ঢাকা, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, শুক্রবার, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১২ শাবান ১৪৪৫ হিঃ

খেলা

তবুও রিয়ালকে ফেভারিট মানছেন জাভি ভাগ্যের দোষ দিলেন আনচেলত্তি

স্পোর্টস ডেস্ক
৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার
mzamin

লা লিগা টেবিলে বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদের পয়েন্টের ব্যবধান বাড়ছে দিনদিন। রোববার রাতে শীর্ষে থাকা বার্সার সঙ্গে ব্যবধান কমানোর সুযোগ ছিল রিয়ালের। তবে মায়োর্কার কাছে হেরে যায় লস ব্লাঙ্কোরা। আর রাতের অন্য ম্যাচে সেভিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়ে শীর্ষস্থান আরও মজবুত করে ব্লাউগ্রানারা। পরিস্থিতি অনুকূলে থাকলেও নিজেদের নয়, রিয়াল মাদ্রিদকে ফেভারিট মানছেন বার্সেলোনা কোচ জাভি হার্নান্দেজ। ঘরের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকেই দাপুটে পারফরম্যান্স দেখায় বার্সেলোনা। তবে প্রথমার্ধে জালের দেখা পায়নি স্বাগতিকরা। বিরতির পর ৫৮তম মিনিটে সেভিয়ার ডেডলক ভাঙেন বার্সার স্প্যানিশ ডিফেন্ডার জর্ডি আলবা। ৭০তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন আরেক স্প্যানিয়ার্ড গাভি। তার ৯ মিনিট পর স্কোরলাইন ৩-০ করেন ব্রাজিলিয়ান তারকা রাফিনহা।

