ঢাকা, ১৮ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৩ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৯ মহরম ১৪৪৪ হিঃ

অনলাইন

পদ্মা সেতুর নাটবল্টু খোলায় যুবক আটক

অনলাইন ডেস্ক

(১ মাস আগে) ২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৮:৫২ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৫:৩৪ অপরাহ্ন

পদ্মা সেতুর নাটবল্টু খোলার অভিযোগে মো. বায়েজিদ (৩১) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। আজ রোববার বিকেলে রাজধানীর শান্তিনগর এলাকা থেকে ওই যুবককে আটক করা হয়।

পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সাইবার ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড রিস্ক ম্যানেজমেন্ট বিভাগের বিশেষ পুলিশ সুপার রেজাউল করিম তথ্যটি নিশ্চিত করেন এবং বলেন, তিনি কেন এই কাজ করেছেন, সেটা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।

এদিকে পদ্মা সেতুর নাটবল্টু খুলে টিকটক করা সেই টিকটকার বায়েজিদের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করবে পুলিশ বলে জানান পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) প্রধান ব্যারিস্টার মাহবুবুর রহমান।
 

প্রসঙ্গত, রোববার সোশাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। এতে দেখা যায়, এক যুবক  পদ্মা সেতুর দুটি রেলিংয়ের নাটবল্টু খুলে ফেলেন। দ্রুতই ভাইরাল হয় ভিডিওটি।
 

পাঠকের মতামত

৩০ হাজার কোটি টাকার পদ্মা সেতুর নাট বল্টু হাত দিয়ে বা রেঞ্জ দিয়ে খোলা যায় ?? এই ছেলেটিকে পুরস্কৃত করা উচিৎ কারণ বড় ধরনের বিপদের আগে ও দেশের মানুষ দের সতর্ক করেছে। শাস্তি হওয়া উচিৎ সেতু মন্ত্রীর।

আজাদ
২৮ জুন ২০২২, মঙ্গলবার, ১০:০৫ পূর্বাহ্ন

খোলা থাকতে পারে, ঢিলা থাকতে পারে, একটা বল্টু নাও লাগানো থাকতে পারে ভুলবশত, সে ক্ষেত্রে এটা একজন নাগরিক হিসাবে জানানো উচিৎ। না জানিয়ে খুলে নিয়ে খেলা করা অনুচিত। বরঞ্চ ওটাকে পারলে টাইট করে লাগিয়ে দেওয়া টাই যথাযথ কাজ ছিল। তার আগে আরো একটা কথা, ঊনার তো ওখানে দাঁড়ানো টাই অনুচিত ছিল। এখন উনার কাজ হবে দ্রুত একটা "কৃমি"-র ঔষধ খাওয়া যে গুলি নাড়া দেওয়াতে উনি এই কাজ টা করেছেন এবং আফশোস করা এই কাজ টা করার জন্য। "ভাবিয়া করিও কাজ - করিয়া ভাবিও না", মনে হয় এই প্রবাদ বাক্যটি উনি অনুধাবন করেন নি।

shameem Hassan
২৭ জুন ২০২২, সোমবার, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ন

কাগজে লিখ নাম কাগজ ছিড়ে যাবে ব্যানারে লিখ নাম ব্যানার মুছে যাবে রিদয়ে লিখ নাম সে নাম ভূলে যাবে পদ্মার নাট বল্টুতে দিলে হাত আটক হয়ে যাবে।

জামশেদ পাটোয়ারী
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ১১:২৭ অপরাহ্ন

বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে যে সেতু করা হয়েছে, কোন যন্ত্রপাতি ছাড়াই কি করে তার নাট বল্টু খোলা যায় সেটা একটা বিশ্বয়! এটা কি নির্মানজনিত ত্রুটি নাকি কাজে গাফিলতি! ধন্যবাদ ছেলেটাকে, এই ত্রুটি দৃষ্টিগোচরে আনার জন্য। পুরো সেতুর নির্মান প্রক্রিয়াটাই এখন প্রশ্নের মুখে!

মহিন
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ১০:৪৭ অপরাহ্ন

Please take necessary action of the violence occurring people in this regard .

Md. Manjur Hussain
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৯:৪৮ অপরাহ্ন

এই যুবককে শুধু শুধুই হয়রানি করা হচ্ছে। এটা বাড়াবাড়ি। সে খোলা নাট-বল্টুর বিষয়টা সবার নজরে এনে কি ভুল করেছে? এই জন্য যুবককে তিরস্কার নয়, বরং প্রশংসা করা উচিত ছিল। একটা পুলিশি আর আতংকের রাষ্ট্রেই স্বাভাবিক বিষয়গুলাকে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করা হয়; মানুষের স্বাভাবিক জীব-যাত্রাকে ব্যহত করার জন্য।

নাম অপ্রকাশিত
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৯:৪২ অপরাহ্ন

ওর নাট-বল্টু সব ঠিকঠাক আছে কিনা , ভালো করে চেক করা আবশ্যক।

abdul mannan
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৯:২৯ অপরাহ্ন

ওই যুবকের হাতে কোন স্পেনার ছিল না তাহলে কি করে সে নাট বল্টু খুলল? নিশ্চয়ই এখানে কাজের গাফিলতি ছিল ।।। যারা কাজে গাফিলতি করেছে তাদেরকে শাস্তির আওতায় আনা হোক । এবং এই যুবককে জাতীয় পুরস্কার দেয়া হোক

Imran
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৬:১২ অপরাহ্ন

The person should be rewarded if actually he removed the nut using his fingers! Those who wants to punish the man should be shame of their ill actions against him.

