ঢাকা, ২৩ জুন ২০২৪, রবিবার, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

শেষের পাতা

অপরাধী সাবেক আইজিপি-সাবেক সেনাপ্রধান হলেও শাস্তি পেতে হবে

স্টাফ রিপোর্টার
২৫ মে ২০২৪, শনিবারmzamin

দুর্নীতি, অনিয়ম ও অপরাধের বিষয়ে ক্ষমতাসীন সরকারের অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, অপরাধী যত প্রভাবশালীই হোক, শাস্তি তাকে পেতেই হবে। অপরাধের বিষয়ে সরকারের নীতি জিরো টলারেন্স। যদি সেই অপরাধী সাবেক আইজিপি কিংবা সাবেক সেনাপ্রধানও হন তাকেও দেশের প্রচলিত আইনে শাস্তির মুখে সমর্পণ করা হবে। গতকাল রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, কোনো ব্যক্তি যত প্রভাবশালীই হোক, অপরাধ-অপকর্ম করতে পারে। এখানে প্রশ্ন থেকে যায়, তাদের অপরাধ-অপকর্মে শাস্তি পাওয়ার ক্ষেত্রে সরকার সৎসাহস দেখিয়েছে কিনা। শেখ হাসিনার সরকারের সেই সৎসাহস আছে। অপরাধ করে কেউ পার পাবে না। তিনি বলেন, বিচার বিভাগ স্বাধীন, দুর্নীতি দমন কমিশন স্বাধীন।

বিজ্ঞাপন
সেখানে যদি কেউ অপরাধী হিসেবে সাব্যস্ত হয় আমরা কেন প্রটেকশন দেবো? হোক সে সাবেক আইজিপি কিংবা সাবেক সেনাপ্রধান। অপরাধ করলে দেশের প্রচলিত আইনে শাস্তির মুখে সমর্পণ করা হবে। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বুয়েটে আবরার হত্যাকাণ্ডে যাদের দণ্ড দেয়া হয়েছে তারা সবাই ছাত্রলীগ। সরকার তাদের প্রটেকশন দিতে যায়নি।

 বিশ্বজিৎ হত্যাকাণ্ডের ক্ষেত্রেও সরকার কাউকে প্রটেকশন দেয়নি। ব্যক্তি অপরাধ করতে পারে। কিন্তু সরকার তাকে প্রটেকশন কেন দেবে? আমরা অপরাধীকে অপরাধী হিসেবেই দেখি। সে যতই প্রভাবশালী হোক, অপরাধ করলে শাস্তি তাকে পেতেই হবে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ দুঃশাসন ও জুলুম চালাচ্ছে, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, মির্জা ফখরুলের মানসিক ট্রমা মনে হয় ভয়ঙ্কর পর্যায়ে উপনীত হয়েছে। তিনি ও তার দলের নেতারা বাস্তবতা থেকে অনেক দূরে। তারা আন্দোলন-সংগ্রামে ব্যর্থ। তাদের এদিকও নেই, ওদিকও নেই। বন্ধুরাও আগের মতো এসে তাদের উৎসাহিত করে না। এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, আগে ঘুম থেকে উঠেই মির্জা ফখরুল নাস্তা করতে মার্কিন দূতাবাসে হাজির হতেন। তাকে রাতেও খুঁজে পাওয়া যেতো না। বিদেশিরা ক্ষমতায় বসাবে সেই কর্পূরও উড়ে গেছে। আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে কোনো সাধারণ নাগরিক জেল-জুলুম-হয়রানির মুখোমুখি হয়নি দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, যারা পুলিশ মেরেছে, পুলিশ হাসপাতালে অগ্নিসংযোগ করেছে, তারা তো অপরাধী। তাদের বিএনপি হিসেবে আটক করা হয়নি। 

আটক করা হয়েছে সন্ত্রাস ও আগুন সন্ত্রাসে জড়িত থাকার অপরাধে। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক দলের এক নেতাকে অস্ত্রসহ আটকের পর তার পক্ষে বিবৃতি দিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব। খুনিদের পক্ষে বিএনপি’র যে প্র্যাকটিস এখনো সেটা চলছে। বিএনপি’র সব নেতাই তো বাইরে। তাহলে কে তাদের নির্যাতন করছে- প্রশ্ন রাখেন তিনি। আওয়ামী লীগ সরকারের জনভিত্তি নেই- বিএনপি’র এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতীয় নির্বাচনে ৪২ শতাংশের বেশি মানুষ ভোটকেন্দ্রে এসেছে। বাংলাদেশে এ হার অন্য যেকোনো দেশের তুলনায় সন্তোষজনক। বিএনপি’র আমলে ১৫ই ফেব্রুয়ারির নির্বাচনে বিবিসি জানিয়েছে ভোটার উপস্থিতি ছিল পাঁচ শতাংশ, আর তখনকার নির্বাচন কমিশন জানিয়েছিল উপস্থিতি ২১ শতাংশ। এখনকার নির্বাচনে উপস্থিতি তার দ্বিগুণ। উপজেলা নির্বাচনের প্রথম ধাপে নির্বাচন কমিশন বলেছে উপস্থিতি ৩৬ শতাংশের বেশি। আর দ্বিতীয় ধাপে ৩৭ শতাংশের বেশি।

 তিনি বলেন, আমরা জনগণের প্রতিনিধি। আমরা জনগণের ইচ্ছায় দেশ শাসন করছি। বিএনপি পথ হারিয়ে পথহারা পথিকের মতো বেসামাল বক্তব্য দিচ্ছে। টিকটক, ফেসবুকে বিএনপি এত মিথ্যাচার ও নোংরাভাবে আমাদের আক্রমণ করে। এমনকি প্রধানমন্ত্রীকে নিয়েও নোংরা ভাষায় আক্রমণ করে। এরপরও তারা বলে, সরকার নাকি তাদের ওপর জুলুম করছে। আসলে বিএনপি’র এসব বক্তব্য অবান্তর। আওয়ামী লীগ ক্ষমতা অর্জন করেছে, দখল নয়। বিএনপি বলছে দখল। জনগণের ভোটে আমরা নির্বাচিত হয়েছি। নির্বাচনের পর পৃথিবীর অনেক দেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছে এবং একসঙ্গে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছে। আমরা বিএনপিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের চিঠিটি পড়তে বলবো। সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে আরও উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, সুজিত রায় নন্দী, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া ও উপদপ্তর সম্পাদক এডভোকেট সায়েম খানসহ কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতারা।

শেষের পাতা থেকে আরও পড়ুন

   

শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status