বিজ্ঞাপন
২০ ম্যাচে ১৭ জয় ও ১ হারে ৫৩ পয়েন্ট নিয়ে স্প্যানিশ লা লিগা টেবিলের শীর্ষে বার্সেলোনা। সমান ম্যাচে ৪৫ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে রিয়াল মাদ্রিদ। অর্থাৎ, লস ব্লাঙ্কোদের চেয়ে ৮ পয়েন্টে এগিয়ে ব্লাউগ্রানারা। ম্যাচ শেষে বার্সা কোচ জাভি হার্নান্দেজ বলেন, ‘তারা (রিয়াল মাদ্রিদ) এখনও ফেভারিট। লা লিগা এবং চ্যাম্পিয়নস লীগে এখনও রাজত্ব করছে তারা। নিজেদের ফেভারিট মনে করছি না আমি। শুধু শিরোপার দাবিদার মানতে পারি।’ লা লিগায় বার্সেলোনা এবং রিয়াল মাদ্রিদের এখনও সমান ১৮টি করে ম্যাচ বাকি। জাভি মনে করেন বাকি ম্যাচগুলোতে প্রত্যাবর্তন এবং এগিয়ে যাওয়ার পূর্ণ চেষ্টা করবে রিয়াল। তিনি বলেন, ‘আমরা জানি যে, শেষ পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাবে রিয়াল মাদ্রিদ। প্রত্যাবর্তনের ঐতিহাসিক নজির রয়েছে তাদের। আমাদের আনন্দে আত্মহারা হওয়ার কিছু নেই। তবে ভালো দিক হলো আমরা সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছি।’ জাভি বলেন, ‘আমি জানি না যে, আমরা সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য দল কি না। তবে আমরা দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছি। লা লিগা খুব লম্বা প্রতিযোগিতা। মনোযোগ দিয়ে কাজ করে যেতে হবে আমাদের।’ মায়োর্কার বিপক্ষে ম্যাচজুড়ে রিয়াল মাদ্রিদের দখলে ছিল দুই তৃতীয়াংশ বল। লস ব্লাঙ্কোদের গোলমুখী প্রচেষ্টা ছিল ২০টি। তবে অন টার্গেটে থাকে মাত্র ১টি শট। শুরুতেই আত্মঘাতী গোলে পিছিয়ে পড়া রিয়াল পেনাল্টিও পেয়েছিল। তবে ম্যাচে ফেরার সুবর্ণ সুযোগ মিস করে রিয়াল। রোববার রাতে মায়োর্কার মাঠ আইবেরোস্টার স্টেডিয়ামে লা লিগার ম্যাচটি ১-০ গোলে হারে রিয়াল। দলের পরাজয়ে রিয়াল কোচ কার্লো আনচেলত্তির বলেন, ভাগ্য সহায় হয়নি তাদের। ম্যাচের ১৩তম মিনিটে দুর্ভাগ্যবশত পিছিয়ে পড়ে রিয়াল মাদ্রিদ। মায়োর্কার আক্রমণ প্রতিহত করতে নিজেদের জালেই বল পাঠিয়ে দেন রিয়ালের স্প্যানিশ ডিফেন্ডার নাচো। এরপর অনেক প্রচেষ্টায়ও গোলের সুযোগ পাচ্ছিল না রিয়াল। ৬০তম মিনিটে পেনাল্টি পায় লস ব্লাঙ্কোরা। তবে স্পটকিকে ব্যর্থ হন দলটির স্প্যানিশ উইঙ্গার মার্কো আসেনসিও। দাপুটে পারফরম্যান্স এবং পেনাল্টি থেকেও গোল না পেয়ে হতাশা প্রকাশ করেন রিয়াল কোচ আনচেলত্তি। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, এটা কঠিন ম্যাচ ছিল। জানতাম, এটি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ খেলা হবে। আমরাও যথেষ্ট ভাগ্যবান ছিলাম না। পরিকল্পনা অনুসারে খেলতে পারিনি। ম্যাচের শুরুতেই তারা এগিয়ে যায়। এরপর খেলায় ফেরা কঠিন ছিল।’ আনচেলত্তি বলেন, ‘দুই দলই শেষ পর্যন্ত লড়াই করেছে। আমরা ম্যাচ ড্র করার যোগ্য ছিলাম। তবে আমরা পেনাল্টি মিস করি। ভালো কিছু সুযোগ তৈরি করেছিলাম আমরা। ম্যাচটা যেমনভাবে খেলা উচিত ছিল, সেভাবেই খেলেছি।’ শুরুতেই এগিয়ে যাওয়ায় রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে বেশ রক্ষণাত্মক খেলে মায়োর্কা। আনচেলত্তি বলেন, ‘ম্যাচে আমাদের মুভমেন্ট বাড়াতে হবে। পিছিয়ে পড়ার পর আমরা পেনাল্টি পাই। তাদের রক্ষণাত্মক খেলার মোকাবিলায় সুযোগ তৈরি করা সহজ ছিল না। আমি মনে করি, সর্বোচ্চ চেষ্টাটা করেছি আমরা। তবে ফল পাইনি।’ মায়োর্কার বিপক্ষে ম্যাচে ছিলেন না রিয়াল মাদ্রিদের সেরা তারকা করিম বেনজেমা। শুরুর একাদশে ছিলেন না দুই সিনিয়র মিডফিল্ডার টনি ক্রুস এবং লুকা মদরিচ।  ৬৪তম মিনিটে ফেদে ভালভারদের বদলি হিসেবে নামেন মদরিচ। আর ৭১তম মিনিটে অরলিয়েন চুয়ামেনির সাব হন ক্রুস। যে কারণে ৬০তম মিনিটে পাওয়া পেনাল্টি নেয়ার প্রার্থী ছিলেন শুধু আসেনসিও এবং রদ্রিগো। ম্যাচ শেষে আনচেলত্তিকে প্রশ্ন করা হয়, রদ্রিগোকে পেনাল্টি নিতে না দিয়ে কেন আসেনসিওকে বেছে নিলেন তিনি? আনচেলত্তি বলেন, ‘আমি আসেনসিওকে পেনাল্টি নিতে বলি। কারণ বেনজেমা, মদরিচ কিংবা ক্রুস মাঠে ছিল না। পেনাল্টি টেকার ছিল শুধু আসেননিও এবং রদ্রিগো। আমরা মনে করেছিলেন, বিশ্বকাপে পেনাল্টি মিস করায় রদ্রিগো হয়তো মানসিকভাবে কিছুটা বিপর্যস্ত।’ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বাদ পড়ে ব্রাজিল। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে টাইব্রেকার পরীক্ষায় ব্যর্থ হয় সেলেসাওরা। কাতার আসরের সেই ম্যাচে ব্রাজিলের হয়ে প্রথম পেনাল্টি মিস করেন রদ্রিগো।

খেলা থেকে আরও পড়ুন

   

খেলা সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2023
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status