ঢাকা, ১৭ মে ২০২২, মঙ্গলবার, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

খেলা

শক্তি বাড়িয়ে কলকাতায় গেল বসুন্ধরা কিংস

স্পোর্টস রিপোর্টার
১৫ মে ২০২২, রবিবার

নিজেদের ক্লাব ইতিহাসে তৃতীয়বারের মতো এএফসি কাপ মিশনে নামছে বসুন্ধরা কিংস। সে লক্ষ্যে গতকাল কলকাতার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়ে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নরা। এএফসি কাপে নিজেদের শক্তি বাড়াতে ধারে নতুন দুই বিদেশি সুদি আব্দুল্লাহ ও চিনেদু ম্যাথিউকে দলে ভিড়িয়েছে বসুন্ধরা কিংস। এই দুই ফুটবলার যুক্ত হওয়ায় কিংসকে আরও শক্তিশালী করছে বলে জানালেন দলটির স্প্যানিশ কোচ অস্কার ব্রুজোন। যদিও  কাল দলের সঙ্গে ফ্লাইটে চড়েননি ধারে যোগ দেয়া এই দুই বিদেশি ফুটবলার। দুই-একদিনের মধ্যেই তারা কলকাতায় দলের সঙ্গে যোগ দেবেন বলে জানিয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ।
আগের আসরে তিন ম্যাচের দুইটিতে ড্র এবং একটি জিতেও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি বসুন্ধরা কিংস। কোনো ম্যাচ না হেরেও বিদায় নিতে হয়েছিল বাংলাদেশের চ্যাম্পিয়নদের। কিন্তু এবার আর সে পথে হাটতে চায় না দলটি। নিজেদের পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে পারলে তিন ম্যাচই জেতার ক্ষমতা আছে কিংসের, এমন আত্মবিশ্বাস নিয়েই কলকাতায় গিয়েছে তারা। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের প্রথম পর্বে স্তোয়ান ভ্রানিয়েস নিজেকে মেলে ধরতে না পারায় আক্রমণভাগে ভুগতে হয়েছিল কিংসকে

