ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

অনলাইন

১ হাজার বছর পর বন্যায় ভাসলো মৃত্যু উপত্যকা

মানবজমিন ডিজিটাল

(১ মাস আগে) ১১ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১:৪৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৫:২৪ অপরাহ্ন

প্রবল বর্ষণে ভাসলো ডেথ ভ্যালি বা মৃত্যু উপত্যকা। সেখানে রাস্তাঘাট জুড়ে এখন কেবল ধ্বংসস্তূপ, ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে একাধিক অবকাঠামো, জলের তোড়ে ভেসে গেছে একাধিক গাড়ি। আবহাওয়াবিদরা বলছেন এক হাজার বছর পর এইধরণের ঘটনা ঘটলো। নাসার আর্থ অবজারভেটরির বিশেষজ্ঞদের মতে, মাত্র তিন ঘণ্টার ঝড়ের পর প্রায় ৭৫ শতাংশের বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে এই অঞ্চলে। ডেথ ভ্যালি ন্যাশনাল পার্কে ঘুরতে আসা শত শত পর্যটক এবং পার্কের কর্মীরা আটকে পড়েন। সমস্ত রাস্তা চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বন্যার পর কাদা এবং নুড়ির পুরু স্তর জমে গেছে রাস্তায়। তবে যারা আটকা পড়েছিল তারা এই সপ্তাহের শুরুতে পার্ক থেকে বেরিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে পার্ক পরিষেবা কর্মীদের সহায়তায়। গত এক হাজার বছরে চতুর্থ বার বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হল ডেথ ভ্যালিতে।

ন্যাশনাল ওয়েদার সার্ভিস লাস ভেগাসের আবহাওয়াবিদ ড্যানিয়েল বার্ক এই বছরটিকে ঐতিহাসিক বছর বলে বর্ণনা করেছেন। কিন্তু এই ধরনের ঘটনা, একসময় অত্যন্ত বিরল বলে মনে করা হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞানীরা বলছেন, যে জলবায়ু সংকটের কারণে আবহাওয়ার এই খামখেয়ালিপনা। যার বেশি প্রভাব পড়েছে আমেরিকার পশ্চিমে। ক্রমাগত খরার প্রকোপ বাড়ছে। বছর বছর ধরে ডেথ ভ্যালির মত উষ্ণ অঞ্চলও একদিন ঝড়ের তাণ্ডবে তছনছ হয়ে যাবে বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা। ১৯১৩ সালে ডেথ ভ্যালিতে ১২৯ ডিগ্রি ফারেনহাইট তাপমাত্রা নয় বছর ধরে বিশ্ব রেকর্ড ছিল। সেন্টিগ্রেডের হিসেবে যেটা প্রায় ৫৪ ডিগ্রি! গত এক শতক ধরে বিশ্বের ভয়াবহতম জায়গাগুলির তালিকায় রয়েছে এর নাম। পৃথিবীর অন্য যেকোনো স্থানের চেয়ে বেশি তাপমাত্রার জন্য পরিচিত আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়া প্রদেশের নেবাদা সীমানা ঘেঁষা এই অঞ্চল। প্রবল ঝড় বৃষ্টির পর কোনো আহতের খবর পাওয়া যায়নি তবে ক্যালিফোর্নিয়া হাইওয়ে টহল এবং নৌ বিমান দ্বারা বায়বীয় অনুসন্ধান চালানো হচ্ছে। ন্যাশনাল পার্ক সার্ভিস একটি বিবৃতিতে বলেছে, পার্কের কোথাও কোনো গাড়ি আটকে পড়েছে কিনা তা দেখা হচ্ছে।

একটি বিবৃতিতে, পার্ক সুপারিনটেনডেন্ট, মাইক রেনল্ডস বলেছেন, এই পার্ক পুনঃনির্মাণ করতে সময় লাগবে। কর্মকর্তারা এখনও পার্কের  এক হাজার মাইলেরও বেশি রাস্তা জুড়ে ধ্বংসের মূল্যায়ন করার জন্য কাজ করছেন। নাসার স্যাটেলাইটগুলি ঝড়ের মুহূর্তগুলি ক্যাপচার করতে সক্ষম হয়েছিল, যেখানে দেখা গেছে বাদামী ভূখণ্ড জুড়ে নীল রঙের একটি বেল্ট। রেনল্ডস বলেছেন, এক হাজার বছরের পর এই বন্যা চরম পরিবেশের আরেকটি উদাহরণ।

সূত্র : গার্ডিয়ান
 

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status