ঢাকা, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শুক্রবার, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১২ শাবান ১৪৪৫ হিঃ

প্রবাস

লন্ডনে যুক্তরাজ্য বিএনপি’র  সংবাদ সম্মেলন

আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরাই প্রধান বিচারপতির বাসায় হামলা চালিয়েছে

খালেদ মাসুদ রনি, যুক্তরাজ্য থেকে

(৩ মাস আগে) ১ নভেম্বর ২০২৩, বুধবার, ২:২৭ অপরাহ্ন

mzamin

বাংলাদেশের পরিস্থিতি নিয়ে লন্ডনে তাৎক্ষণিক সংবাদ সম্মেলন করেছে যুক্তরাজ্য বিএনপি। নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন, বিএনপি’র চেয়ারপারসনের মুক্তি, মামলা-হামলা ও ষড়যন্ত্র বন্ধ, ক্ষমতাসীনদের দুর্নীতি, লুটতরাজ, বিএনপি’র সমাবেশে হামলা, নিত্যপণ্যের লাগামহীন মূল্য বৃদ্ধি, মহাসচিবসহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দকে  হয়রানিমূলক গ্রেপ্তার, নেতাকর্মীদের বাসা বাড়িতে হামলা ভাংচুর ও হত্যাযজ্ঞের প্রতিবাদে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির নেতারা বলেন, আমাদের দলের উপর দায় চাপাতে  আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বিচারপতির বাসায় হামলা ও পুলিশকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। আওয়ামী লীগ-আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মিলে আগুন সন্ত্রাস চালিয়ে যাচ্ছে। বিএনপির নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করে ভোট ডাকাতির মাধ্যমে তারা আবারও ক্ষমতায় যেতে চায়।

 মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭ টায় ব্রিকলেইনের একটি রেস্টুরেন্টে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। যুক্তরাজ্য বিএনপি’র সভাপতি ও বিএনপি’র চেয়ারপারসনের অন্যতম উপদেষ্টা এম এ মালিকের সভাপতিত্বে প্রেস ব্রিফিং পরিচালনা করেন যুক্তরাজ্য বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক ও জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য কয়ছর এম আহমদ।

 লিখিত বক্তব্যে তারা বলেন, বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বলেছেন ‘’সারা দেশের রাজপথ-রেলপথ-নৌপথে সর্বাত্মক অবরোধ শুরু হয়েছে। একটি সুন্দর এবং নিরাপদ ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে যারা কষ্ট এবং প্রতিকূলতা সত্ত্বেও  অবরোধ সফল করছেন তাদেরকে গণতন্ত্রকামী জনগণের পক্ষ থেকে অভিনন্দন জানাই। আন্দোলনকে বানচাল করতে সরকার মিথ্যাচার অপপ্রচারের আশ্রয় নিয়েছে। অতীতের মতো তারা নিজেরাই নাশকতা আশ্রয় নিয়ে গণতন্ত্রকামী জনগণকে ফাঁসানোর অপকৌশলে লিপ্ত হয়েছে।’

 

প্রেস ব্রিফিংয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধে প্রবাসীরা যেভাবে আর্থিকসহ সর্বাত্মক সহযোগিতা করেছিলেন ঠিক একইভাবে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে হাসিনার বিরুদ্ধে চলমান আন্দোলনে নির্যাতিতদের সহায়তায় প্রবাসীদের এগিয়ে আসার আহবান জানানো হয়।  যুক্তরাজ্য বিএনপির প্রতিটি নেতাকর্মী নির্যাতিত নেতাকর্মীদের সাধ্যমত সহযোগিতার দৃঢ় অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন।

 

২৮ অক্টোবরের বিএনপির শান্তিপূর্ণ মহাসমাবেশে ছাত্রলীগ, যুবলীগ এবং আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কিছু অতি উৎসাহী সদস্য পরিকল্পিতভাবে হামলা করেছে। পুলিশের দায়িত্ব হলো শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষা করা।

বিজ্ঞাপন
কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা দেখেছি পুলিশের কিছু সদস্য  গুলি, সাউন্ড গ্রেনেড, টিয়ার সেল নিক্ষেপের মাধ্যমে বিএনপির সমাবেশে হামলা করেছে।  

সোশ্যাল মিডিয়াতে ইতিমধ্যে প্রকাশিত হয়েছে যে, শনিবার কাকরাইল-নয়াপল্টনে বিএনপি নেতাকর্মীদের পুলিশ যখন বেধড়ক লাঠিপেঠা করছিলো, তখন পুলিশের উচ্চ পর্যায় থেকে বারবার জানতে চাওয়া হয়েছিল গির্জা বা মন্দিরে হামলা হয়েছে কি-না। ভোটারবিহীন আরেকটি নির্বাচন আয়োজনের জন্য বিএনপির ২৮ অক্টোবরের মহাসমাবেশ থেকে আজ পর্যন্ত সকল হত্যাকাণ্ড ও নৈরাজ্য তৈরি করা অবৈধ ফ্যাসিবাদী সরকারের মাস্টার প্ল্যান।

সরকারের পেটোয়া বাহিনী ও আওয়ামী সন্ত্রাসী গুন্ডাদের বিরুদ্ধে দেশের জনগণ যেভাবে স্বতঃস্পুর্ত হরতাল ও অবরোধ পালন করছে তার জন্য যুক্তরাজ্য বিএনপি প্রবাসীদের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। যুক্তরাজ্য বিএনপি সাধ্যমত দেশে হামলা, মামলা ও নির্যাতনের শিকার নেতৃবৃন্দের  পাশে থাকবে এই অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

