ঢাকা, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৫ রজব ১৪৪৪ হিঃ

প্রথম পাতা

সংসদে শীর্ষ ২০ ঋণখেলাপির তালিকা প্রকাশ

স্টাফ রিপোর্টার
২৫ জানুয়ারি ২০২৩, বুধবার

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সংসদে জানিয়েছেন, দেশে মোট ঋণখেলাপির সংখ্যা ৭ লাখ ৮৬ হাজার ৬৫ জন। এরমধ্যে শীর্ষ ২০ ঋণখেলাপির কাছে প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকা পাওনা রয়েছে। এরমধ্যে খেলাপি ঋণ ১৬ হাজার ৫৮৭ কোটি  ৯২ লাখ টাকা। গতকাল জাতীয় সংসদ অধিবেশনে এ তথ্য উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনে এ সংক্রান্ত প্রশ্নটি উত্থাপন করেন সরকারি দলের সংসদ সদস্য শহীদুজ্জামান সরকার। লিখিত জবাবে মন্ত্রী দেশের মোট ঋণখেলাপির সংখ্যা ও শীর্ষ ২০ জনের তালিকা তুলে ধরেন। ওই ২০ জনের মোট ঋণের পরিমাণ ১৯ হাজার ২৮৩ কোটি ৯৩ লাখ টাকা। মন্ত্রীর দেয়া তথ্য অনুযায়ী, শীর্ষ ২০ ঋণখেলাপির মধ্যে সিএলসি পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেডের ঋণের স্থিতি এক হাজার ৭৩২ কোটি ৯২ লাখ টাকা। তাদের খেলাপি ঋণ এক হাজার ৬৪০ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড লিমিটেডের ঋণের স্থিতি এক হাজার ৮৫৫ কোটি ৩৯ লাখ টাকা।

বিজ্ঞাপন
তাদের খেলাপি ঋণ এক হাজার ৫২৯ কোটি ৭৪ লাখ টাকা। রিমেক্স ফুটওয়্যার লিমিটেডের ঋণের স্থিতি এক হাজার ৭৭ কোটি ৬৩ লাখ টাকা। এদের পুরোটাই খেলাপি ঋণ। রাইজিং স্টিল কোম্পানি লিমিটেডের ঋণের স্থিতি এক হাজার ১৪২ কোটি ৭৬ লাখ টাকা।

 তাদের খেলাপি ঋণ ৯৯০ কোটি ২৮ লাখ টাকা। মোহাম্মদ ইলিয়াস ব্রাদার্স (প্রা.) লিমিটেডের ঋণের স্থিতি ৯৬৫ কোটি ৬০ লাখ টাকা। তাদের পুরোটাই খেলাপি ঋণ। মন্ত্রী জানান, রুপালি কম্পোজিট লেদার ওয়্যার লিমিটেডের স্থিতি ও খেলাপি ঋণের পরিমাণ একই। তাদের খেলাপি ঋণ ৮৭৩ কোটি ২৯ লাখ টাকা। ক্রিসেন্ট লেদারস প্রডাক্ট লিমিটেডের স্থিতি ও খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৮৫৫ কোটি ২২ লাখ টাকা। কোয়ান্টাম পাওয়ার সিস্টেমস লিমিটেডের স্থিতি ও খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৮১১ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। সাদ মুসা ফেব্রিক্স লিমিটেডের ঋণের স্থিতি এক হাজার ১৩১ কোটি ৮৩ লাখ টাকা। তাদের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৭৭৬ কোটি ৬৩ লাখ টাকা। বি আর স্পিনিং মিলস লিমিটেডের স্থিতি ও খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৭২১ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। মন্ত্রী আরও জানান, এস.এ অয়েল রিফাইনারি লিমিটেডের ঋণের স্থিতি এক হাজার ১৭২ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। তাদের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৭০৩ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। মাইশা প্রপার্টি ডেভেলমেন্ট লিমিটেডের ঋণের স্থিতি ৬৮৬ কোটি ১৪ লাখ টাকা। তাদের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৬৬৩ কোটি ১৮ লাখ টাকা। রেডিয়াম কম্পোজিট টেক্সটাইল লিমিটেডের ঋণের স্থিতি ৭৭০ কোটি ৪৮ লাখ টাকা। 

তাদের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৬৬০ কোটি ৪২ লাখ টাকা। সামান্নাজ সুপার অয়েল লিমিটেডের ঋণের স্থিতি এক হাজার ১৩০ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। তাদের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৬৫১ কোটি ৭ লাখ টাকা। মানহা প্রিকাস্ট টেকনোলজি লিমিটেডের ঋণের স্থিতি ও খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৬৪৭ কোটি ১৬ লাখ টাকা।  আশিয়ান এডুকেশন লিমিটেডের ঋণের স্থিতি ৬৫৩ কোটি টাকা। তাদের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৬৩৫ কোটি ৯৪ লাখ টাকা। এস.এম স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেডের ঋণের স্থিতি ৮৮৮ কোটি ৭১ লাখ টাকা। তাদের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৬৩০ কোটি ২৬ লাখ টাকা। অ্যাপোলো ইস্পাত কমপ্লেক্স লিমিটেডের ঋণের স্থিতি ৮৭২ কোটি ৭২ লাখ টাকা। তাদের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৬২৩ কোটি ৩৪ লাখ টাকা। এহসান স্টিল রি-রোলিং লিমিটেডের ঋণের স্থিতি ৬২৪ কোটি ২৭ লাখ টাকা। তাদের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৫৯০ কোটি ২৩ লাখ টাকা এবং সিদ্দিকী ট্রেডার্স-এর ঋণের স্থিতি ৬৭০ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। তাদের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৫৪১ কোটি ২০ লাখ টাকা।

