ঢাকা, ১৬ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ১ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৭ মহরম ১৪৪৪ হিঃ

শরীর ও মন

ত্বকে এলার্জি ও শরীরে এর প্রভাব

ডা. দিদারুল আহসান
৫ জুলাই ২০২২, মঙ্গলবার

ত্বকে এলার্জি কোনো রোগ না। কিন্তু দেখা যায় ত্বকে এর প্রভাব অনেক বেশি। ত্বকে এলার্জি  কখনো কখনো এটি এমন সমস্যার সৃষ্টি করে যে, চুলকাতে চুলকাতে রক্ত বের হয় এমনকি  জ্বর পর্যন্ত হয়ে যায়। দেখা যায় প্রায় প্রত্যেকটি মানুষের চামড়ার এলার্জি রয়েছে কিন্তু অধিকাংশ মানুষ এটি প্রতিরোধ করার জন্য কোনো প্রতিকার গ্রহণ করেন না। অনেকেই জানেন না যে, ত্বকে এলার্জির সঠিক চিকিৎসা না করার কারণে তাদের ত্বক খুব খারাপ হতে পারে এবং ক্ষতির শিকার হতে পারে। তাই  ত্বকে এলার্জি, উপসর্গ এবং এগুলোর প্রতিরোধ করার উপায় সম্পর্কে  সাধারণ ধারণা থাকা দরকার।
যেভাবে এলার্জির সংবেদন হয়
অনেকেই ত্বকে এলার্জি দ্বারা আক্রান্ত হয়। এ কারণে দেখা যায় যার জন্য তাদের ত্বকে চুলকানির বদলে দাদ, ছোল, ফুসকুড়ি ইত্যাদি হয় এবং বিষয়গুলোকে সেভাবে গুরুত্ব  দেয়া হয় না, কিন্তু এর পরিণাম গভীর হতে পারে। যদি ঠিক সময় এ সমস্যার গুরুত্ব না দেওয়া হয় তাহলে নানান ত্বকের রোগ দেখা দিতে পারে। এগুলো ছাড়াও বহুবার প্লাস্টিকের ব্যাগের  কোনো দ্রব্য, পারফিউম, চশমা, সাবান ইত্যাদি থেকে এলার্জি হতে পারে। এলার্জি এই ধরনের কনটেক্ত ডার্মাইটিস বলা হয়।

বিজ্ঞাপন
সুতরাং জানা যাক এর লক্ষণ, কারণ এবং নির্মূল করার ঘরোয়া উপায়।
এলার্জির কিছু নির্দিষ্ট কারণ
 আবহাওয়া পরিবর্তনের ফলে নাকে এলার্জি হতে পারে
 বায়ু দূষণ
 ট্যাটুর প্রভাব
 শরীরের অনুপযুক্ত খাবার খাওয়া
 পরিচ্ছন্নতা
 সৌন্দর্যতার চুলের রঙ ব্যবহার করা
 কোনো ড্রাগ বা ওষুধের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া
 শুষ্ক ত্বকের কারণে ত্বক এলার্জি
 পোকামাকড় কামড়ালে
 প্রচণ্ড ঝাঁকুনি 
লক্ষণসমূহ
 ত্বক রঙ পরিবর্তন হওয়া,  যেমন লাল দাগ হওয়া
 চুলকানি হওয়া
 ব্রণের মতো  ফুসকুড়ি হওয়া
 জ্বালা জ্বালা করা
 ব্রণে পরিণত হওয়া
এলার্জি এড়ানোর জন্য কিছু  উপায়
 ঘরের বাইরে  বেরোনোর সময় মুখ এবং শরীরের অন্যান্য অংশ    কাপড় দিয়ে ঢেকে দিন। সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন ও ধুলোবালিমুক্ত থাকুন
 মুখ পানি দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার রাখুন 
 অ্যালো ভেরাজেল বা অ্যালো থেকে তৈরি ক্রিম ব্যবহার করুন।
 চিকিৎসকের পরামর্শে মেডিকেটেড সাবান ব্যবহার করুন।
  ত্বক বেশি চুলকাবেন না।
  শরীরে খোলা বাতাস লাগান।
 সবচেয়ে আদর্শ উপায় হলো এলার্জি হওয়ার কারণ নির্ণয় করুণ এবং তা থেকে দূরে থাকুন।
গরুর মাংস খেলে যদি এলার্জি হয়
মাংসতে এলার্জি হওয়ার কারণ সমূহ হলো- ত্বকে ফুসকুড়ি হওয়া, পেট ব্যথা ও বদ হজম, বমি বমি ভাব, ডায়রিয়া, নাক বন্ধ হয়ে যাওয়া, হাঁপানি বা অনেকের এলার্জি থেকে শ্বাস কষ্ট দেখা। এসব কারণের জন্য কোরবানিতে মাংস খেতে পারবেন না তা কিন্তু না। বিশেষ করে মুসলমানরা কোরবানির  ঈদে  প্রচুর মাংস খান। কিন্তু যাদের মনে হয় গরুর মাংস খেলে এলার্জিজনিত সমস্যাটি বেড়ে যাচ্ছে তাদের একটু নিয়ম করে মাংস খেতে হবে। তাতে তেমন ক্ষতি হবে না। বিশেষ করে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে কিছু ওষুধ সংগ্রহে রাখতে হবে।  মাংস খেতে হবে অল্প পরিমাণে। এছাড়া লাল ও চর্বিযুক্ত মাংস খাওয়া  পরিহার করতে হবে। 
 

লেখক: চর্ম, অ্যালার্জি ও  যৌন রোগ বিশেষজ্ঞ 
চেম্বার: আল-রাজী হাসপাতাল, ১২ ফার্মগেট, ঢাকা। মোবা-০১৭১৫-৬১৬২০০

 

শরীর ও মন থেকে আরও পড়ুন

শরীর ও মন থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status