ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

শিক্ষাঙ্গন

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কখনো রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে পারে না: শিক্ষামন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার

(২ সপ্তাহ আগে) ৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ৭:৪৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১২:১৩ অপরাহ্ন

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কখনো রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, রাজনীতি করা মানুষের অধিকার। কিন্তু দলীয় রাজনীতি কীভাবে হবে, সেখানে রাজনীতি যারা করবেন, সেই শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতিষ্ঠানের বোঝাপড়া, সৌহার্দ থাকা উচিত। তবে আমরা চাই, দলীয় রাজনীতির নামে যেন কোনো বিশৃঙ্খলা, অরাজকতা না হয়।

আজ বুধবার বাংলাদেশ শিক্ষাতথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরোতে (ব্যানবেইস) এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন তিনি। শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, যদি ইতিবাচক রাজনীতি থাকে, আমার মনে হয় না প্রতিষ্ঠানের দিক থেকে কোনো আপত্তি থাকার কথা।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি বেশ কয়েকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে কমিটি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। এরই প্রেক্ষিতে বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় ইতিমধ্যে নোটিশ দিয়ে ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতিতে নিষেধাজ্ঞা জানিয়েছে।

পাঠকের মতামত

আমি মনে করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র রাজনীতি কোন দরকার নাই।

মিলন আজাদ
৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, শুক্রবার, ১:২৯ পূর্বাহ্ন

ছাত্র রাজনীতি আর রাজনৈতিক দলের লেজুড় এক নয়। ছাত্র রাজনীতি থাকবে তাদের দাবি দাওয়া আদায়ের জন্য । যেভাবে বিদেশে প্রতিটি ইউনিভার্সিটিতে আছে । নির্বাচন হয় দুইটি তিনটি প্যানেল গ্রুপ করে । যারা নির্বাচিত হয় তারা ছাত্র সংগঠন নামে পরিচিত হয়। একেই বলে ছাত্র রাজনীতি । রাজনৈতিক দলের নাম থাকে না ।

Kazi
৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৪:৪০ পূর্বাহ্ন

Private schools,colleges, Universities they have no right to start student politics. Our education system is very bad. Govt is trying to destroy this education system. We are requesting you all schools, colleges, and universities authorities dont give permission for student politices

Tanweir
৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, বৃহস্পতিবার, ২:১৫ পূর্বাহ্ন

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রাজনীতি টোটালি বন্ধ করে দেওয়া দরকার। এই রাজনীতি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। বড় বড় রাজনীতিবিদরা/নেতারা তাদের ছেলেমেয়েদেরকে বিদেশে আরাম-আয়াশে লেখাপড়া করাবে আর আমরা এই দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আমাদের ছেলেমেয়েদেরকে অপরাজনীতির পরিবেশে পড়ালেখা করাবো তা-তো হতে পারে না। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অপরাজনীতির শিকার হলো বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরাব ফাহাদ। আল্লার দোহাই লাগে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র-শিক্ষক রাজনীতি চিরতরে বন্ধ করার অনুরোধ জানাচ্ছি।

শওকত আলী
৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ১১:৪০ অপরাহ্ন

No politic under education institute.

dhor
৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ১০:৩৯ অপরাহ্ন

Due to the students politics our present and future got damahed and students dont know hiw to deal with there task in future and all of our university status day by day sinking. Even india do kot have any students polotics and see they are dominating tbe world. And oir students dominating the campus

Riaz
৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ৯:৫৫ অপরাহ্ন

The students in other countries, especially those in the western world, are not involved in campus politics like those in Bangladesh. Even students in India are not involved in campus politics. The students in those countries are busy with their study and research for building their professional careers. They want to shine in their professional careers with their own abilities. They do not think about making quick bucks but want to earn money honestly with their talents and hard labor. Look at USA, Europe, Japan, China, and other places and you will find how much research they are doing and contributing to the fields of science, technology, and others. Compared to that, Bangladeshi students and professionals are not doing anything. They are busy in dirty politics, taking bribes to become rich overnight, and fighting with each other. As a result, when the Bangladeshi students enter the job market and then land with a job, they cannot perform their tasks properly. That’s why Bangladeshi companies have to hire Indian nationals to get the job done. Unfortunately, this is the result of the directives given by the greedy national politicians who want to use the students and the professionals to remain in power and make a fortune for themselves. Also, the Bangladeshi students cannot see the harms being caused to them by the crooked politicians. Shame on them!

Nam Nai
৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ৪:৪৭ অপরাহ্ন

This Education Minister is enough for destroy our education.,

Nokul
৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ১০:৫৩ পূর্বাহ্ন

আপনি দুদিন আগেই বললেন ছাত্র রাজনীতির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে বিশ্ববিদ্যালয়, আজকেই পাল্টি দিলেন ? বাংলাদেশে ছাত্র রাজনীতির নামে যা হয় তা'হলো চাঁদাবাজি, দখলদারি, মাস্তানি। প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ছাত্র রাজনীতি না থাকার কারণেই সুষ্ঠু শিক্ষার পরিবেশ বিদ্যমান, কোন সেশন জট নেই এবং প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এতো জনপ্রিয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের যারা আজকাল পড়ে তাদের ৯০% ই ঢাকার বাইরে থেকে আসা কারন যারা ঢাকায় জন্মেছে ও বড় হচ্ছে তাদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার কোন আগ্রহ নেই । যদি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র রাজনীতি চালু হয় , ছেলেমেয়েদের দেশের বাইরে চলে যাবার প্রবনতা বেড়ে যাবে। এই সর্বনাশা সিদ্ধান্ত থেকে সরকার সরে আসবে এটাই আমরা সবাই প্রত্যাশা করি ।

Andalib
৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ১০:২০ পূর্বাহ্ন

ইউনিভার্সিটি পড়ালেখা এবং গবেষণার জন্য। তবে বোর্ড দখল, টর্চার সেল পরিচালনা, টেন্ডার - নিয়োগ - ভর্তি ব্যাবসা কন্ট্রোল করার জন্য রাজনৈতিক দল বা গুন্ড গ্রুপ দরকার।

shiblik
৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ৯:৫৫ পূর্বাহ্ন

পৃথিবীর কোন সভ্য দেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রাজনিতী চলতে পারেনা ।

Md ripon nabuat
৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ৭:৩৭ পূর্বাহ্ন

শিক্ষাঙ্গন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

শিক্ষাঙ্গন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status