বিজ্ঞাপন
দ্বিতীয় পর্বে তার বদলি হিসেবে গাম্বিয়ান স্ট্রাইকার নুহা মারংকে আনা হলেও চোটের কারণে এএফসি কাপে তাকে পাওয়া নিয়ে আছে সংশয়। তবে দুঃশ্চিতার কারণ নেই। এএফসি কাপের জন্য আরও দুই বিদেশিকে দলে ভিড়িয়েছে বসুন্ধরা কিংস। দ্বিতীয় পর্বে মুক্তিযোদ্ধায় যোগ দেয়া বুরুন্ডিয়ান স্ট্রাইকার সুদি আব্দুল্লাহ তিন ম্যাচে করেছেন দুই গোল। বসুন্ধরা কিংসের বিপক্ষে করেছিলেন সেই দুই গোল। সেই ম্যাচে তার পারফরম্যান্সে মুগ্ধ হয়েই তাকে এএফসি কাপের জন্য ধারে দলে নিয়েছে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নরা। প্রথম পর্বে শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাবের হয়ে খেলা নাইজেরিয়ান মিডফিল্ডার চিনেদু ম্যাথিউ দ্বিতীয় পর্বে পাননি কোনো দল। তবুও নিজেদের শক্তি বৃদ্ধি করার জন্য ১১ ম্যাচে ৭ গোল করা এই আক্রমণাত্বক মিডফিল্ডারকে ধারে দলে টেনেছে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নরা। এই দুই ফুটবলার দলে যোগ দেয়ায় কিংসের শক্তি আরো বাড়বে বলে বিশ্বাস করেন অস্কার ব্রুজন। তবে হঠাৎ করে অন্য দল থেকে কিংসে যোগ দেয়ায় এত কম সময়ে মানিয়ে নেয়া কতটা চ্যালেঞ্জিং হবে সেই প্রশ্ন থেকেই যায়। তবে দেশ ছাড়ার আগে ব্রুজন বলেন, আমরা যখন একজন খেলোয়াড়কে দলে যোগ করি তখন সে আমাদের চাহিদাগুলো জানে এবং সেগুলোর সঙ্গে মানিয়ে নিতে কাজ করে। সুদি এবং ম্যাথিউ আমাদের স্কোয়াড এবং বিশেষ করে আমাদের আক্রমণভাগকে শক্তিশালী করতে আমাদের সঙ্গে যোগ দিচ্ছেন।’ মাঝ মাঠ ও আক্রমণে শক্তি বাড়ালেও রক্ষণে তারিক-শাফি-ইয়াসিনদের ওপরেই ভরসা রাখছেন অস্কার। এবারের প্রিমিয়ার লীগে তপু বর্মণকে না পাওয়া এবং ডিফেন্ডাররা মাঝে মধ্যে চোটে পড়ায় খানিকটা ভুগতে দেখা গিয়েছে। কিন্তু ব্রুজন বলেন, ‘রক্ষণ নিয়ে দুঃশ্চিতার কারণ নেই। আমরা রক্ষণে ভুগিনি তবে এটা ঠিক যে উন্নতির আরো জায়গা রয়েছে। লীগে আমাদের সর্বোচ্চ ক্লিনশিট আছে এবং আমরা সবচেয়ে কম গোল খেয়েছি।’ প্রিমিয়ার লীগের ১৫তম রাউন্ড শেষে টেবিল টপার হয়েই এএফসি কাপ মিশনে নামছে বসুন্ধরা কিংস। কিন্তু এবারের লীগে অনায়াসে জিতেছে এমন ম্যাচের সংখ্যা কমই। তাই দলের পারফরম্যান্স কতটুকু স্বস্তি দিচ্ছে এমন প্রশ্নে ব্রুজন বলেন, ‘দলের পারফরম্যান্স বলতে গেলে পুরো বিপিএল জুড়ে ধারাবাহিক নয়। তবে এতে আমি অস্বস্তিতে নেই। কিন্তু প্রতিটা খেলোয়াড়ই ভালো করার জন্য ক্ষুধার্ত এবং মাঠে নামার সুযোগ পেলে সেরাটা দেয়ার জন্য তৈরি। লীগের সেরা দল হয়েই এএফসি কাপে যাচ্ছি। এটা অবশ্যই আপনাকে স্বস্তি দেবে।’ বসুন্ধরা কিংসের ক্লাব ইতিহাসে এএফসি কাপের প্রথম আসরে এক ম্যাচ পরে কোভিড-১৯ এর কারণে টুর্নামেন্ট বাতিল হয়। আর গত আসরে গ্রুপ পর্বে কোনো ম্যাচ না হেরেও বিদায় নিতে হয়েছিল বসুন্ধরা কিংসকে। এবারো বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নদের লক্ষ্য গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়া। কিন্তু তা চ্যালেঞ্জিং হলেও নিজেদের সেরাটা দিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কথা জানান অস্কার। তিনি বলেন, ‘চ্যালেঞ্জ তো অবশ্যই আছে তবে যেকোনো পরিস্থিতি বা বাধাই আসুক না কেনো সব সময় আমাদের আত্মবিশ্বাস উপরের দিকে থাকবে। আমরা সেই আত্মবিশ্বাস কাজে লাগিয়েই সেরা খেলাটা উপহার দিতে চাই।’
সূচি
বসুন্ধরা-মাজিয়া স্পোর্টস 
১৮ই মে, রাত ৯টা
এটিকে মোহনবাগান-বসুন্ধরা 
২১শে মে, বিকাল ৫টা
বসুন্ধরা-গোকুলাম কেরালা
২৪শে মে, বিকাল ৫টা

 

খেলা থেকে আরও পড়ুন

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com