ঢাকা, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৫ হিঃ

প্রথম পাতা

মারা গেলেন পুতিন সমালোচক নাভালনি

মানবজমিন ডেস্ক
১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শনিবার
mzamin

রাশিয়ার সরকার বিরোধী ব্যক্তিত্ব অ্যালেক্সি নাভালনি মারা গেছেন। রাশিয়ার কেন্দ্রীয় কারাগারে চলাফেরার সময় হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, ওই অসুস্থতা থেকেই মারা যান তিনি। তার মৃত্যু নিয়ে এরইমধ্যে তদন্ত শুরু হয়েছে। এ খবর দিয়েছে আরটি।

খবরে জানানো হয়, মৃত্যুর সময় তার বয়স ছিল ৪৭ বছর। তাকে সংশোধনমূলক কেন্দ্রে রাখা হয়েছিল। মৃত্যুর আগে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন এবং পরে মারা যান। তাকে বাঁচানোর সব ধরনের চেষ্টা করা হলেও তাতে সফল হননি চিকিৎসকরা। ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকোভ বলেছেন, নাভালনির মৃত্যু কীভাবে হয়েছে তা খুঁজে বের করবেন চিকিৎসকরা।

নাভালনি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কট্টর সমালোচক হিসেবে পরিচিত ছিলেন। ২০২১ সাল থেকে নাভালনি কারাবন্দি।

বিজ্ঞাপন
উগ্রপন্থায় উসকানি ও অর্থায়ন এবং একটি উগ্রপন্থি সংগঠন প্রতিষ্ঠার দায়ে নাভালনিকে গত বছর আগস্টে ১৯ বছরের কারাদণ্ড দেয় রাশিয়ার আদালত। এরই মধ্যে তিনি প্রতারণা ও অন্যান্য অভিযোগের দায়ে সাড়ে ১১ বছর কারাভোগ করেছেন। যদিও নিজের বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছিলেন নাভালনি।
ক্রেমলিন নিশ্চিত করেছে যে, নাভালনির মৃত্যুর বিষয়ে প্রেসিডেন্ট পুতিনকে জানানো হয়েছে। মৃত্যু নিয়ে নাভালনির আইনজীবী জানান, গত বুধবার তিনি নাভালনির সঙ্গে দেখা করেছিলেন। তখন তিনি সুস্থ ছিলেন। তবে মৃত্যু নিয়ে কোনো অস্বাভাবিকতার সম্ভাবনা আছে কিনা তা নিয়ে মন্তব্য করেননি তিনি।
এদিকে নাভালনির মৃত্যুর জন্য রুশ কর্তৃপক্ষকে দায়ী করেছেন ইউরোপিয়ান কমিশনের সভাপতি উরসুলা ফন দের লিয়েন। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির দাবি, পুতিনই হত্যা করেছেন নাভালনিকে। জেলেনস্কি বলেন, স্পষ্টতই তিনি পুতিনের হাতে মারা গেছেন। আরও হাজার হাজার মানুষ পুতিনের হাতে নির্যাতিত হয়েছেন।

এক্সে বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক নাভালনির মৃত্যুকে ‘ভয়ানক খবর’ বলে আখ্যায়িত করেছেন। পোল্যান্ডের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রাডোস্ল্লা সিকোরস্কি রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা পিএপিকে বলেছেন, নাভালনি সমস্ত রাশিয়ান গণতন্ত্রের নায়ক ও প্রতীক। ইতালির পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্তোনিও তাজানি বলেন, কয়েক বছর ধরে কারাগারে নিপীড়নের পর অ্যালেক্সি নাভালনির মৃত্যুতে আমি খুবই মর্মাহত। ইইউ কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট চার্লস মিশেল বলেন, অ্যালেক্সি নাভালনি স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রের মূল্যবোধের জন্য লড়াই করেছিলেন। 

এদিকে পশ্চিমা এসব সমালোচনার জবাব দিয়েছেন রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা। তিনি বলেন, নিজেদের আচরণকেই এখন রাশিয়ার উপরে চাপিয়ে দিচ্ছে পশ্চিমারা। 

উল্লেখ্য, এর আগে ২০২০ সালে বিষপ্রয়োগের ঘটনা ঘটেছিল নাভালনির ওপরে। সে সময় চিকিৎসা নিতে জার্মানি যান তিনি। পাঁচ মাস জার্মানিতে কাটিয়ে ২০২১ সালে জানুয়ারিতে মস্কো ফেরেন তিনি। তখন তাকে আটক করা হয়। ২০১৮ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছিলেন তিনি। কিন্তু প্রতারণার দায়ে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেননি। ২০২২ সালে তার দুর্নীতি বিরোধী ফাউন্ডেশনকে ‘বিদেশি গুপ্তচর সংস্থা’ বলে ঘোষণা করে রাশিয়া। এরপর থেকেই এই সংস্থার কর্মকাণ্ডের ওপর সরকার কঠোর নজরদারি শুরু হয়। 

অ্যালেক্সি নাভালনির জন্ম ১৯৭৬ সালের ৪ঠা জুন। তিনি রাশিয়ার বুটিনে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তিনি একজন আইনজীবী, দুর্নীতিবিরোধী কর্মী এবং রাজনীতিবিদ হিসেবে রাশিয়ায় পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছিলেন।
 

পাঠকের মতামত

very sad, no never নিজেদের আচরণকেই এখন রাশিয়ার উপরে চাপিয়ে দিচ্ছে পশ্চিমারা। again says no never.

Fastboy
১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শুক্রবার, ১০:০৯ অপরাহ্ন

প্রথম পাতা থেকে আরও পড়ুন

   

প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status