ঢাকা, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, শনিবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

খেলা

বিপিএল-এর ৭ ফ্র্যাঞ্চাইজি চূড়ান্ত

দল পায়নি সাকিবের মোনার্ক মার্ট

স্পোর্টস রিপোর্টার
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, সোমবারmzamin

ঘটা করেই বাংলাদেশ হকি লীগে দল নেয় সাকিব আল হাসানের মালিকানাধীন অনলাইন ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান মোনার্ক মার্ট। একই প্রতিষ্ঠান আবেদন করেছিল বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল) ফ্র্যাঞ্চাইজি পেতেও। ধারণা করা হচ্ছিল দেশসেরা এই অলরাউন্ডার বিপিএলে দলও পেয়ে যাবেন। কিন্তু বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ও বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল শেষ পর্যন্ত  তিন আসরের জন্য ৭ ফ্র্যাঞ্চাইজি চূড়ান্ত করে সংবাদ প্রকাশ করে। সেখানে নেই দেশের অন্যতম তারকা ক্রিকেটারের প্রতিষ্ঠান।  জানা গেছে সম্প্রতি সাকিব ও তার প্রতিষ্ঠানের সিইও আবুল খায়ের হিরোর শেয়ার বাজার কেলেঙ্কারি প্রকাশ পাওয়াতেই বিসিবি তাদের মনোনিত করেনি। শুধু তাই নয়, সাকিব এখনো খেলা চালিয়ে যাচ্ছেন তাই তার প্রতিষ্ঠান দল নিলে এর প্রভাব বিপিএলের মাঠের খেলাতেও পরতে পারে- এটিও বিবেচনায় নিয়েছে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। রংপুরের ফ্র্যাঞ্চাইজি হিসেবে ফিরে এসেছে বসুন্ধরা গ্রুপ। এছাড়াও শেষ আসরে অংশ নেয়া চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স, ফরচুন বরিশাল থাকছে আগামী তিন আসরেও। তবে গত আসরে সিলেটের ফ্র্যাঞ্চাইজি প্রগতি গ্রুপ এবার ঢাকার মালিকানা পেয়েছে।