Liaquat A. Khan
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৪:৪৯ অপরাহ্ন

I read somewhere else that the accused person used his bare hands to remove the nuts meaning that the nuts were not tightened properly with proper torque. Therefore, if anyone who should be blamed and arrested are the contractor/subcontractors and the QA/QC inspectors of the bridge authority. Everyone should note that the bridge authority is supposed to accept the bridge from the contractor only after all the tasks are performed by the contractor according to the specifications including tightening all the nuts and the bolts on the bridge. It appears in this case that both the contractor and the bridge authority did not do their jobs right, and therefore, they are at fault as well.

Nam Nai
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ১২:৪৯ অপরাহ্ন

সরকার আগেই ঘোষনা দিয়েছিল, পদ্মাসেতুর উপর থামা যাবে না । 24 ঘন্টা পুলিশের টহল জারি রাখতে হবে । ডিউটি রত পুলিশের গাড়ি ২৪ ঘন্টা সেতুর বিভিন্ন পয়েন্ট এ অবস্থান করতে হবে । বাংলাদেশের কিছু লোক ষড়যন্ত্র ছাড়াও Fun করে ক্ষতিকর কর্মকাণ্ড করবে । NO STANDING BY PARKING VEHICLE ON BRIDGE, Unless an accident or mechanical trouble of vehicle.

Kazi
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন

দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দেওয়া হউক।

Kazi
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ১১:২৭ পূর্বাহ্ন

The work was made superficial as it can deburr without instruments

Rahman
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৯:৪৮ পূর্বাহ্ন

এই ঘটনা এই সোনার বাংলায় না হয়ে পৃথীবির অন্য কোথাও হলে সেতুর কাজের দায়ীত্বে জিনি ছিলেন ওনি গ্রেফতার হতেন।কারন এই লোক মেসিন দিয়ে খুলে নাই হাতে খোলছে। সে চুরি করে ও নিয়ে জায় নাই।কাজের ত্রুটিটা ওর মাধ্যমে জাতি জানল।এইটা কোন আইনে অপরাধ আমি বোঝলাম না

ফরিদ আহম্মেদ
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৯:৩১ পূর্বাহ্ন

পিলারের সঙ্গে বার বার ফেরির ধাক্কা কে আরো গুরুত্ব দেওয়া দরকার ছিল। নাট বল্টু খোলাও অতি গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করা উচিত। হালকা ভাবে নেওয়া ঠিক হবে না। এই সেতু সারাদেশের কোটি কোটি মানুষের বহু সাধনর,স্বপ্নের সেতু, হৃদয়ের সেতু হলেও কিছু মানুষের বা অমানুষের চোখের কাঁটা। তা যেন আমরা ভুলে না যাই।

নূর মোহাম্মদ এরফান
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৯:০৬ পূর্বাহ্ন

Screw যে খুলেছে তাকে গ্রেফতার না করে , screw যে লাগিয়েছে তাকে গ্রেফতার করা উচিৎ ছিলো। হাত দিয়ে ঘুরিয়ে screw খোলা যায় , অবিশ্বাস্য !!!

Mahmud
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৮:৫৫ পূর্বাহ্ন

I read somewhere else that the accused person used his bare hands to remove the nuts meaning that the nuts were not tightened properly with proper torque. Therefore, if anyone who should be blamed and arrested are the contractor/subcontractors and the QA/QC inspectors of the bridge authority. Everyone should note that the bridge authority is supposed to accept the bridge from the contractor only after all the tasks are performed by the contractor according to the specifications including tightening all the nuts and the bolts on the bridge. It appears in this case that both the contractor and the bridge authority did not do their jobs right, and therefore, they are at fault as well.

Nam Nai
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৮:৪৮ পূর্বাহ্ন

KI ASCORJO HAT DEAE NUT BOLTO KOLE FELLO.JARA NUT BOLTOR DAETTE CELO TADER BIRIDDE AGE BEBOCTA NEOA OCET.GAFELOTER AKTA SIMA TAKA DOEKER.

SAMIULLAH
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৮:৪৪ পূর্বাহ্ন

ওর নাট-বল্টু সব ঠিকঠাক আছে কিনা , ভালো করে চেক করা আবশ্যক। তবে সস্তা ভাইরাল হ‌ওয়ার আশায়‌ও এমনটা করে থাকতে পারে।

রুহুল আমীন যাক্কার
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৮:৩২ পূর্বাহ্ন

যারা এতো নিম্নমানের কাজ করলো তাদেরকে গেরেফতার না করে যে মানুষটা তা দেখিয়ে দিলো তাকে গেরেফতার করলো

Morshed Bhuiyan
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৮:৩২ পূর্বাহ্ন

একজন মানুষ আঙ্গুল দিয়ে নাট বল্টু খুলে ফেল্ল। এটা অসম্ভব। কেউ ওটা আগে থেকেই ঢিলা করে রেখেছিল। যদি তাই হয়। সি সি টি ভি ক‍্যমেরা কি অকার্জ‍্যকর? তাও যদি না হয় তবে সিসিটিভি পর্য‍্যবেক্ষন ব‍্যক্তি কি অযোগ‍্য? এটাও যদি সঠিক না হয়, তা' হলে একটা উদ্দেশ‍্যভমুলক ষড়যন্ত্র। বি এন পি ছাড়া আর কাকে দোষ দেওয়া যায় বলুন?

মোয়াজ্জেম হোসেন
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৮:২৮ পূর্বাহ্ন

টিকটক বাংলাদেশে একটা আতংকের নাম ৷ ভাইরাল হওয়ার জন্য কি না করছে ৷

Titu Meer
২৬ জুন ২০২২, রবিবার, ৮:০৪ পূর্বাহ্ন

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status