ঢাকা, ২২ মে ২০২৪, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ জিলক্বদ ১৪৪৫ হিঃ

অনলাইন

লোকসভা নির্বাচনে বেকারত্ব এবং মুদ্রাস্ফীতি মেটানোর দাবি ভারতীয় ভোটারদের

মানবজমিন ডিজিটাল

(১ মাস আগে) ১৬ এপ্রিল ২০২৪, মঙ্গলবার, ৩:২৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:১৩ পূর্বাহ্ন

mzamin

বেকারত্ব এবং মুদ্রাস্ফীতি ভারতীয় ভোটারদের প্রধান উদ্বেগ। কিন্তু তা সত্ত্বেও দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দৃঢ় নেতৃত্ব, তার দলের জাতীয়তাবাদী এজেন্ডা এবং ভারতের ক্রমবর্ধমান বৈশ্বিক মর্যাদা তার পুনঃনির্বাচনের পথকে প্রশস্ত করতে পারে বলে উঠে এসেছে সমীক্ষায়। ফলাফলগুলি দেখায় যে  মোদি  অভ্যন্তরীণ উৎপাদনে গত ১০ বছরে জোর দেওয়া সত্ত্বেও, কর্মসংস্থান এখনও একটি চ্যালেঞ্জ। ভারত ১৯ এপ্রিল সাত ধাপের সাধারণ নির্বাচন  শুরু হবে যাতে মোদি সহজেই জয়ী হবেন বলে আশা করা হচ্ছে। ৪ জুন ভোট গণনা হবে। দ্য হিন্দু সংবাদপত্রের মতে, ভারতের ২৮ টি রাজ্যের মধ্যে ১৯ টি রাজ্যে লোকনীতি -সিএসডিএস দ্বারা সমীক্ষা করা ১০,০০০ ভোটারের মধ্যে ২৭ শতাংশের প্রাথমিক উদ্বেগ ছিল বেকারত্ব, ২৩ শতাংশ চিন্তিত ক্রমবর্ধমান মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে। ভারত বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল প্রধান অর্থনীতি এবং  পঞ্চম বৃহত্তম। কিন্তু জরিপে অংশ নেওয়া প্রায় দুই তৃতীয়াংশ বা ৬২ শতাংশ বলেছেন,  প্রধানমন্ত্রী  মোদির দ্বিতীয় মেয়াদে গত পাঁচ বছরে চাকরি পাওয়া আরও কঠিন হয়ে পড়েছে। ২০২২/২৩ সালে বেকারত্বের হার বেড়ে ৫.৪ শতাংশে পৌঁছেছে, মোদি ক্ষমতায় আসার ঠিক আগে ২০১৩/১৪ সালে এটি ছিল  ৪.৯ শতাংশ। সরকারি তথ্য মতে, ১৫-২৯ বছর বয়সী শহুরে যুবকদের প্রায় ১৬ শতাংশ ২০২২/২৩ সালে বেকার ছিল  দক্ষতা এবং মানসম্পন্ন কাজের অভাবের কারণে ।

বিজ্ঞাপন
যদিও ২২ শতাংশ বলেছেন যে, মোদি সরকারের "সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ" হল অযোধ্যায় ভগবান রামের জন্য উৎসর্গকৃত একটি বিশাল হিন্দু মন্দির নির্মাণ, সংখ্যালঘু মুসলমানরা এর বিরোধিতা করেছিলেন।  মাত্র ৮ শতাংশ বলেছেন যে, এটি তাদের প্রাথমিক উদ্বেগ। দীর্ঘকালের হিন্দু দাবির প্রেক্ষিতে মোদি জানুয়ারী মাসে রাম মন্দিরের পবিত্রকরণের তত্ত্বাবধান করেছিলেন।  তার হিন্দু জাতীয়তাবাদী ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) নির্বাচনী প্রচারে ক্রমবর্ধমানভাবে এই সাফল্যকে তুলে ধরছে।  মন্দির উদ্বোধনের আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করায় প্রধান বিরোধী কংগ্রেস দলকে আক্রমণ করেছিলেন মোদি।

মোদি জম্মু ও কাশ্মীরের ফেডারেল অঞ্চলে প্রচারের সময়ে বলেছিলেন, 'সারা বিশ্বের রাম ভক্তরা আপনাদের  এই অহংকার দেখেছে ... এটি আপনার জন্য একটি নির্বাচনী খেলা। কংগ্রেস রাম মন্দির উদ্বোধনে যোগ দিতে অস্বীকার করে বলেছিল যে 'এটি বিজেপির একটি  রাজনৈতিক প্রকল্প তে রূপান্তরিত হয়েছে এবং পবিত্রতাকে  নির্বাচনী লাভের জন্য ফোকাস করা হয়েছে।  কমপক্ষে ৪৮ শতাংশ উত্তরদাতা বলেছেন যে মন্দিরটি হিন্দু সম্প্রদায়কে  সুসংহত করবে, কিন্তু একটি বিশাল সংখ্যাগরিষ্ঠ (৭৯ শতাংশ) উত্তরদাতা বলেছেন যে ভারত শুধু হিন্দুদের  নয়, সমানভাবে সকল ধর্মের নাগরিকদের জন্য। জি-২০ ব্লকে  ভারতের সভাপতিত্ব এবং সেপ্টেম্বরে  জি-২০ নেতাদের হোস্ট করার মতো নজরকাড়া ইভেন্টগুলির মাধ্যমে ভারতের ক্রমবর্ধমান আন্তর্জাতিক অবস্থানের বিষয়টিও ভোটারদের জিগেস করা হয়েছিল  । সমীক্ষার উত্তরদাতাদের প্রায় ৮ শতাংশ বলেছেন যে তারা ভারতের একটি ভাল আন্তর্জাতিক ভাবমূর্তি তৈরিতে সরকারের অবস্থান পছন্দ করেছেন।

সূত্র : খালিজ টাইমস

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

অনলাইন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status