ঢাকা, ২২ জুন ২০২৪, শনিবার, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিঃ

শিক্ষাঙ্গন

কুবি ভিসির বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করায় রোষানলে সাংবাদিক

কুবি প্রতিনিধি

(১ বছর আগে) ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, শনিবার, ১০:২৯ পূর্বাহ্ন

mzamin

প্রতিবেদনের জন্য ভিসি কার্যালয়ে বক্তব্য নেয়ার জন্য যান কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির তিন প্রতিবেদক। এ সময় তাদের বক্তব্য না দিয়ে বরং কত বড় সাহস, কে তোমাদের টাকা দেয়- নানা মন্তব্য করেন কুবি  ভিসি অধ্যাপক ড. এ এফ এম আবদুল মঈন। 

জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেস্বর) বিকেল তিনটার দিকে ভিসি কার্যালয়ে একটি প্রতিবেদনের বিষয়ে তার বক্তব্য নিতে যান দেশ রুপান্তরের প্রতিনিধি নাঈমুর রহমান রিজভী, ডেইলি ক্যাম্পাসের প্রতিনিধি হাসান মাহমুদ ও নয়া দিগন্তের প্রতিনিধি মানছুর আলম। এসময় দৈনিক দেশ রুপান্তর পত্রিকার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি নাঈমুর রহমান রিজভীকে বিভিন্ন তীর্যক মন্তব্য করেন ভিসি।
গেল ১০ই সেপ্টেম্বর দৈনিক দেশ রুপান্তর পত্রিকায় ‘নাম বদলে সান্ধ্যকালীন কোর্স'  শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এ সংবাদ প্রকাশ করায় ভিসির রোষানলের শিকার হন এ  সাংবাদিক।
ইউজিসি ও বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সান্ধ্যকালীন কোর্স বন্ধে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসির) নির্দেশনা রয়েছে। এরপরেও কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সান্ধ্যকালীন কোর্স নাম পাল্টে উইকেন্ড প্রোগ্রাম চালু রাখা হয়। এমনকি ব্যবস্থাপনা বিভাগে একটি কোর্সে ক্লাস নেন ভিসি। প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়ার পর সাবেক ও নিয়মিত শিক্ষার্থীরা নেতিবাচক মন্তব্য করতে দেখা যায়। নিয়মিতদের বাদ দিয়ে কেন সান্ধ্যকালীন কোর্সে ক্লাস নিতে হবে? অনেকে মত প্রকাশ করেন, ইউজিসির নির্দেশনা না মেনে সান্ধ্যকালীন কোর্সে কি ভিসি উৎসাহ দিচ্ছেন? তবে প্রতিবেদন প্রকাশ করার পরে নিয়মিতদের একটা ক্লাস নিতে দেখা যায় ভিসিকে।

বক্তব্য নিতে গেলে এসসয় ভিসি দৈনিক দেশ রুপান্তরের প্রতিবেদককে উদ্দেশ্য করে বলেন, তুমি এটা কী রিপোর্ট করেছো, বলো আমাকে? কীসের জন্য করেছো এই রিপোর্ট? কোনো অসুবিধা হইছে বিশ্ববিদ্যালয়ের? তোমাদের পারপাস (উদ্দেশ্য) কী? বিশ্ববিদ্যালয়র সুনাম নষ্ট করা? তোমরা বসে আছো বিশ্ববিদ্যালয়র মান সম্মান নষ্ট করার জন্য।

পাশে থাকা অন্যান্য প্রতিবেদকদের উদ্দেশ্য করে ভিসি বলেন, তোমরা একটি নিউজ করেছো, উপাচার্য সুদুত্তর দিতে পারে নাই। আমি তো সব উত্তর দিয়েছি, তোমরা বলেছো সুদুত্তর দেয়নি। হাউ ডিয়ারিং দিস গাইস আর।

বিজ্ঞাপন
হু পেইস ইউ ফর দিস ? আমি তোমাদের কোনো ইটারভিউ দেব না। তোমাদের কোনো প্রশ্নের উত্তর দেয়ার সময় নাই। 
এসময় সংবাদের বিষয়ে প্রতিবেদকদের বক্তব্য না দিয়ে এসব বলে নিজের কার্যালয় থেকে বেরিয়ে যান ভিসি।

এ বিষয়ে দেশ রুপান্তর পত্রিকার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি নাঈমুর রহমান রিজভী বলেন, একটি সংবাদের বক্তব্য নিতে আমি ভিসির কার্যালয়ে গেলে তিনি দেশ রুপান্তর পত্রিকায় প্রকাশিত ‘নাম বদলে সান্ধ্যকালীন কোর্স’ শিরানামে সংবাদের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, তোমাদের কে পেমেন্ট করে? তোমাদের কে চালাচ্ছে? তোমাদের এত সাহস? এমন বিভিন্ন তীর্যক মন্তব্য করেন তিনি।

এর আগে গত ১০ সেপ্টেম্বর দেশ রুপান্তর পত্রিকায় ‘নাম বদলে সান্ধ্যকালীন কোর্স'  শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

ইউজিসি থেকে এসব প্রোগ্রাম বন্ধ রাখার নির্দেশনা থাকলেও নাম বদল করে 'উইকেন্ড প্রোগ্রাম' নামে কোর্স চালু রেখেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে। এর মধ্যে ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের উইকেন্ড  ১৮তম ব্যাচের এমজিটি-৫০৭ এন্ট্রারপ্রেনিউর ডেভেলপমেন্ট কোর্সের ক্লাস নিয়েছিলেন ভিসি অধ্যাপক ড. মঈন। ইউজিসির নির্দেশনাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে খোদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিই এসব প্রোগ্রামে ক্লাস নেয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়জুড়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। 
সাংবাদিক হেনস্তার বিষয়ে ভিসির মন্তব্য জানতে তার মুঠোফোনে একাধিকবার কল করেও কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। 

প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির বলেন, আমি মনে করি গণমাধ্যম কর্মীদের পেশাগত দিক থেকে সমুন্নত হওয়া উচিত এবং ভিসিকেও গণমাধ্যম কর্মীদের প্রতি সমুন্নত আচরণ করা উচিত।

 

শিক্ষাঙ্গন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

   

শিক্ষাঙ্গন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status