বিজ্ঞাপন
কারণ, ঢাকার নিয়মিত ফ্র্যাঞ্চাইজি দেশের অন্যতম কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো গ্রুপ বিপিএল থেকে এবারও নিজেদের সরিয়ে নিয়েছে। এছাড়াও বিপিএল থেকে নিজেদের সরিয়ে নিয়েছে জেমকন গ্রুপের খুলনা টাইটান্সও। তাই এই প্রতিষ্ঠানের দলগুলোকে আগামী ৩ আসর দেখা যাবে না।   গেল মাসে বিজ্ঞাপন দিয়ে ফ্র্যাঞ্চাইজি চেয়েছিল বিসিবি। এর পর ৯টি আগ্রহী প্রতিষ্ঠান আগ্রহ দেখায়। ৩০শে আগষ্ট আগ্রহপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন ছিল। এরপর যাচাই-বাছাই শেষে আবেদন থেকে দুটি প্রতিষ্ঠানকে বাদ দিয়ে বাকি সাতটি বেছে নিয়েছে গভর্নিং কাউন্সিল। শেষ পর্যন্ত দল নেয়নি অন্যতম সফল দুই ফ্র্যাঞ্চাইজি ঢাকা ডায়নামাইটস এবং খুলনা টাইটানস। বিসিবি ও বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল থেকে জানানো হয়েছে, বেক্সিমকোর বদলে ঢাকার মালিকানা এবার পেয়েছে প্রগতি গ্রীন অটো রাইস মিলস লিমিটেড। জেমকন না আসায় এবারও খুলনা ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকানা আছে মাইন্ডট্রি লিমিটেডের হাতে। ফরচুন বরিশাল স্পোর্টস লিমিটেডের মালিকানায় থাকছে বরিশালের ফ্র্যাঞ্চাইজি। এছাড়া চট্টগ্রামের দল চালাবে ডেলটা স্পোর্টস লিমিটেড। টগি স্পোর্টস লিমিটেড (বসুন্ধরা গ্রুপ) পেয়েছে রংপুরের মালিকানা। সিলেটের দায়িত্বে থাকছে ফিউচার স্পোর্টস বাংলাদেশ লিমিটেড। জানা গেছে এই দলটির পেছনে আছেন দেশের অন্যতম শীর্ষ তারকা মাশরাফি বিন মুর্তজা। নামী বা পরিচিত ফ্র্যাঞ্চাইজির মধ্যে থাকছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। নির্ধারিত সময়ের অনেক পরে তারা আবেদন করলেও দলটির সুনামের কারণে শেষ পর্যন্ত তাদের বিবেচনা করেছে বিসিবি। আগামী তিন আসরের (৯ম, ১০ম ও ১১তম) জন্য এই মালিকানা পেয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। বিপিএলের নবম আসর শুরু হবে আগামী বছর ৩রা জানুয়ারি। এর আগে নানা নাটকের মধ্য দিয়ে শেষ হয় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল) শেষ আটটি আসর। বিতর্কের কারণে ঘরোয়া এই টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট লীগে সাফল্যের চেয়ে ব্যর্থতার পাল্লা ভারী। শুরুতে আয়োজকরা আইপিএলের সঙ্গে বিপিএল’র তুলনা করলেও বাস্তবতা বুঝতে পেরে নিজেদের অবস্থান থেকে সরে আসে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) বিপিএলকে নতুন রূপে দর্শকদের সামনে হাজির করতে মরিয়া। এরইমধ্যে আগামী তিন আসরের সময় ঘোষণা করেছে বিসিবি। তিন বছরের জন্য ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সঙ্গেও চুক্তি করবে তারা। এর কারণ, যেন দলগুলো লাভের মুখ দেখতে পারে। বিপিএলের অন্যতম বিতর্কের বিষয় হলো দেশি-বিদেশি ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক বকেয়া। বিতর্ক এড়াতে এবার ফ্র্যাঞ্চাইজিদের পারিশ্রমিক নিরাপত্তা হিসেবে ব্যাংক গ্যারান্টি হিসেবে দিতে হবে সাড়ে ৮ কোটি টাকা। সঙ্গে ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি বাবদ দিতে হবে আরো দেড় কোটি। অর্থ্যাৎ, ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সিজন শুরুর আগেই গুনতে হবে ১০ কোটি টাকা! বিপিএলে আগ্রহীদের আবেদন জমা দিতে ২রা আগস্ট দরপত্র প্রকাশ করে বিবিসি। তাদের জন্য দেয়া হয় একটি সুনির্দিষ্ট গাইডলাইনও। সেখানেই স্পষ্ট করে এ নিয়ম উল্লেখ করা হয়েছে। তা মেনে যে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো আবেদন করেছে শেষ পর্যন্ত সেখান থেকে সেরাদেরই বেছে নিয়েছে বিসিবি।

বিপিএলের চূড়ান্ত ৭ প্রতিষ্ঠান  

ফরচুন বরিশাল স্পোর্টস লিমিটেড (বরিশাল) 

মাইন্ডট্রি লিমিটেড (খুলনা) 

প্রগতি গ্রীন অটো রাইস মিল লিমিটেড (ঢাকা) 

ফিউচার স্পোর্টস বাংলাদেশ লিমিটেড (সিলেট)

 টগি স্পোর্টস লিমিটেড, বসুন্ধরা গ্রুপ (রংপুর) 

ডেল্টা স্পোর্টস লিমিটেড (চট্টগ্রাম) 

কুমিল্লা লিজেন্ডস লিমিটেড (কুমিল্লা)।

খেলা থেকে আরও পড়ুন

খেলা সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status