 

 প্রেস ব্রিফিংয়ে বলা হয়, বিএনপির চলমান শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে অস্ত্রসজ্জিত পুলিশ যে তাণ্ডবলীলা চালাচ্ছে, এটি কোনো সংঘর্ষ নয়, সুস্পষ্ট মানবাধিকার লঙ্ঘন। লক্ষ লক্ষ গণতন্ত্রকামী মানুষের বিরুদ্ধে মুষ্টিমেয় কিছু অস্ত্রধারীর এই মানবাধিকার লঙ্ঘন দেশে-বিদেশে ধিকৃত হচ্ছে। বিএনপির নিরস্ত্র নেতা-কর্মীদের উপর পরিকল্পিত আক্রমণ চালাচ্ছে পুলিশ, র‍্যাব, বিজিবির একটি  অংশ। যৌথভাবে আওয়ামী লীগ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী চালিয়ে যাচ্ছে আগুন সন্ত্রাস, পোড়াচ্ছে একের পর এক যানবাহন ও স্থাপনা। তাদের লক্ষ্য সবার কাছে পরিষ্কার, নিজেরা নানা দেশবিরোধী অঘটন ঘটিয়ে বিএনপির  নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে গায়েবি মামলার প্রহসণমূলক গ্রেপ্তার ও রায় নিশ্চিত করা।

 

কিন্তু অবৈধ সরকারের এই এজেন্ডা এবার বাস্তবায়ন করতে দেয়া হবে না। আমাদের নেতা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমান ইতিমধ্যে নেতৃত্বের বিভিন্ন স্তর নির্ধারণ করে দিয়েছেন। একজন  গ্রেপ্তার হলে অন্যজন দায়িত্ব পালন করবেন। তাই হামলা-মামলা ও গ্রেপ্তার করে এই আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না। আওয়ামী ফ্যাসিবাদ এই আন্দোলনে হারবেই।

 

প্রেস ব্রিফিংয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এনিসহ সকল নেতা-কর্মীর নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করে সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানানো হয়। বিএনপির চেয়ারপারসন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি এবং বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সকল মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানানো হয়।

 

বিএনপির স্থায়ীকমিটির সদস্যসহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দ এবং দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের বাসা বাড়িতে হামলা ও নির্যাতনের তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। এই তান্ডব বন্ধ করে শেখ হাসিনা পদত্যাগ করে নির্দলীয় সরকার গঠন না করলে দেশের জনগণ এর পুরো হিসেব আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীদের কাছ থেকে করায় গন্ডায় আদায় করবে বলে হুঁশিয়ারি  দেয়া হয় এই সম্মেলনে। দেশের জনগণের পাশাপাশি প্রবাস থেকেও আওয়ামী ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত কর হয়।

 

সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস-ব্রিফিংয়ে দেওয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে এম এ মালেক বলেন, এখন থেকে দুর্নীতিবাজ আর গণতন্ত্র হত্যাকারী  কোন নেতা লন্ডনে আসলে তাকে দিগম্বর করা হবে। সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমার ফাঁসি চাই বই দিয়ে আমরাও ফ্লিম বানাবো। তিনি বলেন, যে গণতন্ত্র হত্যা করেছে তার অধীনে নির্বাচনে যাওয়ার প্রশ্নই উঠে না। ওরা আবার নিশিরাতে ভোট করতে চায়, সেই স্বপ্ন বাস্তবে  হতে দিবে না বিএনপি। নভেম্বরের ভিতরে ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য করা হবে। তিনি বলেন,২৮ তারিখ বিচারপতির বাসার সামনে পুলিশ থাকার কথা ছিলো, কিন্তু রহস্য জনক কারণে হামলার সময় পুলিশ ছিলো না। কারণ ছাত্রলীগ-যুবলীগকে হামলা করার সুযোগ দেয়া হয়েছে।

 

 ব্রিফিংয়ে আরো উপস্থিত ছিলেন , যুক্তরাজ্য  বিএনপির সহ-সভাপতি মুজিবুর রহমান মুজিব, আলহাজ্ব তৈমুছ আলী, তাজুল ইসলাম, কাজী ইকবাল হোসেন দেলোয়ার, আতিকুর রহমান চৌধুরী পাপ্পু, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক পারভেজ মল্লিক, গোলজার আহমেদ, ডক্টর মুজিবুর রহমান (দপ্তরের দায়িত্বে), আজমল হোসেন চৌধুরী জাবেদ, সিনিয়র সদস্য এমদাদ হোসেন টিপু, সেলিম আহমেদ( সহ-দপ্তরের দায়িত্বে),

জাসাসের সাবেক সভাপতি এম এ সালাম,  কেন্দ্রীয় যুবদলের  সদস্য ও যুক্তরাজ্য  যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন, কার্ডিফ বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোঃ রফিকুল ইসলাম, লন্ডন মহানগর বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ চৌধুরী, যুক্তরাজ্য  বিএনপির সহ-প্রচার সম্পাদক মইনুল ইসলামসহ অনেকে।

প্রবাস থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

প্রবাস সর্বাধিক পঠিত

কারী লাইফ অ্যাওয়ার্ডস ও গালা ডিনার/ যুক্তরাজ্যের সেরা শেফ ও রেস্টুরেটার্সদের সম্মাননা

মাল্টা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন/ কাউসার সভাপতি, রাজীব সম্পাদক

লন্ডনে যুক্তরাজ্য বিএনপি’র  সংবাদ সম্মেলন/ আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরাই প্রধান বিচারপতির বাসায় হামলা চালিয়েছে

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2023
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status