ঢাকা, ৩০ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৯ জিলক্বদ ১৪৪৩ হিঃ

কলকাতা কথকতা

৫০ হাজার টাকা দিলেই মেলে ভোটার কিংবা প্যান কার্ড, আধার এক লক্ষ, পাসপোর্ট মেলে দেড় লক্ষ টাকায়

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা

(১ মাস আগে) ১৮ মে ২০২২, বুধবার, ১১:৩১ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১:০২ অপরাহ্ন

প্রতীকী ছবি

বাংলাদেশ সীমান্ত বরাবর শুধু নয়, এই কলকাতা শহরেই আছে নকল ভোটার, প্যান, আধার কার্ড কিংবা পাসপোর্টের জালিয়াত চক্র। ৫০ হাজার টাকা ব্যায় করলেই মেলে ভুয়া ভোটার, প্যান কার্ড। এক লক্ষ টাকায় আধার কার্ড। আর পাসপোর্টের জন্য দিতে হয় দেড় লক্ষ টাকা। চক্র বিশেষে দামের একটু হেরফের হলেও এটাই মোটামুটি স্ট্যান্ডার্ড রেট। 

বাংলাদেশের ব্যাংক ফ্রড পি কে হালদার এবং তার সংগীরা এই ভাবেই নগদ কড়ি গুনে জাল পরিচয়পত্র সংগ্রহ করেছিল। ই ডি তাদের কাছ থেকে হদিশ পেয়ে বনগাঁ ও হাওড়ায় অভিযান চালাতে বলেছে পুলিশকে। বনগাঁ এবং হাওড়া অবশ্য কুখ্যাত এই ব্যাপারে। 

কলকাতা থেকে ৭৮ কিলোমিটার দূরে, বাংলাদেশ সীমান্তের কাছে বনগাঁর পাইকপাড়া থেকে কিছুদিন আগে অরূপ বিশ্বাস নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। কম্পিউটার, স্ক্যান করার সরঞ্জাম, প্রিন্টার, ফটোকপিয়ার নিয়ে জাল পরিচয়পত্রের কারবার খুলে বসেছিল অরূপ। বনগাঁ মিউনিসিপালিটির একটি নকল ট্রেড লাইসেন্সও পাওয়া যায় তাঁর কাছ থেকে। মিডলম্যানদের মাধ্যমে ভোক্তা আসতো অরূপের কাছে।

বিজ্ঞাপন
এছাড়াও হাওড়া থেকে গ্রেপ্তার হয় মৃন্ময় দত্ত, মোহাম্মদ ফারুখ ও মোহাম্মদ ইফতেকার বলে তিনজন। এরাও জাল পরিচয় পত্রের ব্যবসা ফেঁদে বসেছিল। 

কদিন আগে উত্তরপাড়ার একটি ডাস্টবিনের মধ্য থেকে উদ্ধার হয় অসংখ্য জাল পরিচয়পত্র। রাজু গুপ্ত ও গোপাল বিশ্বাস নামের দুজন ওয়েবসাইট খুললেই ডিভিডি প্লেয়ার পাওয়া যাবে- এই বিজ্ঞাপন দিয়ে অসংখ্য মানুষের কাছ থেকে ৪৪০ টাকা করে তুলছে- এর অনুসন্ধান করতে গিয়ে পুলিশ কেঁচো খুঁড়তে সাপের সন্ধান পায়। জাল পরিচয় পত্র চক্র উদ্ঘাটিত হয়। তবে, এ ছিল টিপ অফ দ্য আইসবার্গ। এখনও চক্র সক্রিয়। তার প্রমান পি কে হালদাররা। 

পাঠকের মতামত

বাংলাদেশী হিন্দুদের পশ্চিমবঙ্গের রেশন কার্ড নেওয়ার গল্পঃ আরো দশ বছর ধরে জানি। নতুন কিছু বলেন।

sattar
২৩ মে ২০২২, সোমবার, ৫:৩২ পূর্বাহ্ন

এগুলোই ব্যাংক ফ্রড পিকের প্রতি প্রতিবেশীর দেয়া ক্রীসমাস কার্ড!

মোহাম্মদ হারুন আল রশ
১৮ মে ২০২২, বুধবার, ১২:৩২ পূর্বাহ্ন

আমি ভাবতাম বাংলাদেশেই শুধু জালিয়াতি কাজকর্ম বেশি । এখন জানলাম ভারতীযরা আমাদের দেশের চাইতে অনেক এগিয়ে ।

Kazi
১৮ মে ২০২২, বুধবার, ১২:১৩ পূর্বাহ্ন

কলকাতা কথকতা থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

কলকাতা কথকতা থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com