ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিঃ

কলকাতা কথকতা

মমতা-অভিষেককে ঘিরে তৃণমূলে নবীন-প্রবীণ দ্বন্দ্ব!

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা

(২ সপ্তাহ আগে) ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২, শনিবার, ১০:২৭ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট: ১:৫৪ অপরাহ্ন

ফাইল ছবি

ভরা নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়াম। তৃণমূলের ব্লক স্তরের নেতারা উপস্থিত, হাজির পঞ্চায়েতের নেতারা। কলকাতার নেতা-মন্ত্রীরাও রয়েছেন। হঠাৎই ভাষণের মাঝখানে মমতা বললেন, আমার আর অভিষেকের মধ্যে কোনও বিরোধ নেই। আমাদের নীতি এক, চলার পথও এক। মমতার এই কথন শুনে অনেকেই মনে করছেন- ঠাকুরঘরে কে, আমি তো কলা খাইনি গোছের ব্যাপার হয়ে গেলো না তো? কিন্তু, এছাড়া মমতার কোনও উপায়ও ছিলো না। কিছুদিন ধরে দলের অন্দরে কান পাতলে ফিসফিসানি শোনা যাচ্ছিলো। দলের নিয়ন্ত্রণ এখন অভিষেকের হাতে। পার্থ চট্টোপাধ্যায় জেলে, ববি-অরূপরা নাকি অবসিত সূর্য। অভিষেককে কেন্দ্র করে নব্য তৃণমূলরা নাকি জোট বাঁধছেন দুর্নীতি মুক্ত তৃণমূল গঠন করার জন্য।

বিজ্ঞাপন
এরই মধ্যে দক্ষিণ কলকাতায় কিছু পোস্টার পড়ে অভিষেকের ছবি দিয়ে যে নতুন তৃণমূল আসছে। এই পোস্টার কারা দিলো তাই নিয়েও দ্বন্দ্ব দেখা যায়। অভিষেক নিজেও কামাক স্ট্রিটে তাঁর অফিস থেকে বেশ কিছু কর্মসূচি ঘোষণা করেন। কিন্তু, এত দুর্নীতির মাঝেও যে মমতা ছাড়া গতি নেই তা বুঝে যান তৃণমূলের এমনকি নতুন হওয়ার পন্থিরাও। এরপরই মমতার ওই ঘোষণা। বিরোধীরা মমতা-অভিষেক দ্বন্দ্বে একটি নতুন থিওরি চালু করেছিল। অভিষেকের নাকি সেটিং হয়ে গেছে কেন্দ্রীয় বিজেপির সঙ্গে। কয়লা চুরি কেসে অভিষেক বেকসুর হবেন, বিনিময়ে তিনি তৃণমূল ভাঙবেন। নতুনদের নিয়ে নব্য তৃণমূল গড়ে মমতাকে গদিচ্যুত করবেন। গল্পের গরু গাছে চড়ার মতো এই তত্ত্ব খারিজ করেছে বাংলার জনগণ। তবে, বিরোধীরা এখনও বলছেন, গল্প এখনও আছে, গরুও নাকি গাছে চড়বে। শুধু, সময়ের অপেক্ষা। ডিসেম্বরে সেই সময় আসতে পারে বলে মনে করছেন বিরোধীদের অনেকে। কেন্দ্রীয় বিজেপির নাকি এখন বেছে নেয়ার পালা- মমতা না অভিষেক? এই প্রশ্নেরও জবাব দেবে সময়, শুধু সময়।             
 

কলকাতা কথকতা থেকে আরও পড়ুন

কলকাতা কথকতা থেকে সর্বাধিক পঠিত

প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং স্কাইব্রীজ প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং লিমিটেড, ৭/এ/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2022
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status