ঢাকা, ৪ অক্টোবর ২০২২, মঙ্গলবার, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

বাংলারজমিন

দোয়ারাবাজারে পুলিশ সদস্যের নাম নিয়ে বিভ্রান্তি

দোয়ারাবাজার (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি
৮ আগস্ট ২০২২, সোমবার

দোয়ারাবাজারে এক পুলিশ সদস্যের নাম নিয়ে বিভ্রান্তি এবং তদন্তাধীন বিষয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন কর্তৃক হয়রানি করার অভিযোগ উঠেছে।    জানা যায়, উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়নের ঝুমগাঁও গ্রামের মোক্তল হোসেনের দুই পুত্রের নাম এবং ডাক নাম নিয়ে জটিলতা দেখা দেয়। এক ভাইয়ের নাম মোশারেফ হোসেন মজুমদার  এবং অপর ভাইয়ের নাম মো. মোশাররফ হোসেন ওরফে মোবারক। একই পরিবারের দুই ভাইয়ের নাম কাছাকাছি শব্দের ব্যবহার নিয়ে আপত্তি দেখা দেয়। বিশেষত মো. মোশাররফ হোসেনের পুলিশে চাকরি হওয়ার ১৯ বছর পর তার প্রতিপক্ষের লোকজন এ নিয়ে বেশ সরব হয়ে ওঠে। পুলিশের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট বেনামে অভিযোগ করে বেশ জটিলতার সৃষ্টি করা হয়। সম্প্রতি সাপ্তাহিক একটি অনলাইন পত্রিকার পেজে এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ফেসবুক প্রতিবেদন প্রকাশ এবং পরবর্তীতে তা উইথড্র করে নেয়া হলে এলাকায় নানা আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে। এ নিয়ে দফা দফায় তদন্তও চলছে সংশ্লিষ্টদের। উল্লেখ্য, মোক্তল হোসেনের ৪র্থ পুত্র মো. মোশাররফ হোসেন। ২০০৩ সালে কনস্টেবল পদে পুলিশে চাকরিতে নিযুক্ত হন।

বিজ্ঞাপন
চাকরি হবার পূর্বে ২০০২ সালে পুলিশের যাচাই-বাছাই প্রতিবেদনে তার প্রকৃত নাম উল্লেখ করা হয় মো. মোশাররফ হোসেন ওরফে মোবারক হোসেন। দাখিলের সনদপত্রে মো. মোশাররফ হোসেন নামেই উল্লেখ রয়েছে। তাঁর সনদপত্র বিশ্লেষণে দেখা যায়, মো.  মোশাররফ হোসেন কুমিল্লার শ্রীপুর ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা থেকে ১৯৯৮ সালে দাখিল পাস করেন। পরে ওই সনদপত্র দিয়েই তার পুলিশে  চাকরি হয়। খতিয়ে দেখা যায়, দাখিলের প্রবেশপত্র ও রেজিস্ট্রেশন কার্ড এবং জাতীয় পরিচয়পত্রে মো. মোশাররফ হোসেন সঠিক নামটিই লেখা রয়েছে। এবং তার ছবিই রয়েছে কাগজপত্রে। মো. মোশাররফ হোসেনের পরিবারের লোকজন জানান, চাকরি হওয়ার ১৯ বছর পর প্রতিপক্ষের লোকজন অহেতুক প্রপাগাণ্ডা ছড়াচ্ছে। মোশারেফ হোসেন মজুমদার স্থানীয় বাজার নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার জেরে বেনামে অভিযোগ করে হয়রানি করে আসছে। নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার জন্য তখনই তারা নানাভাবে হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছিল। স্থানীয় ইউপি সদস্য আবদুল কাদির বলেন, পুলিশে চাকরি করে মো. মোশাররফ হোসেন ওরফে মোবারক এবং অপর ভাইয়ের নাম মোশারেফ হোসেন মজুমদার একজন ব্যবসায়ী। আমরা আগে থেকেই তা জানি। কাগজপত্র এবং ভোটার আইডি কার্ডেও এভাবেই তাদের নাম আছে।


 

 

বাংলারজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

বাংলারজমিন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status