ঢাকা, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, শনিবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

শরীর ও মন

শীতে ঠোঁটের পরিচর্যা

ডা. দিদারুল আহসান
২০ নভেম্বর ২০২২, রবিবারmzamin

শীতে ঠোঁট ফাটা প্রতিরোধের উপায়

 শীতের প্রথম প্রহর শুরু হয়ে গেছে। দেখা যায় কারও সারা বছর ঠোঁট ফাটে আবার কারও কারও শুধু শীতকালে ঠোঁট ফেটে থাকে। যদি আপনার শীতকালে ঠোঁট বেশি ফেটে যায় ও রক্ত পড়ে তাহলে  ঠোঁটের প্রতি বিশেষ যত্ন প্রয়োজন। সাধারণত শীতকালে আবহাওয়ায় জলীয়বাষ্প কমে যাওয়ায় ত্বক শুকিয়ে যাওয়ার ফলে ঠোঁট ফেটে যায়। এ সময়  ত্বকের চেয়েও রুক্ষ হয়ে ওঠে ঠোঁট। ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে সাধারণত শীতকালে চ্যাপস্টিক, লিপবাম আর পেট্রোলিয়াম জেলি ইত্যাদি ব্যবহার করে সমস্যা সমাধান হয়। এ ছাড়া ঘরোয়াভাবেও আপনি ঠোঁট ফাটা প্রতিরোধ করতে পারেন।   

নারিকেল তেলের ব্যবহার

  * ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে দীর্ঘদিন ধরেই নারকেল তেলের ব্যবহার ভালো।  নারিকেল তেলে আছে প্রচুর পরিমাণ ফ্যাটি অ্যাসিড যা ঠোঁটের শুষ্কতা দূর করে।  

 অলিভ অয়েলের ব্যবহার

 *  অলিভ অয়েলকে প্রাকৃতিক ময়েশ্চাজার  বলা হয়।

বিজ্ঞাপন
এতে যে ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে, তা ত্বকের শুষ্কতা দূর ও ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে পারে। দিনে দু’বার ঠোঁটে অলিভ অয়েল মাখলে ঠোঁট নরম ও মসৃণ হবে। 

পর্যাপ্ত পানি পান 

*  পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি খেলে তা আপনার ঠোঁট নরম রাখতেও সাহায্য করবে। পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি খান। এতে করে ঠোঁটের ত্বকে আর্দ্রতা বজায় থাকবে। 

ঠোঁট দিয়ে জিভ ভিজানো পরিত্যাগ করুন 

* অনেকেই রুক্ষ ঠোঁট কিছুক্ষণ পর পর জিভ দিয়ে ভিজিয়ে থাকেন। যা একদম উচিত নয়। কিন্তু নিমেষেই রুক্ষ ঠোঁটকে নরম করার এই সহজ উপায় আসলে ফাটা ঠোঁটের মূল কারণ। তাই ঠোঁট নরম রাখতে এই অভ্যাস ছাড়ুন। 

ভিটামিন বি ঘাটতি দূর করুন  

ভিটামিন বি’র অভাবও কিন্তু রুক্ষ ঠোঁটের কারণ হতে পারে। তাই শাকসবজি খান। ঠোঁট নরম রাখতে ভিটামিন বি খেতেই হবে। 

ঠোঁটে স্ক্রাবিং করুন 

ঠোঁটে শীতকালে রুক্ষ্ম চামড়া জমে থাকে। মাঝে মধ্যে স্ক্রাবিং করে সেই চামড়া সরিয়ে ফেলা খুবই প্রয়োজন। ঠোঁট নরম রাখতে সপ্তাহে একদিন ঠোঁটে স্ক্রাবিং করুন। 

ভালো ব্র্যান্ডের লিপজেল বা বাম ব্যবহার করুন

 মেয়েরা ঠোঁটে নানা ধরনের প্রসাধনী ব্যবহার করেন। ঠোঁটের ত্বকের ক্ষেত্রে যদি ভালো প্রসাধনী ব্যবহার না করেন তবে ঠোঁট শুকিয়ে গিয়ে তা ফেটে যায়। তাই ভালো কোনো ব্র্যান্ডের প্রসাধনী ব্যবহার করুন। 

ঠোঁটে জোরে জোরে ঘষা-মাজা করবেন না

 আর হাত-মুখ ধোয়ার সময় বা দাঁত মাজার সময় কোনোভাবেই যাতে ঠোঁটে জোরে জোরে ঘষা-মাজা না লাগে তা খেয়াল রাখুন। এ সময় নরম ঠোঁটে আঁচড় পড়লে তা ভোগাতে পারে।  

রাতের বেলায় ঠোঁটের যত্ন 

রাতের বেলা একটা  দীর্ঘ সময়। খেয়াল রাখবেন কোনো পেট্রোলিয়াম জেলি বা বাম আপনার ঠোঁটের সঙ্গে ম্যাচিং বা ব্যবহারে আপনি কমফোর্ট ফিল করছেন কিনা। আপনি যদি রাতের বেলায় ঠোঁট ফাটার কারণে ঠোঁটে ব্যথা অনুভব করেন তাহলে আপনি  আপনার আরামদায়ক ও ম্যাচিং প্রসাধনী ঠোঁটে ব্যবহার করুন। 

কখন চিকিৎসকের পরামর্শ নিবেন

 যদি শীতকালে আপনার ঠোঁট ফেটে রক্ত  বের হয়। বাজারের সাধারণ প্রসাধনী ও  ঘরোয়া যত্ন করলেও ঠোঁট ফাটা প্রতিরোধ করতে পারছেন না। তাহলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে যাবেন। 

লেখক: চর্ম-অ্যালার্জি ও যৌন রোগ বিশেষজ্ঞ। চেম্বার: আল-রাজী হাসপাতাল, ফার্মগেট, ঢাকা সেল: ০১৭১৫৬১৬২০০

শরীর ও মন থেকে আরও পড়ুন

শরীর ও মন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status