ঢাকা, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, শুক্রবার, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

অনলাইন

পেট্রোল ও অকটেনের দাম কৌশলগত কারণে বাড়াতে হয়েছে: বিপিসি’র চেয়ারম্যান

স্টাফ রিপোর্টার

(১ মাস আগে) ১০ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ৮:১৩ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ৪:২৩ অপরাহ্ন

দেশে বর্তমানে ৩০ দিনের ডিজেল, ১৮ থেকে ১৯ দিনের অকটেন, ১৮ দিনের পেট্রোল এবং ৩২ দিনের জেট ফুয়েল মজুত রয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি)। পেট্রোল ও অকটেনের দাম কৌশলগত কারণে বাড়াতে হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিপিসি চেয়ারম্যান এ বিএম আজাদ। বুধবার জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) প্রধান কার্যালয়ে তিনি এসব কথা বলেন। 

তিনি বলেন, ১১টি উন্নয়ন প্রকল্পের সম্ভাব্য ব্যয় হবে ৩৪ হাজার কোটি টাকার বেশি। মুনাফার একটি অংশ বিপিসি প্রকল্পের নামে জমা রেখেছে। বিপিসির পেমেন্টগুলো নিরবচ্ছিন্ন রাখতে অন্তত ২০ হাজার কোটি টাকা অ্যাকাউন্টে রাখতে হবে। বিশ্ববাজারে তেলের মূল্যের ঊর্ধ্বগতি পর্যবেক্ষণ করছিল বিপিসি। এফডিআর ভেঙে ভেঙে তেল কিনেছে সরকার। তেল সরবরাহে যাতে বিঘ্ন না ঘটে, সে জন্যই এসব ব্যবস্থা। প্রকল্পের টাকা এনে তেল কেনার কারেন্ট অ্যাকাউন্টে নগদায়ন করা হয়েছে। তিনি বলেন, প্রকল্পের জন্য বরাদ্দ করা টাকা সরাতে-সরাতে ৩৪ হাজার কোটি টাকা থেকে কমে এখন ১৯ হাজার কোটি টাকায় এসে দাঁড়িয়েছে।
তিনি বলেন, বর্তমানে আগস্টের প্রথম সপ্তাহে প্রতি লিটার ডিজেলে ১২০ টাকা খরচ হচ্ছে বিপিসির, এ ক্ষেত্রে লিটারপ্রতি ৬ টাকার মতো লোকসান দিতে হচ্ছে।

অকটেনে ২৫ টাকার মতো বিপিসির লাভ হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, অনেকেই বলছেন, বিপিসির টাকা দিয়ে কয়েক মাস চললে তেলের দাম বাড়াতে হতো না।

বিজ্ঞাপন
এটা ঠিক নয়। আমরা এফডিআরের টাকা দিয়েই তেল আমদানি করেছি।  বিপিসির এক্সটার্নাল অডিট অন্তত দুটি প্রতিষ্ঠান দিয়ে করিয়ে থাকে বলেও জানান তিনি।
এ সময় তিনি জানান, বর্তমানে দেশে ৩০ দিনে ডিজেল মজুত রয়েছে। এ ছাড়া ১৮ থেকে ১৯ দিনের অকটেন, ১৮ দিনের পেট্রোল এবং ৩২ দিনের জেট ফুয়েল রয়েছে। 

জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর বিষয়ে তিনি বলেন, উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য তেলের দাম বাড়ানো হয়নি। ক্রুডের কারণে পেট্রোল ও অকটেনের দাম বাড়ে। সুতরাং পেট্রোল ও অকটেনের দাম কৌশলগত কারণে বাড়াতে হয়েছে। 
সরকার ১৫ থেকে ১৬ শতাংশ আমদানি কমাতে বলেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ বিষয়টি বিবেচনা করা হচ্ছে।
বিপিসির লোকসান নিয়ে তিনি বলেন, ২০২০-২১ অর্থবছরে লোকসান হয় ৫ হাজার কোটি টাকার বেশি। এখন আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে ২০২২ সালের জুলাই পর্যন্ত ৮ হাজার কোটি টাকার বেশি লোকসান হয়েছে।

পাঠকের মতামত

বাংলাদেশের জনগণ অন্য দেশ থেকে আসে নাই তাই কৌশল যেটাই বের করেন জাতি বুঝতে পারে

Ashraful Alam
১১ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ৪:২০ অপরাহ্ন

আপনাদের কৌশলের খেলা থামান। আপনাদের কৌশলের কারণে দেশ এখন ভারতের অঙ্গরাজ্য। কৌশলগত কারণে কানাডা, মালয়েশিয়া, আমেরিকা সিঙ্গাপুরে বাড়ি কিনেছেন। কৌশলগত কারণেই এক চালানে ফিনল্যান্ডে ১৯ স্যুটকেস ডলার পাচার করেছেন। শোনা যায় মালদ্বীপ এ দ্বীপও কেনা হয়েছে কৌশলগত কারণেই।দয়া করে আর কৌশল করবেন না। রাজাপাকসে আবার শ্রীলঙ্কায় ফেরত আসছে শুনে উৎফুল্ল হবেন না।একটা ইতিহাস জানেন না। বাঙালির সাথে বেইমানি করার জন্য মোনায়েম খানের লাশ কবর থেকে তুলে ফেলে দিয়েছিল মুক্তিযোদ্ধারা। বাঙালি সেই জাত। মরে গেলেও রেহাই নেই। এখনকার সকাল বিকাল উদযাপন তখন হবে অতিত ইতিহাস।

nasym
১১ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১২:১৭ অপরাহ্ন

uni yarki marar jaiga pan na?

xyx
১০ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ৪:৫১ অপরাহ্ন

ফাজলামির একটা সীমা থাকা উচিৎ! কৌশলগত কারনে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি করে ১৮ কোটি জনগণকে ভোগান্তির চরমে নিয়ে যাওয়া কি যৌক্তিকতা থাকতে পারে যেখানে বিশ্ববাজারে তেলের দাম নিম্নমুখী?

আব্দুল জব্বার
১০ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ১১:৪০ পূর্বাহ্ন

So, where is the previous profit? In whose pocket?

Alamgir
১০ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ১০:৪৩ পূর্বাহ্ন

হায় আমলাতান্ত্রিক কৌশল! অপচয় রোধ করা, চুরি ঠেকানো, দূর্নীতি ঠেকানো, চোরাচালানি ঠেকানো বা ব্যক্তিগত গাড়ীর জন্য রেশনিং ইত্যাদি কৌশল হলো না। হলো মূল্যবৃদ্ধির মতো জনজীবন অতিষ্ঠ করা কৌশল। এক দিন জনগন এর জবাব চাইতে পারে!

মোহাম্মদ হারুন আল রশ
১০ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ১০:৩১ পূর্বাহ্ন

এখন কৌশলগত কারণে মূল্য টা কমিয়ে দিন।

Imam Hassan
১০ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ৯:৩১ পূর্বাহ্ন

He is playing the same music as the BAL government ministers. By the way - you should clarify "কৌশলগত কারণ".

Nam Nai
১০ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ৮:১৫ পূর্বাহ্ন

কৌশলটা কি জনগনকে বাঁশ দেওয়া ?

Andalib
১০ আগস্ট ২০২২, বুধবার, ৮:১২ পূর্বাহ্ন

অনলাইন থেকে আরও পড়ুন

আরও খবর

অনলাইন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রায়শই মিলত ধর্ষণের হুমকি/ ‘গেট খুলে দেখি মেয়ে অর্ধ-উলঙ্গ এবং গলা কাটা’

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status