ঢাকা, ২২ মে ২০২৪, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ জিলক্বদ ১৪৪৫ হিঃ

বাংলারজমিন

ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে নিয়ে গেল স্ত্রী

ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি
১৮ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে নিয়ে গেছে স্ত্রী জাকিয়া বেগম। স্বামীর নাম ফিরোজ মিয়া (২৯)। সে পেশায় একজন এক্সেভেটর চালক। গতকাল ভোর রাতে উপজেলার রাউৎবাড়ী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ফিরোজ রাউৎবাড়ী গ্রামের মৃত শাহজাহান আলীর ছেলে এবং স্ত্রী জাকিয়া জিগাতলা গ্রামের মো. জামিলের মেয়ে। তাদের ৫ বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। এদিকে ঘটনার পর থেকেই  স্ত্রী জাকিয়া পলাতক রয়েছে। স্থানীয়রা জানান, প্রায় একযুগ আগে উপজেলার রাউৎবাড়ী গ্রামের মৃত শাহজাহান আলীর ছেলে ফিরোজের সঙ্গে জিগাতলা গ্রামের মো. জামিলের মেয়ে জাকিয়ার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ লেগেই থাকতো। 

এ নিয়ে দফায় দফায় গ্রাম্য সালিশ হয়। সম্প্রতি গোবিন্দাসী ইউপি চেয়ারম্যান মো. দুলাল হোসেন চকদারের উপস্থিতিতে ৩ লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানার মাধ্যমে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে।

বিজ্ঞাপন
সেখানে সালিশে ২০ হাজার টাকা দিতে সম্মত হলেও পরবর্তীতে ৩ লাখ টাকা না দিতে পেরে ফিরোজ স্ত্রীকে আবার নিজ ঘরে ফিরিয়ে নেয়। তারপরও তাদের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ লেগেই থাকে। মঙ্গলবার রাতে ফিরোজ বাড়ি ফিরে খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। গতকাল ভোর রাতের কোনো এক সময় ঘুমন্ত অবস্থায় স্ত্রী জাকিয়া বেগম তার স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে নিয়ে যায়। লজ্জার কারণে বিষয়টি গোপন রাখলেও সকালে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে তা প্রকাশ পায়। পরে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে ভূঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। পরে তাকে সেখানে ভর্তি করা হয়। এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আহসান উল্লাহ বলেন, ঘটনাটি স্থানীয়দের মাধ্যমে জানতে পেরেছি। এখনো কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত  ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পাঠকের মতামত

পুলিশ সাধারণ মানুষের বিষয়ে কোন ব্যবস্থা নেয় না। রাজনৈতিক বিষয়ে হলে এবং সরকার পতনের কোন আন্দোলন হলে পুলিশ সরকারকে রক্ষার জন্য পুলিশ নিজ থেকেই গায়েবী মামলা নামে মামলা প্রতিপক্ষের উপর চাপিয়ে দেয়। বর্তমান পুলিশের ধর্ম এটাই।

Mujib
১৮ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ৪:১৩ অপরাহ্ন

এখন চেতনা দণ্ড সঙ্গে নিয়ে সংসার করুক!

বন্ধু খান
১৮ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ৩:৪৮ অপরাহ্ন

একটা মানুষ কতটা অসহায় হলে লিঙ্গ কেটে নেওয়ার পরেও চুপ থাকে!! পুরুষটি হয়তো চুপ আছে এই ভেবে যে "লিঙ্গ নিয়ে হলেও এই বিপদজনক মহিলাটি তার জীবণ থেকে বিদায় নিয়েছে, সান্তনা এই যে মাথা কেটে নেয় নি!" পুলিশের কি ন্যায় অন্যায় বোধ নেই? পুলিশ কি বাদী হয়ে মাললা করতে পারে না? এই একই পুলিশ রাজনৈতিক এক মামলায় কোন অভিযোগ ছাড়া ১০০ জনকে হুকুমের আসামি করে। এখন একসান নিতে অভিযোগের অপেক্ষা করছে । বাহ! কী তামাশা ।

Sakhawat
১৮ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ২:২৯ অপরাহ্ন

এ তো মেয়ে না অনেক বড় ডাইনি এই ডাইনি কে গ্রেফতার করে সঠিক বিচার করা হউক।

Ahmed
১৮ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ২:১৮ অপরাহ্ন

Well done!

Kirum
১৮ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ১:৫৯ অপরাহ্ন

আহারে সোনার বাংলার সোনার মেয়ে

জাহাঙ্গীর আলম
১৮ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ১১:২৯ পূর্বাহ্ন

সিরিয়াস! ডাকু টাইপের মহিলা না হলে এমন জঘন্য কাজ করতে পারে না। তার কঠিন শাস্তি হওয়া উচিত।

মো: সাইফুল ইসলাম
১৮ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ১০:৩২ পূর্বাহ্ন

আহারে! লিঙ্গ বিনা পুরুষ মানুষটা বেঁচে থাকবে কি জন্য? আজ যদি স্বামী স্ত্রীর স্তন কেটে নিয়ে চলে যেত তাহলে চতুর্দিকে হায় হায় রব পড়ে যেত! অথচ স্তন বিনাও নারী যৌন জীবন জারী রাখতে পারে।

মজলুম বনি আদম
১৮ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ৯:২০ পূর্বাহ্ন

প্রায়ই দেখা যায় পুলিশ বলে কেউ অভিযোগ করেনি।অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। ঘটনা বাস্তব হলে অভিযোগের জন্য কি অপেক্ষা করতে হবে!!অনেকেই তো প্রতিপক্ষের ভয়ে অভিযোগ করে না। সেই সময়ও কি আইন স্তবির থাকবে??

রাশিদ
১৮ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার, ২:০০ পূর্বাহ্ন

বাংলারজমিন থেকে আরও পড়ুন

   

বাংলারজমিন সর্বাধিক পঠিত

Logo
প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী
জেনিথ টাওয়ার, ৪০ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ এবং মিডিয়া প্রিন্টার্স ১৪৯-১৫০ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ থেকে
মাহবুবা চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও প্রকাশিত।
ফোন : ৫৫০-১১৭১০-৩ ফ্যাক্স : ৮১২৮৩১৩, ৫৫০১৩৪০০
ই-মেইল: [email protected]
Copyright © 2024
All rights reserved www.mzamin.com
DMCA.com Protection Status