ঢাকা, ২৩ জুন ২০২৪, রবিবার, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

শেষের পাতা

নির্বাচনে রণভঙ্গ লোকমানের, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরে বদলে গেল দৃশ্যপট

স্টাফ রিপোর্টার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে
২৫ মে ২০২৪, শনিবার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা পরিষদে সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বদলে যাচ্ছে লড়াইয়ের দৃশ্যপট। প্রতিদ্বন্দ্বিতার হিসাবও পরিষ্কার হয়ে উঠছে। আলোচিত ৩ প্রার্থীর একজন এরইমধ্যে রণভঙ্গ দিয়েছেন। চতুর্থ ধাপে আগামী ৫ই জুন এই উপজেলায় নির্বাচন। প্রার্থী ৫ জন হলেও জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন (ঘোড়া), জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. শাহাদৎ হোসেন শোভন (আনারস), জেলা স্বেছাসেবক লীগ সভাপতি ও সদর  উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান লোকমান হোসেনের (কাপ-পিরিচ), প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সরগরম হয়ে উঠে এখানের নির্বাচন। প্রতীক বরাদ্দের পর ৩ দিন না পেরুতেই গত বৃহস্পতিবার উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান, চেয়ারম্যান প্রার্থী লোকমান হোসেনের নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর খবর ছড়িয়ে পড়ে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয় শোভন ও লোকমানের আলিঙ্গনবদ্ধ এবং পায়ে ধরে সালাম করার ছবি। লোকমান হোসেন জানিয়েছেন, শোভন তার দোয়া ও সহযোগিতা চেয়েছেন। 

নির্বাচনের শুরুতে জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি হেলাল উদ্দিন ও লোকমান হোসেন সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থীর এমন আওয়াজের মধ্যে শোভনের প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা চমক সৃষ্টি করে। তোড়জোরে প্রচার-প্রচারণা শুরু করেন ছাত্রলীগের এই নেতা। উপজেলার কোণা-কামচা পর্যন্ত তার পোস্টার, ব্যানার-ফেস্টুনে সয়লাব হয়ে পড়ে।

বিজ্ঞাপন
তার সঙ্গে প্রচারণাতে পাল্লা দেন অন্য দুই প্রার্থী। কিন্তু সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বদলে যেতে থাকে দৃশ্যপট। মাঠে দখল বাড়তে থাকে শোভনের। নির্বাচন ঘিরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সর্বত্র শোভনের পক্ষে সক্রিয় থাকলেও বাকি ২ প্রার্থী তাদের নিজস্ব ইউনিটের সাপোর্ট দেখাতে ব্যর্থ হন। অবশ্য আওয়ামী লীগের এখানে পূর্ণাঙ্গ কমিটি নেই। আগের কমিটির নেতাদের অনেকে সক্রিয় শোভনের পক্ষে। তাছাড়া পৌর এলাকার বিভিন্ন ওয়ার্ড, ইউনিয়ন ও গ্রাম পর্যায়ে নেতৃস্থানীয় লোকজন সভা করে সমর্থন দিচ্ছেন শোভনকে। সাধারণ মানুষের মধ্যেও ‘আনারস’ মার্কার আওয়াজ ছড়িয়ে আছে। শহরতলীর রামরাইলে শোভনের সমর্থক ইমরান ও জুয়েল বলেন- তার বিষয়টি এখন ফোকাসে। সবাই তার কথাই বলছে। রমজানে ভর্তুকিতে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিক্রির ব্যবস্থা করে দৃষ্টি কাড়েন শোভন। ঈদুল ফিতরে উপহারসামগ্রী বিতরণ করেন বিভিন্ন স্তরের মানুষের মাঝে।  

লোকমান হোসেন নির্বাচনে রণভঙ্গ দেয়ায় এখন জেলা আওয়ামী লীগ নেতা হেলাল উদ্দিনের সঙ্গেই হবে ছাত্রলীগ নেতা শোভনের প্রতিদ্বন্দ্বিতা। হেলাল জাতীয় বীর আবদুল কুদ্দুস মাখনের ছোট ভাই। এই পরিচয়কে সামনে রেখে এবং আত্মীয়স্বজনের মাধ্যমে বিভিন্ন এলাকায় নিজের অবস্থান শক্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছেন। দলের নেতাদেরও তার পক্ষে নামানোর চেষ্টা করছেন।
জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু জানান, আওয়ামী লীগের অনেকে শোভনের নির্বাচন করছেন। হেলাল উদ্দিনের পক্ষে দলের গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের কেউ যায়নি। দলের সমর্থিত প্রার্থী না থাকায় আওয়ামী লীগের নেতারা ব্যক্তিগতভাবেই নির্বাচন করছেন। 

চেয়ারম্যান পদে অন্য দুই প্রতিদ্বন্দ্বী কাজী সেলিম রেজা (দোয়াত-কলম) ও আব্দুল কারীম (মোটরসাইকেল)। তাদের মধ্যে সেলিম রেজার কিছু প্রচার-প্রচারণা রয়েছে। 
নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদের প্রতিদ্বন্দ্বীরা হলেন- তফাজ্জল সিকদার (উড়োজাহাজ), মোস্তাক আহমেদ খোকন (বই), মো. আজহারুল ইসলাম (তালা), মো. আনিছ খান (টিউবওয়েল), মো. ইলিয়াছ চৌধুরী (আইসক্রিম), রবিউল আলম (চশমা) ও শফিকুল ইসলাম (মাইক)। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী উম্মে হানি সেতু (কলস), আফরিন ফাতেমা জুঁই (ফুটবল), নাসিমা আক্তার (প্রজাপতি) ও শামীমা আক্তার (পদ্ম ফুল)।

শেষের পাতা থেকে আরও পড়ুন

   

শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status