত্তরীয় পরে আসায় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।  সুপ্রিম কোর্টে মুসলমান পক্ষের আইনজীবী সওয়াল করেন যে, ভারতীয় সংবিধানের  ১৯ ও ২৫ নম্বর ধারার লঙ্ঘন হচ্ছে হিজাব বন্ধ করায়। কারণ, ১৯ নম্বর ধারায় রাইট টু এক্সপ্রেশনের কথা বলা আছে, আর ২৫ নম্বর ধারায় ধর্মাচরণের স্বপক্ষে বলা আছে।

হিন্দু পক্ষের আইনজীবীরা পাল্টা বলেন, রাইট টু এক্সপ্রেশনের যথার্থ হলো যাতে কারও আবেগে আঘাত না করে চলা যায়।  হিজাব পরা কোনোমতেই আবেগ নয়। প্রয়োজনের ভিত্তিতে এটি ব্যবহৃত হয়। স্কুল ইউনিফর্ম ছেড়ে বাইরে কোনো  ছাত্রী হিজাব পরলে বাধা দেয়ার কোনো প্রশ্নই ওঠে না।  কিন্তু স্কুলে ইউনিফর্ম পরতেই হবে।  বিশেষত; হিজাব পরাটা যখন কোনো ধর্মীয় অনুশাসনের মধ্যে পড়ে না।

বিজ্ঞাপন
সংবিধানের ২৫ ধারা লঙ্ঘন  করা হচ্ছে বলে যে কথা বলা হচ্ছে সেই প্রসঙ্গে বলা হয়,  ১৯৫৮ সালে গরু জবাইয়ের মতো ঘটনাকেও মুসলমানদের ধর্মীয় অনুশাসন থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। গরু জবাই করা বা হিজাব পরা কোনোটাই যেহেতু ধৰ্মাচরণ নয়, তাই এগুলো সংবিধান এর ২৫ নম্বর ধারায়  বিবেচিত হওয়ার কোনো প্রশ্নই ওঠে না।

পাঠকের মতামত

একই বিবেচনায় ইসলাম ভিন্ন অন্য ধর্মের অনেক আচার অনুষ্ঠান নিয়ে বির্তক সৃষ্টি করার রাজনৈতিক ইস্যু অন্য দেশে তৈরী হলে তখন এই মৌলবাদী ধর্মান্ধগন হৈচৈ ফেলে দিবেন। সংবিধানের আইনের শাব্দিক অর্থ গ্রহন না করে তা স্বপক্ষে নিতে তার ভাবার্থ ও ব্যাখ্যা দিবার স্বাধীনতা উকিলদের থাকলেও বিচার কার্যে নিয়োজিত বিচারপতিগনের তা গ্রহনের স্বাধীনতা নেই। সে বিবেচনায় রায়টি একটি সংখ্যালঘু ধর্মিয় সম্প্রদায়ের উপর চাপিয়ে দেয়া অবিচার ভিন্ন অন্য কিছুই নয়।

মোহাম্মদ হারুন আল রশ
২১ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ৯:৪৭ অপরাহ্ন

ভারত থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

ভারত থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status