ঢাকা, ৪ অক্টোবর ২০২২, মঙ্গলবার, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

অনলাইন

আপনারা সবাই তো আমারে খায়া ফেললেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

(১ মাস আগে) ১৪ আগস্ট ২০২২, রবিবার, ৬:৫৫ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:০৫ পূর্বাহ্ন

আমি তো ট্রু সেন্সে বেহেশত বলিনি। কথার কথা। কিন্তু আপনারা সবাই আমারে খায়া ফেললেন বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। বেহেশতে থাকা নিয়ে বক্তব্যের জন্য সমালোচনার মুখে পড়া পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, তিনি কথার কথা বলেছেন। সেটা নিয়ে সাংবাদিকেরা তাকে বিপাকে ফেলেছেন।  
রোববার বিকেলে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বাংলাদেশ সফররত জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাশলেতের সঙ্গে বৈঠক করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। ওই বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, আমরা অনেকের চেয়ে ভালো আছি। বলতে পারেন বেহেশতে আছি। আর যায় কোথায়! সবাই আমারে এক্কেরে...। এই হলো বাংলাদেশের মিডিয়ার স্বাধীনতা খর্ব।

বিজ্ঞাপন
আমি কি মিডিয়ার স্বাধীনতা খর্ব করেছি? আফটার অল আই অ্যাম আ পাবলিক ফিগার। নিশ্চয়ই আপনারা আমাকে ক্রিটিসাইজ করতে পারেন। আই ডোন্ট মাইন্ড। তবে আগামীতে সাবধান হতে হবে। আমি খোলামেলা মানুষ। আমি শিক্ষক মানুষ। আমি যেটা মনে করি, সেটা খোলামেলা বলে ফেলি।

গত শুক্রবার সিলেটে এক অনুষ্ঠানের পর সাংবাদিকদের কাছে বর্তমান বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশের অবস্থা নিয়ে কথা বলেন আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা হয়ে যাবে, একটি পক্ষ থেকে এমন প্যানিক ছড়ানো হচ্ছে। বাস্তবে এর কোনো ভিত্তি নেই। বৈশ্বিক মন্দায় অন্যান্য দেশের তুলনায় আমরা বেহেশতে আছি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এ বক্তব্যের সমালোচনা হয় ব্যাপক। বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। সমালোচনার পর কেন বেহেশত বলেছেন, তা নিয়ে শনিবার ব্যাখ্যা দিয়েছেন তিনি। তবে তাতেও সমালোচনা থামেনি। আবার রাজনীতির ময়দানেও কথাটি সাড়া ফেলেছে ব্যাপক। শনিবার বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দেশের মানুষ যখন প্রতি মুহূর্তে কষ্ট করছে, হিমশিম খাচ্ছে এবং তাদের জীবন দুর্বিষহ হচ্ছে, সেই সময়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বললেন যে মানুষ বেহেশতে আছে। এর মধ্য দিয়ে জনগণের সঙ্গে তামাশা করা হয়েছে।

পাঠকের মতামত

মন্ত্রী ঠিকই বলেছেন, আসলে ওনারা বেহেশতে আছে।

Helal
১৮ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১২:০৭ পূর্বাহ্ন

"বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা হয়ে যাবে, একটি পক্ষ থেকে এমন প্যানিক ছড়ানো হচ্ছে।" এটা প্যানিক নয়, এটাই বর্তমান বাস্তবতা। দেশ সেদিকেই এগিয়ে যাচ্ছে। আর সেটা আপনারা অনুধাবন করতে পারছেন না। কারণ আপনাদের তো টাকার অভাব নেই আবার এসি রুমে থাকেন। জনগণের টাকা আপনারা আপনাদের পকেটস্থ করতে শুধু একটা অজুহাত তৈরী করে দিলেই হয়ে গেলো। জনগণ ভিক্ষা করে, মেহনত করে, কঠোর পরিশ্রম করে জীবন নির্বাহ করতে হিম সীম খাচ্ছে। নুন আনতে পান্তা পুরায়। আপনারা হুট্ করে জ্বালানির দাম বাড়িয়ে দিয়ে সেই গরিব দুঃখী মানুষের লক্ষ কোটি টাকা মুহূর্তেই হাতিয়ে নেন। বিদ্যুতের দাম বাড়িয়ে দিয়ে আত্মসাৎ করেন, ভোজ্য তেলের দাম বাড়িয়ে দিয়ে চুরি করে নিয়ে নেন, চালের দাম বাড়িয়ে দিয়ে ডাকাতি করেন। জনগণ তো জিম্মি। জনগণের রক্ত খেয়ে আর কত আয়েশ করবেন?

salim khan
১৪ আগস্ট ২০২২, রবিবার, ১০:৪৬ অপরাহ্ন

মানুষ হলে মানুষের কষ্ট বুঝতেন।

হেলাল
১৪ আগস্ট ২০২২, রবিবার, ৭:১০ অপরাহ্ন

কথায় বলে বাহাদুরী যতক্ষন নিজের মধ্যে থাকে ততক্ষন আপনি নিরাপদ। এটা প্রকাশ করে ফেললেই যত বিপত্তি।

মোহাম্মদ হারুন আল রশ
১৪ আগস্ট ২০২২, রবিবার, ১১:১৯ পূর্বাহ্ন

Heaven only knows when that'll be, please resign sir.

No name
১৪ আগস্ট ২০২২, রবিবার, ৮:৫৬ পূর্বাহ্ন

হ্যালো মিস্টার

Md Shajahan
১৪ আগস্ট ২০২২, রবিবার, ৮:৫০ পূর্বাহ্ন

আপনার পদে কথার কথা মানায় না। কি বলতে হবে তাই যদি আপনি না জানেন তাহলে আপনি আর অশিক্ষিত মানুষের মধ্যে পার্থক্য কি ? মানুষ যদি বেহেশত থাকে তাহলে আপনার মন্ত্রিত্বের কি দরকার ?

wow
১৪ আগস্ট ২০২২, রবিবার, ৬:১৯ পূর্বাহ্ন

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রায়শই মিলত ধর্ষণের হুমকি/ ‘গেট খুলে দেখি মেয়ে অর্ধ-উলঙ্গ এবং গলা কাটা’

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status