 

পাঠকের মতামত

এর আগে প্রকাশ করা হয়েছিল ৩০০ জনের তালিকা এইবার সেটা ছোট হয়ে ২০ জনের হয়ে গেলো। বাকি ২৮০ জনের কি অবস্থা?

Shital
২৫ জানুয়ারি ২০২৩, বুধবার, ৭:৪১ অপরাহ্ন

এরা কারা জানেন..এখানেও দলবাজির স্বাক্ষর!

Suprovat--
২৫ জানুয়ারি ২০২৩, বুধবার, ১০:৫৩ পূর্বাহ্ন

"গোলাপি এখন ট্রেনে" আছেন আমার মুক্তার, আছেন আমার ব্যারিস্টার ! ঋণ খেলাপির খপ্পর থেকে তিনিই আমায় করবেন পার। আমি খেলাপি তিনি বাটপার ! আমি খেলাপি তিনি বাটপার !! দেশের টাকা লুটে নিতে তিনি আমায় করছেন ব্যাবহার, আমি কেবল হাড্ডি খাইছি মাংস তার খুব দরকার... মাংস তার খুব দরকার !! মোনরে...... ওহহ মোনরে !! বেগম পাড়ায় থাকলে তাড়া, তিনিই হবেন ত্রান তাঁরা !! এ্যামাউন্ট দেইখা সার্টিফিকেট দিবেন, নীতি নৈতিকতার নাই কারবার !! আমি খেলাপি কিন্তু তিনি বাটপার !! আমি খেলাপি কিন্তু তিনিই বাটপার !!

ক্ষুদিরাম
২৫ জানুয়ারি ২০২৩, বুধবার, ১:৩৮ পূর্বাহ্ন

যে ২০ জন ঋণ খেলাপির নাম প্রকাশ করা হয়েছে সত্যিই এরা কোন রাজনৈতিক আদর্শবাদী নয় এরা সম্পূর্ণরূপে পেশাদার ঋণ থেরাপি এদের কাজ হল ভুয়া ব্যবসা প্রতিষ্ঠান শিল্প কারখানা ও জমিন জায়দাত দেখিয়ে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে ঋণ গ্রহণ করা পরবর্তীকালে তা এরা ভোগ বিলাসিতায় অপচয় করে কিন্তু কোন লাভজনক ব্যবসা বা শিল্প কারখানা প্রতিষ্ঠা করেনা এরা যদি দেশের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে ঋণ গ্রহণ করে বড় বড় শিল্প কারখানা প্রতিষ্ঠা করতো তাহলে অন্তত দেশের লক্ষ লক্ষ বেকার জনগণের চাকরি বাকরির ব্যবস্থা হতো। বা সাধারণ মানুষ উপার্জন করতে পারত কিন্তু তা না করে তারা ঋণের পয়সা সম্পূর্ণ ভোগ বিলাসে অপচয় করে তাই এদের স্থাবর স্থাবর সম্পত্তি ও দেশে-বিদেশে থাকা ব্যাংক হিসাব জব্দ করে সম্পূর্ণ সহায় সম্পত্তি ও অর্থকড়ি সরকারি রাজকোষে জমা করা হোক এবং এদের দেশের স্বার্থ হানির জন্য দেশদ্রোহিতার অপরাধে উপযুক্ত বিচার করা হোক।

