ঢাকা, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, রবিবার, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৪ শাওয়াল ১৪৪৫ হিঃ

বিশ্বজমিন

আপাতত অকার্যকর পাকিস্তান পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ সিনেট, প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ৯ই মার্চের মধ্যে

মানবজমিন ডেস্ক

(১ মাস আগে) ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, সোমবার, ৯:৩৭ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৫:৪৯ অপরাহ্ন

mzamin

জাতীয় নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগে চারদিকে যখন হতাশা বিরাজ করছে, তখন আগামী ৯ই মার্চের মধ্যে পাকিস্তানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করার তোড়জোর চলছে। সেখানকার অর্ধেক সিনেটর তাদের ৬ বছর মেয়াদ সম্পন্ন করে অবসরে যাওয়ার দু’দিন পর এই রিপোর্ট প্রকাশ হয়েছে। তারা অবসর নেয়ায় সিনেট এখন অকার্যকর। পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) একটি সিনিয়র সূত্র বলেছেন, চারটি প্রাদেশিক পরিষদ গঠিত হওয়ার পর বর্তমান যেসব সিনেটর আছেন তারাই প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করবেন। সেই নির্বাচন ৯ বা ১০ই মার্চ হতে পারে। সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজের (পিএমএলএন) শেহবাজ শরীফের নেতৃত্বে ৬ দলীয় জোট কেন্দ্রীয় সরকার গঠন করতে যাচ্ছে। তারা এরই মধ্যে ঘোষণা করেছে প্রেসিডেন্ট পদে তাদের প্রার্থী হবেন পিপিপির সহসভাপতি ও সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারি। এ বিষয়ে জোটের সবাই একমত হয়েছেন। এর আগে ২০০৮ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। সংবিধানের ৪১(৪) ধারা অনুযায়ী বর্তমান প্রেসিডেন্ট ড. আরিফ আলভির মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার ৩০ থেকে ৬০ দিন আগে অবশ্যই প্রেসিডেন্ট নির্বাচন সম্পন্ন করতে হবে।

বিজ্ঞাপন
যেহেতু ৮ই ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানে জাতীয় নির্বাচন হয়েছে, তাই প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করতে হবে ৯ই মার্চের মধ্যে। এটা এমন এক সময়ে ঘটছে যখন ১০০ আসনবিশিষ্ট সিনেটের অর্ধেকই অবসরে গেছেন। মার্চের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে সিনেট নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু যেহেতু জাতীয় ও প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচন বিলম্বিত করা হয়েছে, তাই এই নির্বাচন এখন হবে মার্চের শেষ সপ্তাহে অথবা এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে। এর অর্থ পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ সিনেট একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত অসম্পূর্ণ ও অকার্যকর থাকবে। 
পিপিপির ওই নেতার মতে, আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন এবং জারদারির বিজয় নিশ্চিত করতে দল দু’জন সিনেটরকে সিন্ধু প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য হিসেবে শপথ নেয়া আটকে দিয়েছে। তারা হলেন নিসার খুহরো এবং জাম মাহতাব দাহার। এক্ষেত্রে যে ফরমুলা প্রয়োগ করা হয়েছে তা হলো- সিনেটরদের একজনের ভোটকে একটি ভোট হিসেবে গণনা করা হয়। কিন্তু সিন্ধু প্রাদেশিক পরিষদের একটি ভোটকে প্রায় চারটি ভোটের সমান করে গণনা করা হয়। এই উপায়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সুবিধা পেতে চান আসিফ আলি জারদারি। 

এরই মধ্যে নির্ধারিত ৫ বছর মেয়াদ সম্পন্ন করেছেন প্রেসিডেন্ট ড. আরিফ আলভি। কিন্তু উত্তরসুরি নির্বাচিত না হওয়া পর্যন্ত তাকে পদে থাকতে হচ্ছে। ক্ষমতার পূর্ণ মেয়াদ সম্পন্ন করা গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত চতুর্থ প্রেসিডেন্ট তিনি। এর আগে এমন মেয়াদ শেষ করেছেন যে তিনজন প্রেসিডেন্ট তারা হলেন চৌধুরী ফজল ইলাহি, আসিফ আলি জারদারি ও মামনুন হোসেন।

বিশ্বজমিন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত

‌‌‘‌আমাদের আকাশসীমা ব্যবহার করে ইরানে হামলা নয়’‌/ আমেরিকাকে সতর্ক করলো উপসাগরীয় দেশগুলো

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status