ঢাকা, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, শুক্রবার, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

প্রথম পাতা

জন্মনিবন্ধনে লাগবে না মা-বাবার সনদ

স্টাফ রিপোর্টার
১৬ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার

শিশুদের জন্মনিবন্ধন করতে বাবা-মায়ের সনদ লাগবে না বলে জানিয়েছে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয়। এর ফলে এখন থেকে হাসপাতালে জন্ম নেয়ার পর দেয়া ছাড়পত্র বা টিকার কার্ড যেকোনো একটি প্রমাণ দেখিয়ে জন্মনিবন্ধন করা যাবে। সোমবার রেজিস্ট্রার জেনারেল (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মির্জা তারিক হিকমত এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, জন্মনিবন্ধন করতে মা-বাবার জন্মসনদ বাধ্যতামূলকের নিয়মটি তুলে দিয়েছে রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয়। আইন অনুযায়ী সবার জন্মনিবন্ধন বাধ্যতামূলক। ২০২১ সালে একটি বিষয়যুক্ত করা হয়েছিল যে, যাদের জন্ম ২০০১ সালের পর তাদের বয়স ১৮ না হওয়ায় এনআইডি হয়নি। কাউকে যদি জন্মের পর একটি আইডি দিতে চাই সেক্ষেত্রে বাবা-মায়ের জন্মনিবন্ধন অপরিহার্য। স্কুলে এখন ইউনিক আইডি’র বিষয়টি প্রচারণা হচ্ছে। এটি ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড। এ পর্যন্ত যারা সঠিকভাবে জন্মনিবন্ধন আবেদন দিয়েছে তাদের ইউনিক আইডি অটোমেটিকালি জেনারেল হয়েছে।

তিনি বলেন, ১৮ বছরের নিচে যাদের বয়স তাদের জন্য বাবা-মায়ের জন্মনিবন্ধন দেয়ার বিষয়টি এতদিন ধরে আবেদনে বাধ্যতামূলক থাকলেও সেটি আমরা তুলে দিয়েছি।

বিজ্ঞাপন
১৮ বছরের নিচে যারা তাদের টিকা নিতে হলে হয়তো বাবা-মাসহ তিনটি জন্মনিবন্ধন করা লাগতো। সেজন্য এটি তুলে দিয়েছি। পরবর্তী সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত এভাবে নিবন্ধন কার্যক্রম চলবে। বর্তমানে যদি কেউ নিবন্ধন করতে যান তাহলে আর বাবা-মায়ের জন্মসনদ বাধ্যতামূলক না। গত ২৮শে জুলাই থেকে সেটি অপশনাল হিসেবে রাখা হয়েছে।

এর আগে ২০০১ সালের পর জন্ম নেয়া ব্যক্তিদের জন্মনিবন্ধন করতে হলে তার বাবা-মায়ের জন্মনিবন্ধন সনদ অবশ্যই প্রয়োজন হতো। ওই সময় জন্মনিবন্ধন করতে গিয়ে নানা ভোগান্তি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন অভিভাবকরা। গত ২৪শে জুলাই মানবজমিন পত্রিকায় জন্মনিবন্ধনের ভোগান্তি নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এর ৪দিন পরেই নতুন সিদ্ধান্ত নিয়েছে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন রেজিস্ট্রার জেনারেল কার্যালয়।

সূত্র জানায়, ২৭শে জুলাই থেকে জন্মনিবন্ধনের আবেদন করতে গেলে সফটওয়্যারে মা-বাবার জন্মসনদ চাওয়া হচ্ছে না। এতে বিয়ে বিচ্ছেদ হওয়া পরিবারের সন্তান, যাদের মা কিংবা বাবা যেকোনো একজনের সঙ্গে যোগাযোগ নেই এবং পথশিশুদের জন্মনিবন্ধন করতে যে জটিলতা ছিল, সেটি আর থাকছে না। এর ফলে ভোগান্তির অভিযোগ থেকেও রেহাই পাচ্ছে জননিবন্ধন কর্তৃপক্ষ।
 

পাঠকের মতামত

এটা আরো আগেই করা দরকার ছিল। কারণ আমি আমার সন্তানের নিবন্ধন করতে গিয়ে এই সমস্যা হওয়ায় গ্রাম থেকে আমাদের স্বামী এবং স্ত্রীর অনলাইন জন্ম নিবন্দন করে আনতে অনেক কষ্ট হয়েছে। এখানে একটি কথাই বলতে যাই যেখানে এন আইডি ও পাসপোর্ট নম্বার থাকে সেখানে কেন পিতার মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর লাগবে? আজব দেশে বসবাবস করছি। যত রকমের ঝামেলা তৈরী করা যায়। সবই তারা করে।

মিজানুর রহমান
১৭ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ৫:০৯ পূর্বাহ্ন

Ok

Mojibur Rahman
১৬ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:৪৮ পূর্বাহ্ন

আরেকটা মারাত্মক ভুল শিদ্দান্ত, মা বাবা র আইডি ছাড়া কিবাভে সনাক্ত করবেন সন্তান কার ??

Imran
১৬ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ৩:৪১ পূর্বাহ্ন

যেসব জন্মনিবন্ধন ২০১৩ এর পর নিবন্ধন হয়েছে অপারেটরের ভুলে তাদের অসাবধানতাবসতঃ ভুল জন্ম সাল যৌক্তিক নথিপত্র থাকার পরেও সংশোধন হচ্ছেনা এই সমস্যার সমাধান কি ?

M S Rana
১৫ আগস্ট ২০২২, সোমবার, ১১:৩৭ অপরাহ্ন

খুব ভাল,বাস্তবসম্মত, নাগরিক দের জন্য স্বস্তিকর সিধ্যান্ত।

Nurul Alam Tipu
১৫ আগস্ট ২০২২, সোমবার, ১১:০৩ অপরাহ্ন

Good decision ,realistic. thanks to Govt ministry & City corporation concerned.

rafq
১৫ আগস্ট ২০২২, সোমবার, ৮:৫০ অপরাহ্ন

প্রথম পাতা থেকে আরও পড়ুন

প্রথম পাতা থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status