HM Babul Chowdhury
২৫ জানুয়ারি ২০২৩, বুধবার, ১:৩৬ পূর্বাহ্ন

এই ঋণ খেলাপীরা কার সুপারিশে এত বড় অংক ঋণ নিতে সক্ষম হলো তাদের নামও প্রকাশ হওয়া দরকার। ঋণ নেয়ার পর তারা ব্যাংক এবং সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের সাথে লিয়াজোঁ মেনটেইন করে ঋণ পরিশোধ করা থেকে বিরত থাকে। ঋণের টাকায় তারা পাজেরো হাকাচ্ছে, সমাজের টপ লেভের জীবন যাপন করছে। তাদের নাম সুন্দরভাবে গোছানো আকারে প্রকাশ হওয়া দরকার। যাতে দেশের জনগণ জানতে পারে কারা এবং কাদের সহযোগীতায় এই দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করছে। যেমন : ০১। সিএলসি পাওয়ার কোম্পানি লি: ১৬৪০,৪৪,০০,০০০ টাকা ০২। ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড লি: ১৫২৯,৭৪,০০,০০০ টাকা। ০৩। রিমেক্স ফুটওয়্যার লি: ১০৭৭,৬৩,০০,০০০ টাকা। ০৪। রাইজিং স্টিল কোম্পানি লি: ৯৯০,২৮,০০,০০০ টাকা ০৫। মোহাম্মদ ইলিয়াস ব্রাদার্স (প্রা.) লি: ৯৬৫,৬০,০০,০০০ টাকা ০৬। রুপালি কম্পোজিট লেদার ওয়্যার লি: ৮৭৩,২৯,০০,০০০ টাকা ০৭। ক্রিসেন্ট লেদারস প্রডাক্ট লি: ৮৫৫,২২,০০,০০০ টাকা ০৮। কোয়ান্টাম পাওয়ার সিস্টেমস লি: ৮১১,৩৩,০০,০০০ টাকা ০৯। সাদ মুসা ফেব্রিক্স লি: ৭৭৬,৩৩,০০,০০০ টাকা। ১০। বি আর স্পিনিং মিলস লি: ৭২১,৪৩,০০,০০০ টাকা। ১১। এস.এ অয়েল রিফাইনারি লি: ৭০৩,৫৩,০০০,০০০ টাকা। ১২। মাইশা প্রপার্টি ডেভেলমেন্ট লি: ৬৬৩,১৮,০০,০০০ টাকা। ১৩। রেডিয়াম কম্পোজিট টেক্সটাইল লি: ৬৬০,৪২,০০,০০০ টাকা। ১৪। সামান্নাজ সুপার অয়েল লি: ৬৫১,৭,০০,০০০ টাকা। ১৫। মানহা প্রিকাস্ট টেকনোলজি লি: ৬৪৭,১৬,০০,০০০ টাকা। ১৬। আশিয়ান এডুকেশন লি: ৬৩৫,৯৪,০০,০০০ টাকা। ১৭। এস.এম স্টিল রি-রোলিং মিলস লি: ৬৩০,২৬,০০,০০০ টাকা। ১৮। অ্যাপোলো ইস্পাত কমপ্লেক্স লি: ৬২৩,৩৪,০০,০০০ টাকা। ১৯। এহসান স্টিল রি-রোলিং লি: ৫৯০,২৩,০০,০০০ টাকা। ২০। সিদ্দিকী ট্রেডার্স ৫৪১,২০,০০,০০০ টাকা। এখানে অনেকের নাম আসেনি, যারা আরো বড় ঋণ খেলাপী যেমন হাওলাদার, বিসমিল্লাহ গ্রুপসহ অনেকে। তাদের নাম হয়তো কৌশলে বাদ রাখা হয়েছে অথবা তাদের ইতিমধ্যে ঋণের দায় থেকে মুক্তি দেয়া হয়েছে। আর এখানে কিছু কোম্পানী আছে যারা শেয়ার মার্কেট থেকে বড় অংকের টাকা কালেকশন করেছে। তারপরও তারা কিভাবে এত বড় অংকের ঋণ পাবার যোগ্য হিসাবে বিবেচিত হলো তা জাতির জানার দরকার।

জামশেদ পাটোয়ারী
২৪ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ১১:৩১ অপরাহ্ন

Only Eye wash????

Shah
২৪ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ১০:১১ অপরাহ্ন

তাদের ঋণ পরিশোধ করতে আরও ঋণ দেয়া হোক। খুঁজতে গেলে পাওয়া যাবে এরা সবাই আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা তাই মাফ করে দেন

মোঃ মনিরুজ্জামান
২৪ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ১০:০৯ অপরাহ্ন

শুভংকরের ফাঁকি । কোম্পানির নাম ঘোষণা করা হয়েছে । জনগণ চিনতে পারবে না। ব্যক্তিগত খেলাপিদের নাম ঘোষণা করা হয় নি, কেন ? জনগণ তাদের চিনতে চায় ।

Humayun Kabir
২৪ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ৯:৪৬ অপরাহ্ন

মাত্র ২০ কোম্পানির নাম প্রকাশ করেই দায়িত্ব পালন সম্পন্ন হবে না। এদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার ব্যবসথা করে অর্থ উদ্ধারের কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। ধন্যবাদ।

S.M. Rafiqul Islam
২৪ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ৭:৪০ অপরাহ্ন

শুভংকরের ফাঁকি । কোম্পানির নাম ঘোষণা করা হয়েছে । জনগণ চিনতে পারবে না। ব্যক্তিগত খেলাপিদের নাম ঘোষণা করা হয় নি, কেন ? জনগণ তাদের চিনতে চায় ।

Kazi
২৪ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ৫:২৩ অপরাহ্ন

কি হবে নালিশ করিয়া---

Abdul Haque Mojumder
২৪ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ১১:৩৬ পূর্বাহ্ন

তাদের রাজনৈতিক পরিচয় প্রকাশ করুন

abdul wohab
২৪ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ১১:২৬ পূর্বাহ্ন

This is the Awami Government don’t compromise with legality and ethics . More name will be announced soon hopefully.

Md Anowar Hossain
২৪ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার, ১১:২৬ পূর্বাহ্ন

প্রথম পাতা থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status