ঢাকা, ১২ জুন ২০২৪, বুধবার, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৫ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

অনলাইন

ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ভিয়েতনামে, ঝলসে মৃত ১৪

মানবজমিন ডিজিটাল

(২ সপ্তাহ আগে) ২৫ মে ২০২৪, শনিবার, ১২:৩৩ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৭:০১ অপরাহ্ন

mzamin

ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে একটি অ্যাপার্টমেন্ট ব্লকে অগ্নিকাণ্ডে অন্তত ১৪ জন নিহত এবং তিনজন আহত হয়েছেন। হ্যানয়ের কাউ গিয়া শহরের একটি বহুতলে আগুন লাগে। মুহূর্তের মধ্যে কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায় গোটা এলাকা। অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে আসে দমকলবাহিনী। ভিয়েতনাম নিউজ এজেন্সি (ভিএনএ) জানিয়েছে, অগ্নিকাণ্ডের জেরে পরপর বেশ কয়েকটি বিস্ফোরণ ঘটে। উদ্ধারকারীরা দরজা জানলা ভেঙে ভিতরে আটকে থাকা লোকেদের বের করে আনেন। আগুন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আনার পর দমকলকর্মীরা জানান, বহুতলের ভিতর থেকে ১৪ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

ভবনটির অবস্থান ছিল সেন্ট্রাল হ্যানয়ের একটি সরু গলিতে। এছাড়া সেখানে বেশকিছু কক্ষ ভাড়ার জন্য খালি ছিল। সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ভবনের সামনে থাকা একটি গ্যারেজ থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। এটি ইলেকট্রিক বাইক বিক্রি ও মেরামতের জন্য ব্যবহৃত হয়ে আসছিল।

বিজ্ঞাপন
সংবাদমাধ্যমের ছবিগুলিতে দেখা গেছে, বিল্ডিংয়ের উঠানে পোড়া জিনিসপত্র  এদিক ওদিক ছড়িয়ে রয়েছে। রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, অগ্নিকাণ্ডের সময় ওই ভবনে ১৫০ জন বাসিন্দা ছিলেন। তাদের মধ্যে আগুনে সৃষ্ট ধোঁয়ায় শ্বাসকষ্ট ও ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে আঘাত পাওয়া ব্যক্তিদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ভবনের পাশের ভবনের এক বাসিন্দা এনগো থি থু বলেন, অনেক মানুষ সাহায্যের জন্য চিৎকার করেছেন। আমরা তাদের খুব বেশি সাহায্য করতে পারিনি। ভবনটি এতটাই আবদ্ধ ছিল যে সেখান থেকে বেরোনোর কোনো পথই ছিল না। এদিনের অগ্নিকাণ্ডের পর হ্যানয় প্রশাসন বিবৃতি দিয়ে বিভিন্ন এলাকার সমস্ত বাড়ি, দোকানপাট ও বাজারের অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছে। 

কর্তৃপক্ষ আগুনের কারণ অনুসন্ধান করছে। এখনও হতাহতদের শনাক্ত করা যায়নি। ভিয়েতনামের ঘনবসতিপূর্ণ শহুরে কেন্দ্রগুলিতে অগ্নিকাণ্ড একটি সাধারণ ঘটনা। এর আগেও হ্যানয়ের জনবহুল এলাকায় আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। 

উল্লেখ্য, গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসেই হ্যানয়ের আরেকটি বহুতলে অগ্নিকাণ্ডের জেরে প্রাণ হারান ৫৬ জন। জখম হন ৩৭। জননিরাপত্তা মন্ত্রক অনুসারে, ২০১৭ থেকে ২০২২ সালের মধ্যে, দেশে প্রায় ১৭,০০০ বাড়িতে অগ্নিকাণ্ডে ৪৩৩ জন নিহত হয়েছেন। ২০২২ সালে, বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের জন্য দায়ী আগুনের কারণে দক্ষিণ ভিয়েতনামের থুয়ান আনে একটি প্যাক করা কারাওকে বারে কমপক্ষে ৩২ জন নিহত হয়েছিল।

সূত্র :  আলজাজিরা

পাঠকের মতামত

জনসংখ্যাধিক্য দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলিতে অপরিকল্পিত শহর ও বাড়ি এরকম দুর্যোগে অনিরাপদ । প্রতিটি দেশের সরকারের উচিত শহর গুলি কে ঢেলে সাজানো । এমনকি বাংলাদেশের ও উচিত ।

Kazi
২৫ মে ২০২৪, শনিবার, ১:২০ অপরাহ্ন

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

অনলাইন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status