ঢাকা, ২৩ জুন ২০২৪, রবিবার, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

ভারত

ভারতের নির্বাচনে মুসলিম প্রার্থীদের সংখ্যা অনেক কমেছে, বিজেপির প্রার্থী একজন

মানবজমিন ডিজিটাল

(১ মাস আগে) ২১ মে ২০২৪, মঙ্গলবার, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১০:২৫ অপরাহ্ন

mzamin

ভারতের রাজনৈতিক দলগুলোর নির্বাচনী প্রচারে বারবার উঠে এসেছে সংখ্যালঘু প্রসঙ্গ। নির্বাচনে সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্ক যে একটা বড় টার্গেট রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্ক নজরে থাকলেও ২০১৯-সালের তুলনায় রাজনৈতিক দলগুলো দেশটির চলতি লোকসভা নির্বাচনে অনেক কম সংখ্যক মুসলিমকে প্রার্থী করেছে। ২০১৯-এ মোট ১১৫ জন মুসলিম প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধিতা করলেও এবার সেই সংখ্যা কমেছে উল্লেখযোগ্য হারে। ২৪-এর নির্বাচনী ময়দানে মাঠে নেমেছেন মাত্র ৭৮ জন মুসলিম প্রার্থী।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এর এক প্রতিবেদনে এ খবর দিয়ে বলা হয়ঃ বিজেপি চলতি লোকসভা নির্বাচনে একজন মুসলিমকে প্রার্থী করেছে। বিহারে বিজেপির সহযোগী জেডি(ইউ) আরও একজনকে প্রার্থী করেছে। প্রধান বিরোধী দলগুলোর মধ্যেও, মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রার্থীর সংখ্যা কমেছে উল্লেখযোগ্য হারে। কংগ্রেস থেকে তৃণমূল কংগ্রেস, সমাজবাদী পার্টি থেকে আরজেডি, এনসিপি থেকে সিপিআই(এম) সর্বত্রই চিত্র মোটামুটি একই। এবারের লোকসভার ময়দানে ৭৮ জন মুসলিম প্রার্থীকে মাঠে নামানো হয়েছে। এই সংখ্যাটাই ২০১৯ সালে ছিল ১১৫।

২০১৯ সালে, ২৬ জনের মতো মুসলিম প্রার্থী সাংসদ হিসাবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন
তাদের মধ্যে কংগ্রেস ও টিএমসি থেকে চারজন, বিএসপি ও এসপি থেকে তিনজন এবং এনসিপি ও সিপিআই(এম)-এর একজন করে। অন্যরা আসামের এআইইউডিএফ, তৎকালীন লোক জনশক্তি পাসওয়ান, আইইউএমএল এবং জম্মু-কাশ্মীরের ন্যাশনাল কনফারেন্সের।

এদিকে, বিএসপি ২০২৪-এর লোকসভা নির্বাচনে সর্বোচ্চ ৩৫ জন মুসলিমকে প্রার্থী করেছে। এর মধ্যে উত্তরপ্রদেশে অর্ধেকেরও বেশি, ১৭ জন রয়েছেন। মধ্যপ্রদেশের চার জন ছাড়াও, বিহার ও দিল্লিতে তিন জন, উত্তরাখণ্ডে দুই জন, এবং রাজস্থান, তামিলনাড়ু, পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খণ্ড, তেলেঙ্গানা এবং গুজরাটে একজন করে মুসলিম প্রার্থীকে ভোটযুদ্ধে মাঠে নামিয়েছে।

বিএসপি এর আগের ১৯-এর লোকসভা ভোটে ৩৯ জন মুসলিমকে প্রার্থী করেছিল। এবার উত্তর প্রদেশে বিএসপির ১৭ জন মুসলিম প্রার্থী থাকলেও, ২০১৯ সালে, রাজ্যে মাত্র ৬জন মুসলিমকে প্রার্থী করেছিল দল।

কংগ্রেস এবার লোকসভা নির্বাচনে ১৯ জন মুসলিমকে প্রার্থী করেছে। পশ্চিমবঙ্গে এই সংখ্যা ৬ , তারপর অন্ধ্রপ্রদেশ, আসাম, বিহার এবং উত্তর প্রদেশে ২ জন করে এবং কর্ণাটক, তেলেঙ্গানা ও লাক্ষাদ্বীপ কেরালা, উড়িষ্যায় একজন করে মুসলিমকে প্রার্থী করেছে দলটি।

২০১৯-এর ভোটে কংগ্রেস ৩৪ জন মুসলিমকে প্রার্থী করেছিল। তাদের মধ্যে ১০ জন বাংলায় এবং ৮ জন ইউপিতে। এর মধ্যে জিতেছে মাত্র চারটি আসনে। কিন্তু, কংগ্রেস ২০১৯ সালের তুলনায় প্রায় ১০০ টি কম আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে চলতি নির্বাচনে। ১৯-এ কংগ্রেস ৪২১টি আসনে প্রতিদ্বন্ধিতা করলেও এবার দল মাত্র ৩২৮টি আসনে লড়াইয়ে নেমেছে।

টিএমসি এবার তৃতীয় সর্বোচ্চ সংখ্যক মুসলিমকে প্রার্থী করেছে। মোট ৬ জনকে ২৪-এর লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী করেছে দলটি। এর মধ্যে ৫ জনই লড়ছেন বাংলা থেকে। এর পাশাপাশি আসামে একজন মুসলিমকে প্রার্থী করেছে দলটি। ২০১৯ সালে এই সংখ্যা ছিল ১৩।

মুসলিম সম্প্রদায়ের কাছ থেকে জোরালো সমর্থন পাওয়া সত্ত্বেও, এসপি এবার মাত্র চারজন মুসলিম প্রার্থীকে ভোটযুদ্ধে নামিয়েছে। এসপির মুসলিম প্রার্থীদের মধ্যে এখন তিনজন উত্তর প্রদেশ থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন, আর চতুর্থজন অন্ধ্র প্রদেশ থেকে লড়াইয়ের ময়দানে নেমেছেন।

আরজেডি, মুসলিম-যাদব ভোটব্যাঙ্ক সহ আরেকটি দল, এবার বিহারে দুজন মুসমিলকে প্রার্থী করেছে, ২০১৯-এ এই সংখ্যা ছিল ৫।

২০১৯ সালে, বিজেপি ৪৩৬টি আসন জুড়ে তিনজন মুসলিমকে প্রার্থী করেছিল, যার মধ্যে কেউ জেতেন নি। ২০১৪ সালে, বিজেপি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ৪২৮টি আসনে। সেবার সাতজন মুসলিমকে প্রার্থী করেছিল দলটি, সেবারও কেউ জয়ী হন নি। এবার বিজেপি ৪৪০টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে, যার মধ্যে একজন মুসলিম প্রার্থী রয়েছেন।

পাঠকের মতামত

বিজেপির হয়ে মুসলিম প্রার্থী হওয়া উচিত হয় নাই।

A R Sarker
২১ মে ২০২৪, মঙ্গলবার, ৮:০৬ পূর্বাহ্ন

ভারত থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

ভারত সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status